উসেইন বোল্ট…… Lightning Bolt

অলিম্পিক সোনা জেতার আগে থেকেই উসেইন বোল্টকে বলা হতো বিদ্যুৎময় বোল্ট। গত জুলাই এ ১০০ মিটার স্প্রিন্টে মাত্র ৫ম বারের মতো দৌড়াতে নেমেই উসেইন বোল্ট টাইমিং করেন ৯.৭৬ সেকেন্ড। তখনই ফিসফাস শুরু হয়েছিলো। মাত্র চার সপ্তাহের ভিতর বেইজিং অলিম্পিকে ১০০ মিটার দৌড়ে বিশ্ব রেকর্ড করে বসেন এবং একই সাথে ২০০ মিটার এবং স্প্রিন্ট রিলে এর বিশ্ব রেকর্ডও নিজের বায়োডাটাতে যোগ করেন। ২০০৮ সালে স্প্রিন্ট দৌড়ের সব হিসাব নিকাশ বদলে ফেলেছেন উসেইন বোল্ট।
বিশ্বরেকর্ডধারী উসেইন বোল্ট

১৯৭৬ সালে মন্ট্রিল অলিম্পিকের ২০০ মিটারের সোনা জয়ী জ্যামাইকান ডোনাল্ড কোয়ারী সেই এপ্রিলেই বলেছিলেন উসেইন বোল্ট ৪০০ মিটার দৌড়ে বিশ্বসেরা হতে পারে যদি সে এই ইভেন্টটাতে ফোকাস করে। ডোনাল্ড কোয়ারী বিশ্বাস করেন উসেইন বোল্ট ৮০০ মিটার দৌড়ালে এটা একটা ফ্যাসিনেটিং ব্যাপার ঘটবে এবং সারা পৃথিবী বিস্ময়কর কিছু অবলোকন করবে। হতে পারে ৪০০ মিটার একটু লম্বা দৌড় কিন্তু ছয় ফুট পাঁচ ইঞ্চি লম্বা উসেইন বোল্টের রয়েছে লম্বা স্ট্রাইড ফলে সে অনেক অল্প কদমে দৌড় শেষ করবে। মজার ব্যাপার হলো কৈশোরে উসেইন বোল্ট ২০০/৪০০ মিটার দৌড়াতেন এবং ২০০৩ সালে ষোলো বছর বয়সে জ্যামাইকান স্কুল চ্যাম্পিওনশীপে ৪০০ মিটারের রেকর্ডধারী ছিলেন। এইদিকে ১০০ এবং ২০০ মিটারের বিশ্ব রেকর্ডধারী উসেইন বোল্ট তিনটি অলিম্পিক সোনা জিতেছেন আর এখন ভাবছেন কিভাবে ২০১০ সালের মধ্যে মাইকেল জনসনের ৪০০ মিটারের রেকর্ড ভাঙ্গা যায়।

আমি মনে করি উসেইন বোল্ট এর তারুন্য, দৌড়ের স্টাইল, একাগ্রতা আর এখন পর্যন্ত পাওয়া সাফল্যের অভিজ্ঞতা উসেইন বোল্ট এর সম্পদ। উসেইন বোল্ট একজন বাইশ বছর বয়সী মোটিভেটেড দৌড়বিদ এবং প্রতিনিয়ত পরিপক্ক হচ্ছেন। আর এসবই তাকে সাহায্য করবে ভবিষ্যত সাফল্য পাওয়ার ব্যাপারে। মাত্র ২২ বছর বয়সে বেইজিং অলিম্পিকে তিনি প্রমান করেছেন তিনি চাপ ভালই সামলাতে পারেন। অলিম্পিকের স্মৃতিচারন করতে গিয়ে BBC কে উসেইন বোল্ট বলেন ‘আপনি যদি অলিম্পিকে গিয়ে মেস-আপ করার চিন্তায় থাকেন, তাহলেই মেস-আপ হবে। ওইখানে হয়তো আমার চেয়ে ভালো স্টার্টার ছিলো কিন্তু আমি হলাম শক্তিশালী ফিনিশার। আমি জানতাম আমি ৭৫ মিটার শেষেই দৌড় জিতেছি আর এজন্যই আমি সেলিব্রেট করতে শুরু করেছিলাম। আমি টাইমিং এর পরোয়া করিনি তখন। কারন এবারই প্রথম আমার দেশ থেকে কেউ ১০০ মিটার জিতলো।’ আর আমি মুগ্ধ হয়েছি এতেই। এই রকম আত্মবিশ্বাস যে কাউকে মুগ্ধ করবে।

দৌড় শুরু করার আগে উসেইন বোল্ট এর শো পুরো ইভেন্টের চেয়ে আকর্ষনীয়। অলিম্পিকে প্রেসিডেন্ট জ্যাক রগ ভুল ধারনা করেছিলেন। ভেবেছিলেন উসেইন বোল্ট তার সহযোগী দৌড়বিদদের সম্মান দেখান নাই। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। ২০০ মিটারের রৌপ্য পদক বিজয়ী আমেরিকার শন ক্রফোর্ড সাংবাদিকদের বলেন আমি উসেইন বোল্ট এর এন্টিক্স খুব পছন্দ করি। উসেইন বোল্টও মনে করেন তার এন্টিক্সগুলো নিতান্তই মজা করার জন্য এবং জনতা তা ভালবাসে। খেলাধুলার জগতে আজকাল ক্যারেক্টারের খুব অভাব। জন ম্যাকেনরো, ম্যারাডোনা, শেন ওয়ার্ন কিংবা শোয়েব আকতার অবসরে চলে যাবার পর ছিলো শুধু ক্রিকেট আম্পায়ার বিলি বাউডেন। এখন আছে উসেইন বোল্ট। এজন্যই আট সোনা জেতা মাইকেল ফেলপ্স থেকেও উসেইন বোল্ট অনেক আকর্ষনীয় ক্রীড়াবিদ।

মানুষ উসেইন বোল্ট

৩,৬৭৫ বার দেখা হয়েছে

৩৯ টি মন্তব্য : “উসেইন বোল্ট…… Lightning Bolt”

    • জাফর (৯৫-০১)

      বোল্ট সম্পরকে প্রথম আলো তে লিখতে গিয়ে কার যেন একটা বাণী এর উদ্বৃতি দিয়েছিল , যেটা আমার খুব মনে ধরছিল ,

      " তোর আমার মতো কত কীট ই তো এই ৃথিবীতে আসে যায় । দুনিয়া তে যখন এসেছিস তখন একটা দাগ রেখে যা । "

      বোল্ট এর জন্য...... :salute: :salute: :salute:

      জবাব দিন
  1. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    জাফর (৯৫-০১) বলেছেনঃ
    জানুয়ারী ১, ২০০৯ @ ১১:৪৭ অপরাহ্ন

    আহসান আকাশ (৯৬ - ০২) বলেছেনঃ
    জানুয়ারী ১, ২০০৯ @ ১১:৪৭ অপরাহ্ন

    এহসান ভাই, ফটো ফিনিশিং এর আবেদন জানাচ্ছি


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  2. বেশ তথ্য সমৃব্ধ লেখা। :clap: :clap:
    তবে তার উসেইন বোল্ট হয়ে উঠার কাহিনী জানতে পারলে আরো মজা লাগতো। 😀
    আর ক্রীড়াবিদ উসেইন বোল্ট ছাড়া মানুষ উসেইন বোল্ট কেমন, এই সব।

    এহসান ভাইকে ধন্যবাদ। 😀
    খেলা আর সিনেমা নিয়ে আরো লেখা চাই। :thumbup:

    জবাব দিন
  3. আমি মনে করি উসেইন বোল্ট এর যৌবন(Youth এর বাংলা তো এইটাই), দৌড়ের স্টাইল, একাগ্রতা আর এখন পর্যন্ত পাওয়া সাফল্যের অভিজ্ঞতা উসেইন বোল্ট এর সম্পদ।

    ও এহসান ভাই
    যদি ভালো বাংলা চান তবে Youth এর বিকল্প হিসেবে 'তারুণ্য' লিখতে পারেন। তবে যৌবন ও ঠিকাছে। 😉 সিসিবির জন্য পারফেক্ট। 😉

    জবাব দিন
    • এহসান (৮৯-৯৫)

      আসলে আমিও 'যৌবন' শব্দটা নিয়ে সন্তুস্ট ছিলাম না। :shy: :shy: :shy:
      অনেক চিন্তা করে না পেয়ে ব্রেকেটে ইয়ুথ লিখলাম। আমার বাংলা প্রতিশব্দের এই দুরবস্থার কথা এখানে লেখা শুরু করার পর টের পেয়েছি। এই দিকে আজকাল শুদ্ধ বাংলা বলতে কস্ট হচ্ছে। সিলেটী চলে আসে 🙁

      আমি আমার এই দুরবস্থায় যারপর নাই লজ্জিত। 🙁 যাই হোক মানুষ উসেইন বোল্ট এর একটা ভিডিও লিঙ্ক যোগ করেছি মূল রচনায়।

      জবাব দিন
  4. আপনাকে আমরা সিসিবির গেমস প্রিফেক্ট বানাইলাম। 🙂

    অলিম্পিকের দৌড়টা লাইভ স্ট্রিমিং দেখেছিলাম।

    বোল্ট শেষ ২০ মিটার ওরকম হেলায় না দৌড়ালে ৯.৩০ সেকেন্ড অসম্ভব কিছু ছিল না।

    জবাব দিন
  5. নাসির (৯৮-০৪)

    হুসেইন বোল্টের ভোল্টেজ অনেক বুঝাই যাচ্ছে। কিন্তু আমার কাছে দৌড়বিদ,দের God Gifted মনে হয়।চেষ্টা করলেই দৌড়ান যায়না। তাই মাঝে মাঝে হিংসাও হয় আবার ইচ্ছাও হয়।অবশ্য এখন আর বয়সও নাই। ছেলের-মেয়ে হইলে দেখি একটা প্রজেক্ট হাতে নেয়া যায় কিনা। 😀

    জবাব দিন
  6. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    .....run forest run......

    নাসির, পোলা/মাইয়ার নাম ফরেস্ট রাইখা ট্রাই কইরা দেখতে পারো।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  7. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)

    সিসিবি গেমস প্রিফেক্ট এহসান ভাইকে :salute: :salute: :salute:


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন
  8. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    উসাইনের ফিনিশিং দেখে আমি তো পুরাই টাশকি, এইটা কি মানুষ? জনসন, লুইস আরও অনেকের দৌড় দেখেছি, কিন্তু বোল্ট, সিম্পলি আউটস্ট্যান্ডিনং।

    খেলাধুলার জগতে আজকাল ক্যারেক্টারের খুব অভাব।

    মনের কথা বলছ, সব প্রফেশনাল এপ্রোচ, কেমন মরা মরা লাগে। মাপা হাসি, মাপা কথা, খেলা মনেই হয় না। মনে হয় অফিসে ডিউটি দিচ্ছে সবকয়টা।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
    • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

      বস আপনার আন্ডারে ছোটখাটো একটা কমান্ডো ক্যাডার করাইলেই হবে...

      ...run মাস্ফু run...


      আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
      আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

      জবাব দিন
        • তৌফিক (৯৬-০২)

          তাইলে একটা বুদ্ধি দেই আহসান ভাই। ধরেন গিয়া সে মকরামী করা শুরু করল, এখন মোটিভেট করতে হবে। মাস্ফ্যুরে একটা হাইপোথেটিক্যাল সিনারিও দিতে পারেন।

          মাস্ফ্যু বনানীর শর্মা হাউসে গেছে একজন জাস্ট ফেরেন্ড নিয়া। এই সময় কাচের জানালা দিয়া দেখতে পাইল তার আরেক জাস্ট ফেরেন্ড তার মারকুটে বোনকে নিয়ে শর্মা হাউসে ঢুকতেছে। আরেকটা দরজা আছে যেটা দিয়া মাস্ফ্যু ভাগতে পারে।

          এই সিনারিও দেয়ার পর বলবেনঃ

          now run for your life.

          আমি নিশ্চিত এর পর মাস্ফ্যুর জন্য ৮.৫ সেকেন্ডও ব্যাপার না। :grr: :grr: :grr:

          জবাব দিন
          • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

            আচ্ছা তৌফিক ভাই,বনানীর শর্মা হাউসের আমি নিয়মিত কাস্টমার-আর যেই কাচের জানালার কথা কইলেম আমি এগজ্যাক্টলি সেই জায়গাতেই বসি-রিমঝিম ম্যাডামের সাথে আমার সেকেন্ড ছবিটা ওইখানেই।
            আমার প্রশ্ন হইল,আপনে কি এই হাইপোথেটিকাল সিনারিওটা আন্দা গুন্দা বানাইছেন নাকি এই তথ্য আপনের জানা ছিল??
            কি শাঙ্ঘাতিক!!!!!ওই মিয়া আপনে আপনে আর কুন কুন লোকেশনে আমারে দ্যাকছেন খুইল্লা কন-প্রাইভেসির তো ফালুদা হয়া গেল আমার!!!

            জবাব দিন
            • ছবি দেইখাই বুঝছিলাম ওইটা শর্মা হাউসের। 😀

              কয়দিন পর পর একটা ১২ ইঞ্চি মেক্সিকানা হট পিজ্জা পেটে না ভরলে আমার শান্তি হইত না। এইখানে পুরু কইরা চিজ দিয়া পিজ্জা বানায়। কিন্তু শর্মা হাউসের স্বাদ পাইনা। 🙁

              আর কোথাও তোমারে দেখি নাই। 😛

              জবাব দিন
        • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

          মাস্ফু, বস রাজী হইছে, কুইক টাইম রিপোর্ট কর।


          আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
          আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

          জবাব দিন
  9. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    বোল্টকে ২০০৮ সালের সেরা এথলেট নির্বাচিত করেছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম। বোল্ট মোট ভোট পেয়েছে ১৬৭৩, ১৫৫৭ ভোট পেয়ে ২য় হয়েছে মাইকেল ফ্লেপস। ৯৬টি দেশের সাংবাদিক International Sports Press Association আয়োজিত এই নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহন করে।

    Media name Bolt athlete of the year


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  10. আব্দুল্লাহ্‌ আল ইমরান (৯৩-৯৯)

    উসাইন বোল্ট এলিয়েন এইটা নিশ্চত ! এইটা এই গ্রহের দৌড় না।
    আবার এইটাও ঠিক " ইম্পসিবল ইস নাথিং"
    বোল্টকে :salute: :salute: :salute: :salute: :boss: :boss: :boss: :salute: :salute:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।