একটা মন খারাপ করে দেয়া খবর

সকাল থেকে মনটা খুব খারাপ। বঙ্গোপসাগরে ৩০০ বাংলাদেশী নিখোঁজ। ভারতের আন্দামান ও নিকোবর দীপপুঞ্জের কাছে বঙ্গোপসাগরে ৩০০ বাংলাদেশী নিখোঁজ রয়েছে। তারা পানিতে ডুবে মারা গেছেন বলে আশংকা করা হচ্ছে। প্রতারক দালালের খপ্পরে পরে ৪৪৫ জন বাংলাদেশী মালয়শিয়া যাবার জন্য সমুদ্রপথে রওনা হয়েছিল। মধ্যসাগরে দালালরা তাদের অন্য একটি নৌযানে তুলে সটকে পড়ে। খাবারের অভাবে ৭ জন মারা যায়। মৃতদেহগুলো সাগরে ফেলে দেয়া হয়। পরে একটি বাতিঘর দেখে ওরা সবাই সমুদ্রে ঝাপিয়ে পড়ে। মাত্র ১০০ জনের মতো তীরে পৌঁছাঁতে পেরেছে। এইটা তো রীতিমতো সিনেমার গল্প। আমরা আজকে দিন বদলের সপ্ন দেখছি। আগামি সরকার কি আমাদের এইসব অভাগা মানুষগুলোর জন্য কাজের ব্যাবস্থা করবে? সরকারের দিকে না তাকিয়ে আমরা যদি নিজেদের জায়গায় নিজেদের দায়িত্তটা ভালভাবে করি ইনশাল্লাহ আমরা পারবো দেশটাকে বাচাঁতে। ওইভাবে আর কেউ বিদেশে পালিয়ে বাঁচতে যাবে না। আল্লাহ ওইসব অভাগা মানুষগুলোর মঙ্গল করুক এই কামনা করি।

প্রথম আলো

১,৪৮৯ বার দেখা হয়েছে

১৬ টি মন্তব্য : “একটা মন খারাপ করে দেয়া খবর”

  1. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    কতখানি ডেস্পারেট হলে মানুষ এত ঝুঁকি নিতে পারে...!!!
    ঐ লোকগুলোর কি দেশে কিছুই করার ছিল না???
    কারা ভাববে এদের নিয়ে?


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  2. তৌফিক (৯৬-০২)

    খবরটা দেখেছি। আমাদের এখানে বাংলাদেশ স্টুডেন্টস' এসোসিয়াশনের এক মজলিশে ইতালিতে যাবার সময় ভূমধ্যসাগরে হারিয়ে যাওয়া বাংলাদেশীদের নিয়ে একটা ডকুমেন্টারি দেখেছিলাম। তাও ঈদের দিনে। চোখের পানি অনেকেই সামলাতে পারেননি।

    জবাব দিন
  3. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    অসাধু এসব দালালরা কি সবসময়ই ধরাছোঁয়ার বাইরেই থেকে যাবে? 🙁 🙁
    ওই পরিবারগুলোর ক্ষতি কোনোমতেই পূরনীয় নয়। সরকার এই বিষয়টির দিকে গুরুত্ব নিয়ে দেখুক এটিই কাম্য।


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  4. সমবেদনা।
    ইদানীং আমাদের অনুভূতি গুলি যেনো অনেক বেশি ভোতা হয়ে গেছে। এই সব খবর আর কাঁদায় না এখন।

    সরকারের দিকে না তাকিয়ে আমরা যদি নিজেদের জায়গায় নিজেদের দায়িত্তটা ভালভাবে করি ইনশাল্লাহ আমরা পারবো দেশটাকে বাচাঁতে।

    একমত।

    জবাব দিন
  5. এদের বেশির ভাগই গ্রাম থেকে এসেছেন সহায় সম্বল বিক্রি করে বিদেশে গিয়ে একটু সচ্ছলতার মুখ দেখতে।
    আদম ব্যাপারীরা যা বোঝায়, তাই বুঝে রওনা দেয়া এই সহজ সরল মানুষ গুলো।
    আমার এক খালাতো ভাই এভাবে যেতে গিয়ে অল্পের জন্য ফিরে আসতে পেরেছে।
    পরে অবশ্য ঠিক মতই গিয়েছে সিঙ্গাপুরে, এখন ভালই আছে।

    জবাব দিন
  6. মান্নান (১৯৯৩-১৯৯৯)

    পরিবারের মুখে সামান্য দুমুঠো ভাত তুলে দিতে এরা নিজের জীবনের পরোয়া না করে অথই সাগর পাড়ি দেয়। অথচ এই আমরা চাইলে এই নির্ভীক লোকগুলোর পেশিকে নিজের দেশেই কাজে লাগাতে পারতাম।

    জবাব দিন
  7. তানভীর (৯৪-০০)

    আমি যখন খবরটা পেপারে দেখলাম, আমারও খুব মন খারাপ হয়ে গেল। এদের অধিকাংশই শেষ সম্বলটুকু বিক্রি করে দিয়ে ভাগ্য পরিবর্তনের আশায় দালালদের হাতে নিজের ভবিষ্যত ছেড়ে দেয়।

    সরকারের দিকে না তাকিয়ে আমরা যদি নিজেদের জায়গায় নিজেদের দায়িত্তটা ভালভাবে করি ইনশাল্লাহ আমরা পারবো দেশটাকে বাচাঁতে।

    একমত।

    জবাব দিন
  8. ফয়েজ (৮৭-৯৩)
    সরকারের দিকে না তাকিয়ে আমরা যদি নিজেদের জায়গায় নিজেদের দায়িত্তটা ভালভাবে করি ইনশাল্লাহ আমরা পারবো দেশটাকে বাচাঁতে।

    একদম মনের কথা বলেছ।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।