পুরুষ তুমি মানুষ হবে কবে

On Dress of Women 09.06.2013

কিছু তথাকথিত ‘পুরুষ’ মানুষ সামাজিক মাধ্যমে নারীর ছবি দেখলে ওড়না কিভাবে পড়া উচিত, মাথায় স্কার্ফ কিভাবে পড়তে হবে কিম্বা হিজাব পড়ার জন্য নারীদের ‘জ্ঞানদান’ শুরু করেন। ফেসবুকে আমার কন্যাসম এক তরুনীর একটি ছবিতে ওড়না নিয়ে এক ‘পুরুষ’-এর মন্তব্য পড়ে এতোটাই বিরক্ত ছিলাম যে মেয়েকে প্রশ্ন করলাম “তুমি প্রতিবাদ করলে না কেন?” জবাবে ও জানালো, লোকটি ওই রকমই। প্রতিবাদ করতে গেলে কথা বাড়ে। তাই সে উপেক্ষা করেছে।

তখন থেকেই ভাবনাটা আমাকে তাড়িয়ে নিতে থাকে, কোনো নারী বা নারীর ছবি দেখলেই এক শ্রেণীর ‘পুরুষ’-এর মাথায় পোষাকের ভাবনা আসে কেন? নারী তার শরীর ঢেকে রাখলেই কী নিরাপদ থাকে? কেন ৫ বা ১১ বছরের নারী শিশুরা ধর্ষনের শিকার হয়? সর্বশেষ ১৭ মাস বয়সী শিশুও ধর্ষিত হয়েছে বলে সংবাদপত্রে খবর বেরিয়েছে। ওই সব শিশুর কি ক্ষমতা তথাকথিত পুরুষের কামভাব থেকে নিজেদের রক্ষা করার? আকর্ষনীয় পোষাক বা শরীর কোনোটাই তো তাদের নেই!

ধর্ষন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তরুণদের নানা লেখা, মন্তব্য পড়ি। হতাশ হই, প্রায় সব জায়গায় নারীর পোষাককে একটা প্রধান ইস্যু তৈরি করা যায়। বেশ পড়াশুনা করা ‘শিক্ষিত’ অনেকেই এমন ভাবনা দ্বারা তাড়িত যে, নারীর পোষাক পুরুষকে ধর্ষন বা নির্যাতনে প্রলুব্ধ করে। বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে যেহেতু তারা এমন কথা বলেন, তাই আমাদের নারীর পোষাক কতোটা ‘পুরুষ উত্তেজক’ তা দেখা যেতে পারে। পোষাকের কথা বললেও প্রকৃতপক্ষে পোষাক নয়, পোষাকের আড়ালে বা পোষাক ভেদ করে নারীর শরীর কতোটা দেখা গেলে পুরুষ ধর্ষনের মতো উত্তেজনায় আক্রান্ত হন- ‘দুর্ভাগ্যজনক’ হলেও এমন কোনো মাপকাঠি আজো বের করা যায়নি! ‘উত্তেজক পোষাক’ পরিহিত কোনো নারীকে প্রকাশ্যে বা আড়ালে কোনো পুরুষ ধর্ষনে উদ্যত হয়েছে এমন কোনো খবরও আজ পর্যন্ত চোখে পড়েনি। ধর্ষনের ঘটনাগুলো পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, নারী কোথাও নিসঙ্গ থাকলে আক্রান্ত হন বেশি। বা ধর্ষনের জন্য শিশু বা নারীকে কোনোভাবে প্রলুব্ধ করে ধর্ষক পুরুষ বা পুরুষেরা এমন স্থানে নিয়ে যায় যেখানে সে এই জঘণ্য অপরাধটি বিনা বাধায় সম্ন্ন করতে পারে।

সব ধরণের পর্যবেক্ষনে নিশ্চিতভাবে দেখা যাবে, পোষাকের সঙ্গে ধর্ষনের কোনো সম্পর্ক নেই। বাংলাদেশের নারীদের দশমিক ১ শতাংশও কথিত ‘অশালীন’ পোষাক পড়েন না। এখানে অশালীন বলতে পশ্চিমী ধাচের পোষাকের কথা বলা হচ্ছে। যদিও শালীনতা বা অশালীনতার সংজ্ঞা পুরোটাই আপেক্ষিক, ব্যক্তির নিজস্ব ধ্যান-ধারণা নির্ভর। শিশুর কথা আগেই বলা হয়েছে, বোরখা পড়া নারীও ধর্ষন বা নির্যাতনের শিকার হন।

পোষাক যদি ধর্ষনের কারণ হতো, তাহলে বাংলাদেশে এ অপরাধ সবচেয়ে বেশি ঘটতো অভিজাত অধ্যুষিত এলাকায়। অথবা দেখা যেতো দেশ-বিদেশের সি বিচগুলো সবচেয়ে অরক্ষিত! কিন্তু এসব এলাকায় বা একেবারে ন্যুড বিচেও কেউ ধর্ষিত হন না বা কেউ সেখানে সেক্স করেন না। তাই পোষাকের অজুহাতটা একেবারেই বাজে, পুরো অগ্রহণযোগ্য। এর আড়ালে প্রকৃতপক্ষে নারীর পোষাক পড়ার স্বাধীনতার ওপর ‘পুরুষ’ তার সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিতে চাইছে। সমস্যাটা নারীর পোষাকের নয়, পুরুষের দৃস্টিভঙ্গীর। পুরুষ যতোদিন মানুষ না হবে, নিজেকে মানুষ না ভাববে- ততোদিন সে তার শরীর সম্পর্কিত যাবতীয় অপরাধের দায় নানা অজুহাতে নারীর উপর চাপাতেই থাকবে।

[ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস থেকে ব্লগটির জন্ম। স্ট্যাটাসটি পড়ে নারীবাদী ব্লগ “ঠোটকাটা” এ সম্পর্কিত একটু বিস্তৃত ব্লগ চায়। তখন মনে হলো আমাদের নিজেদের ব্লগে কতোদিন লিখি না! মনে পড়লো একসময় জিহাদ এভাবে তাগিদ দিতো, ভাইয়া একটা লেখেন না! এখন তারও কিছু দেখি না পড়ি না!! ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত]

১,৬৪৪ বার দেখা হয়েছে

১১ টি মন্তব্য : “পুরুষ তুমি মানুষ হবে কবে”

  1. ওবায়দুল্লাহ (১৯৮৮-১৯৯৪)

    লাবলু ভাই,
    অনেক দিন পর আপনার লেখা।
    আর বিষয় নির্বাচন সমসাময়িক প্রেক্ষাপট হওয়ায় প্রাপ্তিটুকু বেশী হলো আমাদের।

    আমার মেয়ের বয়স এখন ২ বছর ৩ মাস। সে নিজেও জানে না যে পরিবেশে সে বড় হচ্ছে তাতে - প্রতিনিয়ত বহু নরপিশাচ ঘুরে বেড়াচ্ছে দম্ভ ভরে।
    আজ সত্যি জানতে ইচ্ছে হয় - "পুরুষ তুই মানুষ কবে হবি?"
    নারীর পোষাক নয় বরং পাশবিক কামনার চোখে ঠুলি পড়ানোর পালা পুরুষের।
    ধন্যবাদ আপনাকে।

    ::salute:: (সম্পাদিত)


    সৈয়দ সাফী

    জবাব দিন
  2. আমাদের মধ্যে একটা ভুল ধারণ আছে বলে মনে করি। তা হল, যদি কোন নারী ধর্ষন বা অন্য কোন অবমাননয়ার শিকার হন, শুধু তাকেই বা তার পোষাককেই পুরুষের কামনা উস্কে দেওয়ার জন্য দায়ী করা হয়। আগেই বলেছি, ধারণাটা সম্পূর্ণ ভুল। আমাদের বরং সামগ্রিকভাবে চিন্তা করতে হবে। আমি বলব, যিনি ভিক্টিম তিনি নন, বরং চলমান মিডিয়ায় নারীর উপস্থাপনই এর জন্য দায়ী। মিডিয়া নারীকে কীভাবে উপস্থাপন করছে, আর ব্যাপারটা কোন দিকে যাচ্ছে তা আর নাই বললাম। কথা হল, এই মিডিয়াই পুরুষের কামনাকে(এটাকেই আমি বলব উল্লিখিত মগজের আবর্জনা) উস্কে দিচ্ছে। আর এর শিকার হচ্ছে পুরুষটির কাছে যারা ভালনারেবল তারা। যদিও তার নিজস্ব শালীনতার কোন ঘাটতি ছিল না। মিডিয়ার এই ব্যাপারটা নিয়ে আমাদের চিন্তা করা উচিত বলে মনে করি। তবে বর্তমান অবস্থার পরিবর্তন খুব সহজ হবে বলে মনে হয় না। কারণ এর সাথে বর্তমান বিশ্বে কর্তৃত্বশীল পুঁজিবাদী অর্থনীতির বিশাল স্বার্থ জড়িত।

    তবে এর পরের কথাটা বলব, নারী যে অবস্থাতেই থাকুক না কেন, ধর্ষন বা অন্য যেকোন ভাবে নারীকে হ্যারাস করাটা অবশ্যই অপরাধ। বড় ধরণের অপরাধ। কেউ কোনভাবে এর প্রতি সমর্থন জানালে কড়া প্রতিবাদ করা উচিত।

    জবাব দিন
  3. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    জানি না কমেন্টটা একটু সেকেলে হয়ে যাবে কিনা...

    না সানা ভাই পুরুষ কখনো, কোনদিনই মানুষ হতে পারবে না।

    ভগবানের ব্যাপারটা জানেন অবশ্যই।
    অন্যদের জন্য বলছি।
    ভগবান ইন্দ্র কোন এক মুণির স্ত্রীর সাথে সঙ্গম করতে ইচ্ছা করলো। খুব সম্ভবত মুণির রূপ ধরেই সে মুণি পত্নীর সাথে আকাম টা করে নিলো। কিন্তু মুণি বইলা কথা। ইন্দ্ররে শাপ দিলেন, তাও আবার যেই সেই শাপ না, ইন্দ্রের সারা শরীর ভগ দিয়া ভর্তি হইয়া গেলো।
    ভগবান ও পুরুষ আর আমরা ও পুরুষ। কবে কোন কশ্যপ মুণির শাপ না আইসা পড়ে তাই প্রি কশান হিসাবে আগেই পুরুষেরা দুপায়ের চিপার পাশাপাশি মাথায় ও আরেকটি অলটাইম উত্থিত শিশ্ন নিয়া জন্মায়।
    সো পুরুষ চাইলে ভগবান হইতে পারবে কিন্তু মানুষ না।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন
  4. সামিয়া (৯৯-০৫)

    গতকাল ফেসবুকে ঢুকে হোম পেইজের একদম প্রথম খবরটাই ছিল, মিশরে একজন নারীকে গ্যাং রেপ করা হয়েছে। সারাটাদিন প্রচন্ড খারাপ গেল, অস্বস্তি হচ্ছিল। আজকে হোম্পেইজের একদম প্রথম খবর, ইরাকের একজন নারীকে গ্যাংরেপ। চারিদিকে অহরহ ধর্ষণের ঘটনা ঘটলেও এখনও 'খবর'টাতে 'ইউজটু' হতে পারি নাই। বমি পাচ্ছে।
    মাঝে মাঝে মনে হয় অসুস্থ একটা সমাজে আছি। প্রচন্ড অসুস্থ।

    জবাব দিন
  5. শিবলী (১৯৯৮-২০০৪)

    অনেক সময়ই আমার মনে হয় এই সব সংবাদ যতটা না সংবাদ প্রচারের জন্য প্রচারিত হয়, তার থেকে বেশি প্রচার করা হয় একটা মেয়েকে ব্যবহার করে প্রচার মাধ্যমটার প্রচারের জন্য

    জবাব দিন
  6. শেখ আলীমুজ্জামান (১৯৭০-৭৬)

    পুরুষ তুমি মানুষ হবে কবে- অনেক দিন পরে কলম ধরে, একজন পুরুষ হয়েও এ রকম ঢালাও ভাবে পুরুষ নিন্দার প্রতিবাদ জানাই। (কাফফারা দেবার জন্য) কবে ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে কবে ডাকছো জানাও (বর্তমানে দেশে আছি)। নগ্নতা বনাম যৌনতা-নিয়ে কিছু প্যাঁচাল ও পাড়া যেতে পারে। নগর ভোটের পর চারদিক কেমন সুনসান!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।