দালান আসছে, মানুষ পালাও

একটা একটা করে দালান উঠেছে মেঘ ছুঁয়ে ছুঁয়ে
আর হারিয়ে গেছে আমার আকাশ দেখার স্বপ্ন

আমার বিশাল নীল আকাশটা ছোট হতে হতে
এখন আর দেখাই যায় না প্রায়,এক টুকরো আকাশ
উচুঁ দালান ঘেরা এক টুকরো আকাশ দেখি
পাখি দেখি না।

সাদা-কালো মেঘগুলো পালিয়ে গেছে উদ্ধত দালান দেখে
এখন বৃষ্টি হয় না, আকাশ থেকে মাঝে মাঝে এসিড ঝড়ে।

আমার সন্ধ্যা-রাতের চাঁদটা থাকে অনেক দূরে
নিয়ন আলোয় কি আর চাঁদের দেখা মেলে!

গাছগাছালি- পাখপাখালি জলদি পালাও,

শরত-হেম পালিয়ে গেছে গোপনে, আষাঢ়ে গল্পের মতোই বর্ষার বৃষ্টি
শ্রাবণ আসেনা কতোদিন কাজল কালো চোখে।

সামনের গ্রীষ্মে হাটু পানির নদীটা ভরাট করার আগেই
আমার আধমরা নদীগুলো, আমার শুকনো নালাগুলো
-যদি পার দূরে পালাও, জলদি পালাও ।

কবিরা দ্রুত চলে যাও অন্য কোথাও।

নগর আসছে, দালান আসছে, যন্ত্র আসছে
ধ্বংস আসছে, মানুষ পালাও!!

৪৪৪ বার দেখা হয়েছে

১২ টি মন্তব্য : “দালান আসছে, মানুষ পালাও”

  1. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    তোমার লেখা পড়ে মুগ্ধতা বাড়ছে।
    ভালো লাগছে ভাষায় তোমার দখল বাড়ছে দেখে...

    কথা কমিয়ে আনো,
    দেখবে আরো টানটান আরো মেদহীন ছিপছিপে হয়ে উঠবে তোমার কবিতা...

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।