অর্থহীন

সবই আছে, তবু যেন কিছুই নেই।
চারিদিকে শুধু নেই নেই, কিছু নেই।
আছে শুধু শূন্যতা, দিবসে নিশীথে,
গৃহকোণে, শয্যায়, লেখার টেবিলে
অলিন্দে, ছাদে, মনের ঘুলঘুলিতে।
এসব শুন্যতার কারণ জানা নেই।

এ কেমন শুন্যতা, যখন সবকিছু
এমন অর্থহীন হয়ে যায়!
যাপিত জীবনটা থেকে রঙিন স্মৃতি
বাসি ফুলের পাঁপড়ির মত ঝরে যায়।
জ্যোৎস্নালোকে নিভৃত স্নান, মাঝরাতে
পিয়ানোর ঝঙ্কার, হঠাৎ গেয়ে ওঠা
কোন কোকিলের গান, সবকিছু কেমন
অর্থহীন মনে হয়। রঙিন প্রজাপতির
ফুলে ফুলে বসা, নদীর বয়ে যাওয়া,
এক কথায় সবই অর্থহীন মনে হয়।

জমাটি মেঘ থেকে বৃষ্টি ঝরে অবিরাম;
কে জানে হয়তো এই ঝরাটাও অর্থহীন…

ঢাকা
১৩ অগাস্ট ২০১৫
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।

৯৩৫ বার দেখা হয়েছে

৪ টি মন্তব্য : “অর্থহীন”

  1. মোস্তফা (১৯৮০-১৯৮৬)

    মনে হয় এ এক অনিবার্য অনুভূতি, ক্ষণিক চেনা চেনা লাগে, তবু অনেক অচেনা।

    হৃদয়ের মাঝে এক বোধ জন্ম লয়;
    আমি তারে পারি না এড়াতে,
    সে আমার হাত রাখে হাতে;
    সব কাজ তুচ্ছ হয়- পণ্ড মনে হয়,
    সব চিন্তা-প্রার্থনার সকল সময়
    শূন্য মনে হয়,
    শূন্য মনে হয়।


    দেখেছি সবুজ পাতা অঘ্রানের অন্ধকারে হতেছে হলুদ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।