আরে আমরা আমরাই তো ………

(আজকাল দেখি সিসিবিত সবাই অন্য কার নামে লেখা উৎসর্গ করে। এইসব দেখে আমারো মন চায় সবার নামে একটা লেখা উৎসর্গ করি কিন্তু এত লেখা বাহির করার মত এলেম আমার নাই তাই চামে দিয়া এই পোষ্ট খান সিসিবির সিনিয়র জুনিয়র সবাইকে উৎসর্গ করলাম)
০১।
আমরা ছিলাম তিন জন। আমি, জাহিদ আর কৌশিক। কি বলা যেত আমাদের, থ্রী মাস্কেটীয়ার্স? যে যাই বলুক কলেজে আমরা কিন্তু আমাদের এই টাইপ একটা কিছু ভাবতাম। অল ফর ওয়ান, ওয়ান ফর অল। অন্য কেও আমাদের বিরুদ্ধে কিছু বললে একাট্টা। হাসান তো সবসময় বলত – এইগুলার এক্টার বিরুদ্ধে কিছু বললে দেখি সমস্যা, বাকী দুইটা তাইড়া আসে। বাকীদের জন্য এইরকমই ছিলাম আমারা।
০২।
কলেজে সবাই যে রকম ভাবে ঠিক সেই রকম কিন্তু ছিল না আমাদের শুরুটা। জাহিদ হইল লম্বা উঁচা দানব যে একবার কিছু বুঝছে তো বুঝছে, কৌশিক হইল মারামারি করতে সর্বদা প্রস্তুত, আর আমি যার কিনা মেজাজ দিনের ১৬ ঘণ্টাই হট থাকে। তাইলে বুঝেন এই টাইপ তিনটা লোক একসাথে থাকলে কি হইতে পারে? হইছিলও তাই।
জাহিদ কে ক্লাস এইটে যখন আমার রুমে ফেলা হল তখন জাহিদের সরল স্বীকারোক্তি ছিল রাশেদের মত এইরকম একটা গোয়ারের সাথে ছয় মাস থাকা তার পক্ষে অসম্ভব। কিন্তু ভাগ্যের কি র্নিমম পরিহাস দেখেন এই ছেলেকেই পরে আমার সাথে প্রায় চার বছর রূমমেট থাকতে হইল। আর জাহিদ ছেলেটা কে আমার রূমমেট বানানোতে যে আমি যে খুব একটা খুশি হইছিলাম তা বলা যাবে না। কিন্তু দেখেন আবার কি খেলা, কলেজের শেষে আমিই আবার বলছিলাম জাহিদ যদি আমার রুমমেট থাকে তাইলে আর যে কেও আমার রূমমেট থাকলে আমার কিছু আসে যায় না।
আর কৌশিক ছেলেটার সাথে আমার ভাল করে পরিচয় মারামারি করেই। আমরা দুই জন যে দুই জনকে ক্লাস সেভেন এইটে একটুও সহ্য করতে পারতাম তার নমুনা ভুড়িভুড়ি। আমার হিসেবে এই ছেলে মারামারির সময় আমার খাকীর বোতাম বা এপুলেট এর লুপ ছিড়ছে কম করে হলেও তিন বার। আর অন্য ড্রেস এর ক্ষেত্রে তো আছেই। তবে আমিও যে কৌশিকের বোতাম এর থেকে কম ছিড়ছি তাও কিন্তু না। কিন্তু আল্লার দুনিয়ায় কি অদ্ভূত লীলা খেলা মারামারি করতে করতেই একদিন ক্লাস নাইনের একটা সময় টের পাইলাম এই ছেলটারে আমি ভালা পাই।
তারপর? তারপরও আমাদের মারামারি কিন্তু একটুও কমে নাই। কিন্তু দেখেন ব্যাপার খানা এই পোলা দুইটারে আমি এখনো প্রায় প্রতিদিন কেমনে কেমনে জানি মনে কইরা ফেলাই।
০৩।
ক্যান্ডিডেটস টাইমে যখন আমরা প্রথম তিন জন একসাথে রূমমেট হইলাম সেই থেকে শুরু, আমরা তিন জন কিন্তু একটা অন্যটারে কম জ্বালাই নাই। ঘুম প্রিয় জাহিদের সম্ভবত এমন খুব কম রেষ্ট আওয়ার আছে যেইটা সে আমার বা কৌশিকের যন্ত্রণা এড়ায়ে শান্তি মত ঘুমাতে পারছে। কৌশিকের সাপ্তাহে এমন খুব কম দিন গেছে যেই দিনে অন্তত একবার আমি আর জাহিদ এক হয়ে পোলাটারে ক্ষেপানোর শেষ সীমায় নিয়ে যাই নাই। আর আমার পিছনে যে এই দুইটা এক জোট হয়ে ক্ষেপানোর জন্য লাগে নাই তাও বা অস্বীকার করি কেমনে?
তারপরেও এই ছেলে দুইটার মধ্যে অন্য কিছু একটা ছিল। সারাদিন পোলা দুইটারে আউল ফাউল জ্বালায়ে মেজাজ গরম করে রাখার পরও যখন রাতে লাইটস অফ এর পর বলতার দোস্তরা স্যরি, মাইন্ড করছস নাকি। তখন পোলা দুইটা খালি হাইসা কইত আরে মাইন্ড করি নাই, আমরা আমরাই তো। খালি মনে করে কালকে এমন কিছু করিস না।

কিন্তু তারপরেও পরেরদিন আমি একি ভাবে জ্বালাতাম। কারন আমি জানি এইখানে তো আমরা আমরাই।

০৪।
সিসিবিতে আমি প্রায় নতুন একজন লোক। চার পাচ জন ছাড়া কাওকেই আর সামনা সামনি দেখা হয় নাই। বাংলা ব্লগ জগতটার সাথেও আমার পরিচয় মাত্র কয়েক মাসের। তাই সব খানের সব রীতি নীতি আমি ভাল ভাবে বুঝে উঠতে পারি নাই। কিন্তু নতুন হইলেও এইটা বুঝছি সিসিবিতে যে গুমোট বাতাস বইছে তা কার জন্যই ভাল ফল আনবে না।
এইখানে নানা মতের নানা রকম ক্যাডেট আছেন। সব বিষয়ে তাদের একমত হওয়া সম্ভব না তাই যুক্তি চলবে তর্ক চলবে কিন্তু আমাদের একটা খেয়াল রাখতে হবে যাতে আমরা তর্কটাকে ব্যক্তিগত পর্যায়ে নিয়ে না যাই। কারন তাইলেই বিপদ। খেয়াল রাখতে হবে এইখানে all for one, one for all.
সব শেষে কলেজের দুই বন্ধুকে যেভাবে বলতাম সেইভাবেই সিসিবির সবাইকে খালি বলি- আরে ম্যান, মাইন্ড করার কি আছে সব তো আমরা আমরাই।

৫,২৪৮ বার দেখা হয়েছে

৭৪ টি মন্তব্য : “আরে আমরা আমরাই তো ………”

  1. রাব্বি (১৯৯৮-২০০৪)

    ছুট ভাই, বড় ভাই সুনেন সারাদিন নানা কাম কাজ এর মাঝে এই CCB তে আইসা হারান দিন গুলা পাই। CCB তে আমারা আমারাইতো তাইলে এই সব বাতাস বুতাস দিয়া কি দরকার ?? :hug: :hug:

    জবাব দিন
  2. লেখাটা 'দিল চাহ্‌তা হ্যায়'-এর কথা মনে করিয়ে দিলো। চমৎকার লাগল। অনেক প্রাণবন্ত। আমাদের সমস্ত সম্পর্কের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্কটাই মনে হয় সবচেয়ে পবিত্র। আর, দশজন 'জাস্ট' বন্ধুর চেয়ে একজন 'ভাল' বন্ধু থাকা অনেক সৌভাগ্যের বলে মনে হয় আমার কাছে। লেখার মূল মেসেজটা ভাল লাগল। বলার ধরণটা দারুণ।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।