নির্বাসনের কবিতা

১.
তেতুল বনে উঠবে জোছনা
তিতলী তুমি থাকবে কি?
মধ্য রাতে দূরের পথে হাতটি ধরে হাঁটবে কি?
নিঃসীম রাতের নিরবতায় একটি কথা বলবে কি?
ছন্নছাড়া বিষন্নতায় মনের সাথে চলবে কি?

জোছনা থাকে মুখ লুকিয়ে চাঁদের চোখে দেখো
তিতলী তুমি অন্য আকাশ,
আমায় পাশে রেখো

২.
মানবী তোমার মুখে ঢেলে দেব বিষ
মানবী ঈশারায় দাও যদি শিস
মানবী তোমার খুনে রাঙাবো এ হাত
মানবী তোমার মনে হোক বজ্রপাত
মানবী তোমাকে চাওয়া সুবিশাল পাপ
মানবী তোমাকে তাই দেই অভিশাপ
মানবী হবেনা সুখী,কেঁদে যাবে বেলা
মানবী আমাকে যদি করো অবহেলা
মানবী তোমার মন ভেঙে যাক ঝরে
আশ্রয় খুঁজবে তখন আমার ই ঘরে. . . . . .

3.

বেঁচে আছি
ভালো আছি
মৃত্যুর কাছাকাছি. . . .

4.
সব অধিকার তুলে নিলে একটি অধিকার থাকে
ভালোবাসার
সব আয়োজন শেষ হলেও একটি আয়োজন থাকে
ভুলে যাবার

তখন আমাদের ভুলে যাওয়া গানের সুর কেটে গেলে
একটি বিন্দু বড় হয় সিন্ধু সম মমতায়
অতঃপর একটি শরত আসে,
তোমাকে ভুলবার অজস্র ক্ষমতায়
একটি রাত হয় দীর্ঘ,
আরো দীর্ঘ ইনসমনিয়া করে গ্রাস
আমাদের ভালোবাসা তখন শুধুই
প্রাগৈতিহাসিক ইতিহাস. . . .

৫৩৪ বার দেখা হয়েছে

৩ টি মন্তব্য : “নির্বাসনের কবিতা”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।