টুকরো স্মৃতি-১

দেখতে দেখতে কখন যে ছয়টি বছর কেটে গেল ঠিক যেন বুঝে উঠতে পারলাম না।গত পাঁচ জুন যখন শেষ ডিনার করলাম তখন ভাবতেও কষ্ট হচ্ছিল ক্যাডেট লাইফের এটা শুধু শেষ ডিনারই নয় সব ক্যাডেটদের সাথে এটাই শেষ কোন কার্যক্রম।টেবিল লীডার ছিলাম বলে টেবিলমেট দের সাথে সখ্যতাও বেশ জোরালো ভাবেই গড়ে উঠেছিল।যতই ক্যাডেট থেকে বের হবার দিন ঘনিয়ে এল ততই স্মৃতির পাল্লা ভারি হতে লাগল।কিছু টুকরো টুকরো স্মৃতি আজ স্মরন না করে পারছিনা।
ঘটনা১#
একুশে ফেব্রুয়ারী কলেজ অডিটরিয়ামে জনৈক বাংলা স্যার ভাষন দিচ্ছেন।এক পর্যায়ে বললেন ‘যে সকল ভাষা শহীদ মারা গেছেন আমরা তাদের জন্যেতো দোয়া করবোই,যে সকল ভাষা শহীদ জীবিত আছেন আমরা তাদের জন্যেও দোয়া করব।’
সাথে সাথে সবাই হেসে ওঠায় স্যার বুঝতে পেরেছিলেন তিনি ভাষা সৈনিকের বদলে ভাষা শহীদ ব্যবহার করেছেন।
ঘটনা২#সিনিয়রের শরীরে টাচ লাগলে সরি বলা ক্যাডেট কলেজের একটা ফরজ।এবং টাচ লাগলে সাবধান হয়ে সরি ভাইয়া বলতে হবে।নতুন ক্লাশ সেভেন টেবিলে আসছে।টী ব্রেক টাইমে আমার পাশে বসা জুনিয়র হঠাত্‍ বলল ‘সরি ভাইয়া।অবাক হয়ে বললাম অই সরি বলছ ক্যান?উত্তর দিল ‘ভাইয়া জগ সরাইতে গিয়ে আপনার কলায় টাচ লাগছে….
টী ব্রেক টাইমে খাওয়ার জন্যে যে কলা দেয়া হয় সেই কলা
ঘটনা ৩#cricket competition এর সময় জনৈক বিঞ্গ স্যার আম্পায়ার এর দায়িত্বে।ব্যাটসম্যানকে অন্য হাউসের ক্যাডেটরা উত্যক্ত করায় ব্যাটসম্যান বলতেছে ‘স্যার স্লেজিং করতেছে’।স্যার কিছু না বুঝেই বললেন ‘হ্যাঁ গতরাতে বৃষ্টি হয়েছে স্লেজিং তো একটু হবেই. . . . .:-D
এম্নি আরো হাজারো ঘটনা আছে যা পরবর্তী লেখায় প্রকাশ করা হবে।ধন্যবাদ।

৪,০৭৫ বার দেখা হয়েছে

৩৬ টি মন্তব্য : “টুকরো স্মৃতি-১”

  1. মো. তারিক মাহমুদ (২০০১-০৭)

    welcome to the x-cadet fraternity ...

    ‘যে সকল ভাষা শহীদ মারা গেছেন আমরা তাদের জন্যেতো দোয়া করবোই,যে সকল ভাষা শহীদ জীবিত আছেন আমরা তাদের জন্যেও দোয়া করব।’

    এই কাহিনীর সময় আমরাও কলেজে ছিলাম মনে হয় ... 🙂

    জবাব দিন
  2. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    একেবারে ফ্রেস এক্স ক্যাডেট দেখা যায়, তাও আবার বরিশালের... ব্লগে স্বাগতম। হাত পা সব খুলে লেখতে থাক।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  3. রাব্বী আহমেদ (২০০৫-২০১১)

    তারিক ভাই,ভাষা শহীদের কাহিনীটা গত বছর ঘটে।আমাদের শ্রদ্ধেয় জাকির স্যার এর কাজ।ক্যাডেট কলেজ ব্লগে এটাই প্রথম লেখা।রেসপন্স পেয়ে অনেক ভাল লাগল।ধন্যবাদ।

    জবাব দিন
  4. মুন্তাসীর আর রাহী (২০০৪-২০১০)

    নামের পাশে সাল লাগাও।
    ক্যাডেট কলেজ ব্লগ এ স্বাগতম।
    সিসিবি-এর সাথে থাকো, সবসময়............


    রক্তিম প্রসাদ প্রাচীরে বন্দি সবুজ মায়া
    এরি মাঝে খুজে ফিরি নিজের অচেনা ছায়া..

    জবাব দিন
  5. রুম্মান (১৯৯৩-৯৯)

    কলেজ থিক্কা বাইর হইয়াই নীল গোলাপের ফুডু লাগাইয়া সি সি বি তে হাজির । সাব্বাস ব্যাটা , বি সি সি বইলা কথা (কিঞ্চিত সাম্প্রদায়িক) । যাউজ্ঞা, লেখা ভাল হইছে । ক্যারি অন । আর নামের পার্শ্বে সাল লাগাও ।


    আমার কি সমস্ত কিছুই হলো ভুল
    ভুল কথা, ভুল সম্মোধন
    ভুল পথ, ভুল বাড়ি, ভুল ঘোরাফেরা
    সারাটা জীবন ভুল চিঠি লেখা হলো শুধু,
    ভুল দরজায় হলো ব্যর্থ করাঘাত
    আমার কেবল হলো সমস্ত জীবন শুধু ভুল বই পড়া ।

    জবাব দিন
  6. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)

    সাবাস বেটা ভাল ছিল। :clap: :clap: :clap:


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন
  7. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    ভাবতেছি সেভেন এ থাকতে কতই সরল-সোজা ছিলাম।
    সবাই তো তাই থাকে।
    আহারে!!!
    ঐ ব্যাটা দৃশ্যমান :frontroll: দে।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।