পত্র নয়, পদ্য

বুকটা যখন কোন কারণে ভারী হয়ে ওঠে,
পাখিরা তখন এসে আমায় গান শুনিয়ে যায়।
ভালো লাগে পাখিদের কণ্ঠ, বর্ণ, চলাফেরা।

কারো সযত্ন অবহেলা যখন বুকে বেজে ওঠে,
চোখের পাতা দুটো তখন ভারী হয়ে আসে।
আমি ঘুমিয়ে পড়ি। পরে সব ঠিক হয়ে যায়।

স্বপ্নেরা খেলা করে আমায় নিয়ে, শিশুদের মত
কখনো হাসায়, কখনো কাঁদায়। আমি বালিশকে
আঁকড়ে ধরে একটা অবলম্বন খুঁজে যেতে থাকি।

কোন গানের চরণ শুনে যদি স্মৃতি মনে ভাসে,
আমি একটা পত্র লিখতে বসে যাই, আপন মনে।
কিছুটা লেখার পর দেখি, এটা পত্র নয়, পদ্য।

ঢাকা
২৫ জানুয়ারী ২০১৬
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।

৩,৮২৮ বার দেখা হয়েছে

৯ টি মন্তব্য : “পত্র নয়, পদ্য”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।