তোমার চোখ

চঞ্চলা চপলা তুমি কখনো ছিলেনা,
সেও ছিলনা কোন ডানপিটে ডাকু।
তোমার টানা চোখ দুটোকে কখনো
ডাগর আঁখি বলে তার ভ্রম হয়নি।
পটলচেরা চোখও ভাবেনি কখনো।
তারপরও তার খুব, খুবই প্রিয় ছিল,
তোমার ঐ কাজল টানা চোখ দুটো।
সন্তরণপ্রিয় ডুবুরীর মত অবলীলায়
সে তোমার চোখের গহীনে কি যেন
খুঁজে বেড়াতো, ডুবসাঁতার দিয়ে
যখন তখন। আর ভাবতো, ওখানেই
যেন লুকিয়ে আছে পৃথিবীর যত মায়া,
ঘন কালো মেঘ, আর প্রেমের প্লাবন,
শীতের রোদ্দুর আর গোধুলির ছায়া।

ঢাকা
০৬ জুলাই ২০১৫
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।

১,৬১৬ বার দেখা হয়েছে

১৮ টি মন্তব্য : “তোমার চোখ”

  1. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    এই জায়গাটা হৃদয় ছুঁয়ে গেল:
    "ওখানেই
    যেন লুকিয়ে আছে পৃথিবীর যত মায়া,
    ঘন কালো মেঘ, আর প্রেমের প্লাবন,
    শীতের রোদ্দুর আর গোধুলির ছায়া"

    মনে হল যেন পড়ছি না, সবটুকুই দেখতে পাচ্ছি......


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
      • পারভেজ (৭৮-৮৪)

        খায়রুল ভাই, আমাকে কবি বললে আসলে বেশ লজ্জাই পাই।
        আমার ধারনা, যত যা লিখালিখির চেষ্টা করি, তার মধ্যে আমার ধারনা, আমার কবিতা লিখার প্রচেষ্টাগুলাই হয় সবচেয়ে দুর্বল।
        আর সেই দুর্বলতা ঢাকতে চেষ্টা করি, কবিতার মধ্যেও একটা গল্প ফুটিয়ে তুলতে যেন পাঠক গল্পটা নিয়ে ব্যাস্ত থাকেন, কবিতার দোষ-ত্রুটিতে চোখ না পড়ে।
        বুঝি, এটা এক ধরনের ছলনা, তবুও তা না করে উপায় কি?
        কারনও একটা আছে।
        কবিতায় যেহেতু বুঝি দুর্বলতা সবচেয়ে বেশী, তাই মনের আনন্দে লিখে যাই, যখন যা মনে আসে তাই।
        প্রবন্ধ বা গল্প লিখার সময় সেই স্বাধীনতা থাকে না।
        বুঝি পাঠকের জাজমেন্টের ছুরির তলায় পড়তে হবে।
        তাই সতর্ক না থেকে উপায় থাকে না।
        আবার এটাও ঠিক লজ্জা পেলেও, কেউ যখন কবি বলেন (এই যেমন এখন আপনি বললেন), কোথা থেকে যেন একরাশ ভাল লাগা এসে ঘিরে ধরে।
        আমাকে নত করে দেয়। নম্রতায়।
        অনেক ধন্যবাদ আপনাকে...


        Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

        জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।