স্বপ্নমাখা নকশীকাঁথা

গায়ে জড়ানো নকশী কাঁথাটার বুননে
কতগুলো স্বপ্ন জড়িয়ে আছে কে জানে!
কতগুলো আঙুলের দু’পিঠ আর তালুর
স্পর্শ আছে সেলাই এর প্রতিটি লাইনে।

কাঁথা মুড়ে শুয়ে যে কবি একান্ত নিভৃতে
মনে মনে রূপরেখা এঁকে চলে কবিতার,
আর দরদী আঙুলের নরম ছোঁয়া যার
কাব্যময় করে তোলে নকশী কাঁথাটাকে,
তারা উভয়ে কিছু কিছু স্বপ্ন দেখে থাকে।
সেসব লুকিয়ে থাকে কাঁথার ভাঁজে ভাঁজে।

সমান্তরাল সেলাই এর ছকে বাঁধা স্বপ্নেরা
আপন আপন পথ ধরে বড় হতে থাকে।
কাঁথাটা যে বুনে, তার স্বপ্ন বাণিজ্যিক।
আর যে গায়ে দেয়, তার স্বপ্ন কাল্পনিক।
অবশেষে পাখীর পালকের মতই তাদের
সব স্বপ্ন ঝরে পড়ে মাটিতে একে একে।

 

ঢাকা
২০ এপ্রিল ২০১৫
স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।

১,০৩৮ বার দেখা হয়েছে

১০ টি মন্তব্য : “স্বপ্নমাখা নকশীকাঁথা”

  1. সাইদুল (৭৬-৮২)

    কাঁথা মুড়ে শুয়ে যে কবি একান্ত নিভৃতে
    মনে মনে রূপরেখা এঁকে চলে কবিতার,
    আর দরদী আঙুলের নরম ছোঁয়া যার
    কাব্যময় করে তোলে নকশী কাঁথাটাকে,
    তারা উভয়ে কিছু কিছু স্বপ্ন দেখে থাকে।
    সেসব লুকিয়ে থাকে কাঁথার ভাঁজে ভাঁজে।

    সবচেয়ে ভালো লাগলো এই স্তবকটি। খুবই সুন্দর


    যে কথা কখনও বাজেনা হৃদয়ে গান হয়ে কোন, সে কথা ব্যর্থ , ম্লান

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।