ভালোবাসার গান

হাইসা হাইসা আইসা তুমি আমার ভাঙ্গা নায়ে,
বইলা পাশে হাইসা হাইসা কুনুদিক না তাকায়ে।
ভাইবা আকুল তার লাইগ্যা কি দিবাম তোমারে,
আসমান পানে চাইয়া রইলাম, ডাকলাম আল্লারে,
আল্লাহ কইলো দিয়া দিতে আমার কইলজাডারে!

নায়ের তলায় ফুডা একটা ছিল বডডো মস্ত,
তুমি আইসা নায়ে বইসা দিয়া তোমার হস্ত,
চাইপা ধরলা ফুডাটারে শাড়ীর আঁচল দিয়া,
মুক্তমনে বাইলাম আমি বাউল গান গাইয়া।
সারাটা দিন কাইট্যা গেল খিলি পান খাইয়া।

ঘাটে ঘাটে কিনলাম তোমার চুড়ি আর শাড়ী,
কইলাম তোমায় পিন্দ্যা দ্যাহ ওগো হুর ফরী।
তুমি কইলা গাইতে আমায় মরমী যত্তো গান,
গান শুইনা জুড়াই গেল মোদের অন্তর পরান।
ভাতের চিন্তা করলাম নাতো, এতডাই অজ্ঞান!

 

পাদটীকাঃ কবিতাটা এর আগে ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিলো।

 

ঢাকা
১০ অক্টোবর ২০১৪
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।

১,৩৪৬ বার দেখা হয়েছে

১৪ টি মন্তব্য : “ভালোবাসার গান”

    • খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

      নূপুর, তোমার মত এ কবিতাটায় সুর বসানোর কথা এর আগেও আমাকে অনেকে বলেছেন। কিন্তু আমি তো সুরহীন, তাই অপেক্ষায় রইলাম, যদি কোনদিন কোন সুরকারের নজরে পড়ে এ কবিতাটা। তবেই হয়তো এটা একদিন গান হয়ে উঠবে।
      মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ। (সম্পাদিত)

      জবাব দিন
  1. সারা জীবনেও এরকম ভাষায় লেখা কোন অসাধারণ লেখা পড়িনি। খুব খুব ভাল লেগেছে। কিছু কিছু জায়গাতো ছিল খুবই অসামান্য এ্ই যেমন
    "আসমান পানে চাইয়া রইলাম, ডাকলাম আল্লারে,
    আল্লাহ কইলো দিয়া দিতে আমার কইলজাডারে"

    ফাটাফাটি।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।