একটি জনপ্রিয় গানের বিস্মৃত প্রায় রুপান্তর

কৈশোর নামক একটি রহস্যময় সময়ে ক্যাডেট কলেজে পদার্পন। কলেজে ঢুকে নিয়ম কানুনের প্রাথমিক ধাক্কা সামলে উঠে কৈশোরের শারিরীক পরিবর্তন গুলো যখন অনুভব করতে লাগলাম তখন হঠাত করেই খেয়াল করলাম আমাদের এক বন্ধুর ‘কপোল’ যেন পলিমাটির চরের মতোই উর্বর। আমাদের গাল যখন হালকা ‘তৃণরাজি’ তে আচ্ছাদিত তখন তার গালে যেন বাম্পার ফলন! এছাড়া নানান “মানবিক সম্পর্কের” বিষয়ে তার অগাধ জ্ঞান। শীঘ্রই বন্ধু মহলে সে পিতৃপ্রদত্ত নামের বদলে ‘চাচা’ নামে খ্যাত হয়ে উঠলো।
চিত্রগীতি আর তারকাজগতের কল্যাণে মান্নার সুপারহিট সিনেমা আম্মাজান এর আম্মাজান গানটি খুব সহজেই আমাদের টপ চার্টে উঠে এলো। আর এক প্রেপের অবসরে আমাদের এই বন্ধুটিকে নিয়ে আম্মাজান এর আদলে লিখে ফেললাম আরেকটি গান “চাচ্চুজান”।
গানটি ছিলো এরকম-
চাচ্চুজান চাচ্চুজান, আপনি দাড়ি কামান
জঙ্গল হইসে গালে, কোদাল দিয়া মারেন টান, চাচ্চুজান…

সবার আগে আমি আমার চাচ্চুজানরে চিনি রে চাচ্চুজানরে চিনি
ঘন কালো দাড়ি দিয়া ভরা গাল খানি
দাড়ি ছাড়া চাচ্চুর গালটা যেন গোরস্থান…চাচ্চুজান।

মুখে আছে দাড়ির পাহাড় লকার ব্লেডে ভরা
ব্লেডেও আজকাল কাজ হয়না ভাই দাড়ি এমন কড়া
দাড়ি ছাড়া চাচ্চুর গালটা যেন গোরস্থান…চাচ্চুজান।।

এক প্রেপের শেষে প্রেপ মনিটর চলে যাবার পর আর ঘন্টা বাজার আগের গ্যাপশটে আমাদের এক বন্ধু যখন ডায়াসে গিয়ে এই গানটা গেয়ে শোনাল তখন বন্ধুটি আমাদের কাব্যপ্রতিভায় একাধারে ‘বিস্মিত, স্তম্ভিত ও বাকরুদ্ধ’।
কলেজ থেকে বের হয়েছি ৬ বছর , সময়ের পরিক্রমায় আমাদের ‘তৃণরাজি’ও ধানগাছে রুপান্তরিত হয়েছে কিন্তু আমাদের ঐ বন্ধুর ‘চাচা’ নামটি এখনো যায়নি। আজো যে কোন আড্ডায় সে পায় মুরুব্বির সম্মান! ক্লাস সেভেনেই এতোগুলো ছেলের ‘গণ চাচা’ হওয়াটাএকমাত্র ক্যাডেট কলেজেই সম্ভব!

২,০৬৮ বার দেখা হয়েছে

৩০ টি মন্তব্য : “একটি জনপ্রিয় গানের বিস্মৃত প্রায় রুপান্তর”

  1. ইউসুফ (১৯৮৩-৮৯)

    =)) :))

    আমাদেরও একজন চাচা ছিলেন। ক্লাস সেভেনে ও ছিল ৫ ফিট এর উপরে - মানে লম্বাদের গ্রুপে। আমাদের হাউসের সবচেয়ে লম্বা। বেচারা চাচা ঐ হাইটেই রয়ে গেল। টুয়েলভে ও হয়ে গেল হাউসের লোয়েস্ট হাইট।

    জবাব দিন
  2. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)
    ক্লাস সেভেনেই এতোগুলো ছেলের ‘গণ চাচা’ হওয়াটাএকমাত্র ক্যাডেট কলেজেই সম্ভব!

    :)) :))


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  3. আমাদের রাসেল, বেচারা যেন কেমনে কেমনে চাচা হয়ে গেল,
    একদিন ছুটিতে ওর বাসায় নক করে বললাম, চাচা আছে? আন্টি দরজা খুলে ভেতরে হাঁক দিলে, এ্যাই চাচা, এদিকে আস, তোমার বন্ধু আসছে।

    কলেজের কথা নাহয় বাদ দিলাম, পিরা না গিয়া কুনুমতে ওর বাসায় ঢুকে শুনি ওর বাপ, মা, ছোট ভাই, ছোট বোন সবাই ওকে চাচা বলে ডাকে। 😀 😀 😀

    জবাব দিন
  4. আদনান (১৯৯৭-২০০৩)

    আমাদেরও এক চাচা ছিলেন... ক্যাডেট নাম্বার ১৮৫৫, আমার ২ জন পরে (নামটা না হয় না-ই বললাম)। সেইরকমের চাচা সে!!! উনি সারাদিন আইউব 'চাচ্চু'র গান গাইতেন, গলায় এক্সট্রা ভাইব দিয়ে!!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।