আশার এক্রসটিক

[এক্রসটিকঃ এই ধরনের কবিতা বাংলায় প্রথম লিখেন কবি মাইকেল মধুসুদন দত্ত।প্রথম বার লিখেছিলেন তার এক বন্ধুর নাম নিয়ে।নামটা ছিল খুব সম্ভবত গৌর মোহন দাশ।সে যাই হোক-এই কবিতা পড়ার নিয়ম হল- প্রতিটি লাইনের প্রথম অক্ষর একে একে পড়ে যাওয়া।তারপর বাকি কবিতা পড়া।আরেকটা কথা-এই ধরনের কবিতায় প্রথম অক্ষরের বানান ভুল করা যেতে পারে!(কারন টা পড়লেই বুঝবেন)। ধন্যবাদ।]

আকাশে জমা মেঘ গুলো কাঁদে,
মিশে যায় দিগন্তে।

বিশাল আকাশ
রয়ে যায় শূন্যতার হাহাকার হয়ে।
হীসেবে ভুল করে,কখনো

বনের ধারে
সে মেঘ ঝরে পড়ে।

এ কেমন বারিধারা?ভিজে ভিজে
কাক খোঁজে
কী এক অস্পৃশ্য আল্পনা।

তোবুও তাই দেখে
মাঝে মাঝে হরিণী কোনো
রয়ে যায় অগোচরে।
ইকটু মেঘলা হয়ে, অনন্ত নীল

আকাশ আবার রোদের মতো
শান্তি ছড়ায়
য়,(অ)শান্ত এই মনে।

তুষ্ট হৃদয় তবু
মিঠে মিঠে ভালবাসা

জানায় তোমার প্রতি
নতুন করে পাবার আশায়।
কি(?) হয় আবার এলে?

৭৭৫ বার দেখা হয়েছে

৮ টি মন্তব্য : “আশার এক্রসটিক”

  1. শেখ সাদী (০৬-১২)

    বলতে ভুলে গিয়েছিলামঃ এই কবিতাটা ঝিনাইদা ক্যাডেট কলেজে আইসিসি তে গিয়ে লিখেছিলাম... কি অসহ্য গরম যে ছিল তখন!!


    \"why does the weasel go pop? does it matter?
    if life is enjoyable, does it have to make sense?\"

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।