অতঃপর ব্লগর ব্লগর – ৮

আকাশের বিশালতা কে বক্ষে ধারন করার এক ব্যাপক অভিপ্রায়ে মনের মাধুরী মিশিয়ে নিজ হাতে বানিয়েছি আমি চৌত্রিশটা ছোট বড় ঘুড়ি। এর মধ্যে সকালের মিষ্টি রোদের মত কিছু আছে। অন্য কিছু সুনীল সাগরের মত; গোটা কতক রক্তলাল, কয়েকটার আছে সবুজ পাড়। কেউ সোনালী, কেউ কেউ রুপালী – আর বাকি গুলো স্রেফ সাদা কালো।

একদিন হয়তো উড়ানোর অনুমতি মিলবে – এই প্রতীক্ষায় আমি বানিয়েছি এইসব ঘুড়ি। সেদিনকার অলস সময়কে তাক লাগিয়ে আচমকা টান লাগবে লাটাইয়ে। আমার নিরামিষ জীবনে ক্ষনিকের রোমাঞ্চের উচ্ছ্বাস! হুম্মম; অধীর প্রতীক্ষার পর যেভাবে লব্ধ হয় কষ্টার্জিত সফলতা।

এখানে লোড শেডিং চলছে। চারিদিকে আঁধার, তাই আমি চোখ বুজে বসে আছি অনেকক্ষন, বসেই থাকি প্রতিক্ষন! চোখ বুজা থাকলেই আমি আজকাল বেশ যেন দেখতে পাই। ভাগ্যিস সেখানে লোডশেডিং এর বিড়ম্বনা নেই… বাক্সবন্দী ঘুড়ি গুলো একে একে বেরিয়ে আসছিল যেন ঢাকনা গলে গলে। দমকা হাওয়ায় পই পই করে উঠে যাচ্ছিলো তারা উর্ধ্ব আকাশের পানে

উৎসঃ ইন্টারনেট


আচমকা – মুঠো ফোনের চিৎকারে সম্বিত ফিরে পাই; শুনি ব্যাঙের ডাক, মেঘের আর্তনাদ।
চমকে চোখ মেলে দেখি টেবিলে নিভু নিভু হারিকেন। তেল ফুরিরে এসেছে হয়তো। সলতেটাও বদলাতে হবে। সময় পাই না আজকাল – অথচ কিছুই কিন্তু করিনা। বসেই থাকি। বসেই আছি।

ঘাড় ঘুড়িয়ে আবছা আলোয় দেখি ছাইমাখা দেয়ালের একপাশে পড়ে আছে আমার ঘুড়ি বাক্স।
মরচে ধরা তালায় বাক্সবন্দী আমার জমানো স্বপ্ন গুলো !
ওরা বরং ওখানেই ঘুমাক।
😐

১,৪৮১ বার দেখা হয়েছে

১৪ টি মন্তব্য : “অতঃপর ব্লগর ব্লগর – ৮”

  1. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    এসেই মুগ্ধ!
    এটাকে কবিতা ট্যাগ করলেনা কেন? অথচ এসকল শব্দবন্ধগুলো কি অনায়াসে হয়ে উঠেছে কবিতা, সারা গা থেকে ঝংকৃত হচ্ছে ছন্দ সুর আর রঙ।

    অফ টপিক: তোমার সংক্ষেপিত লেখাটি পড়েছিলাম সেদিনই। কিন্তু বাড়িতে ইন্টারনেট না থাকার কারণে বলা হয়নি। খুব ভালো হয়েছে ওটাও।

    জবাব দিন
  2. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    স্বপ্নঘুড়ি............ উড়োউড়ি
    স্বপ্ন ভেঙেই........ হুড়োহুড়ি

    স্বপ্নদের তাই ঘুম পাড়িয়েই রাখো। নইলে যে শুধুই যন্ত্রণা..........
    আমিও বলেছি, ঘুমাও..... ঘুমাও..... ঘুমাও। তাহলে আর যন্ত্রণা হবে না।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।