যে সীমান্তে শুধুই বসন্ত ! (২)

যে সীমান্তে শুধুই বসন্ত ! (১)
………………………………………………………………………………………………
১ বছর পর আকাশ আর নীলিমা কক্সবাজারের বালুকা বেলায় ~
সময় ডিসেম্বরের মাঝামাঝি …

……………………………………………………………………………………………।

    সিকোয়েন্স- ১। কথার পিঠে কথা ।

দৃশ্যপটঃ ১
ওপেনিং শট – সাগর আর আকাশ ঘুরে দুটো গাঙচিলের উড়ে চলা দেখিয়ে ফেড আউট।
জুম ইন-সাগর পাড়ের একটি কটেজ।
সেটঃ ইন্টেরিয়র-আকাশ-নীলিমা’র কটেজ।

লিংকঃ চিরকুট -১।

প্রিয়তম আকাশ,

আমার একান্ত
সাত রাজার ধন থেকে
ঐ সন্ধ্যা তারা
সাথে বেলী ফুলের সুবাস
আর গোধূলির লালিমা…
তোমায় উজার করে দিলাম।

ইতি,
তোমার প্রিয়তমা রংধনু রং-
নীলিমা।

লিংকঃ চিরকুট -২।

আমার নীলিমা,

আমি এক তৃষিত কাকের মত
এতদিন প্রতীক্ষায় ছিলাম ।
আর চুরি যাওয়া হৃদয়পানে তাকিয়ে ছিলাম!
অবশেষে নামলো বৃষ্টি।
আমি অনাবিল আনন্দে ভিজলাম ~
অনেকদিন পর…!

ইতি
তোমার আকাশ।

    সিকোয়েন্স-২ । সৈকতে ফিসকিস ।

দৃশ্যপটঃ ২
ওপেনিং শট-উত্তাল সমুদ্রে ফেনিল ঢেউয়ের তোলপাড়।
জুম আউট – নীল আকাশে ছেড়া ছেড়া সাদা মেঘ।
জুম ইন- এঙ্গেলে ফ্রেমে আসবে আকাশ আর নীলিমা সৈকতে।
সেটঃ আউটডোর-নিরালা সৈকতে আকাশ আর নীলিমা অন্তরংগ মূহূর্তে।

লিংকঃ ফিসফিস-১।
(নীলিমা -আকাশের কানে কানে)

রঙীন মাছরাঙা’র ঠোঁটের আচমকা ছোঁয়ার
মতন পরশে তুমি রাঙিয়েছো আমার এ জীবন।

লিংকঃ ফিসফিস-২ ।
(আকাশ -নীলিমার কানে কানে)

সীমান্তে আকাশের নীল দিগন্ত এঁকেছো
গাঙচিল হয়ে তুমি আমায় দিয়েছো পথের দিশা ।

পরিশিষ্টঃ
আবহ সঙ্গীতঃ সমুদ্র আর হাওয়া।
আলোক সজ্জাঃ সূর্য আর মেঘ।
ক্যামেরাঃ পাঠকের দৃষ্টি।
কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ আকাশ আর নীলিমা।
পরিকল্পনা আর পরিচালনাঃ উত্তরাধিকার।

১,৯২৩ বার দেখা হয়েছে

২৪ টি মন্তব্য : “যে সীমান্তে শুধুই বসন্ত ! (২)”

    • ওবায়দুল্লাহ (১৯৮৮-১৯৯৪)

      ধনবাদ মেহেদী ভাইয়া,
      অনেকদিন ব্লগে লেখা দিই না। তাই আজ লেখা দিব পণ করেই হাজির হয়েছিলাম।

      এই লেখাটা আগে সামু'তে দিছিলাম - এখনতো ওখানে সবই ড্রাফট করে দিছি।
      আর আমার সব লেখা গুলো এখানে আনার ধারাবাহিকতায় এবারে শীতের দিনে খানিকটা ওম্‌ ওম্‌ উষ্ণতা ছড়ানোর জন্য এখানে দিলাম। 🙂
      শুভেচ্ছা নিও প্রিয়।


      সৈয়দ সাফী

      জবাব দিন
    • ওবায়দুল্লাহ (১৯৮৮-১৯৯৪)

      সুপ্রিয় রহমান,
      তোমার সাধুবাদে খুশী হইছি অনেক। 😀
      ---------------------------------------------------------------------------------
      পর সমাচার এই যে -
      আর এন্ট্রান্সে এই বেলা টিব্রেক খাইয়াই সন্তুষ্ট রহিহাছি। তাও শেষের দিন রোজা শুরু হইয়া যাওয়ায় সময় কাটানো দুষ্কর বোধ হইছে ছিল।
      শেষ কালে সামছুর রাহমানের কবিতার খাতা ভাবিয়া যা ইচ্ছা তাহাই লিখিয়া সময় একপ্রকার পার করিয়াছি। বলা বাহুল্য ফলাফল দেখিবার কোন প্রকার স্পৃহা অন্তরে তৈরী হয় নাই।
      শুভাকাংখীদের হা-পিত্যেষ সহযোগে ফোন পাইয়া অবগত হইয়াছি - এ যাত্রা আমার কোন শনির যোগ হয় নাই। :-B
      ------------------------------------------------------------------------------------
      :guitar:
      শুভেচ্ছা নিও অফুরন্ত।


      সৈয়দ সাফী

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।