অতঃপর ব্লগর ব্লগর – ৫

মিশন শেষে দেশে ফিরে কাজে জয়েন করে রংপুরের ‘কালবেলা’ আমায় মেইলে লিখেছিল – ‘‘দেশে আসেন বস্‌ – তারপর দেখবোনে কত লেখা দিতে পারেন ব্লগে’’। কথাটা আমার তখন পুরোপুরি উপলব্ধিতে আসেনি। আমি হেসেছিলাম মনে মনে। সেই জোশেই লাইবেরিয়া থেকে এসে ছুটির মধ্যে গরম গরম এবিসি রেডিওতে জমকালো গেট টুগেদারে শামিল হলাম। ব্লগের প্রিন্সিপাল, ভিপি, অ্যাডজু, আমার বন্ধু জুলহাস সহ আরো সব তুখোর ব্লগারদের সাথে দেখা হলো। ফয়েজ ভাইয়ের সাথে দেখা না হলেও ফোনে কথা হলো।

মনে মনে ঠিক করে ফেললাম খুব নিয়মিত থাকবো ব্লগে। কিন্তু নতুন জায়গায় জয়েন করার পর জীবন এবং জীবিকা রীতিমত পাল্লা দিয়ে হাঁপিয়ে তুললো বিগত দিন গুলোতে। লেখা দেয়া বা মন্তব্য দেয়া না হলেও প্রতিদিন না তবে দু’দিনে একবার ঢু মেরেছি প্রিয় ব্লগে।

সময়ের আবর্তে অনেক প্রিয় বিষয়ের হাতছানি উপেক্ষা করেছি। ছোট বেলায় বাবা মা’র সাথে নিউমার্কেটে গেলে রঙীন খেলনা গুলোর দিকে চোখ পড়তেই আমি মুখ ঘুরিয়ে ফেলতাম। পরিবারে মাসের খরচে টান পড়বার ভয়ে আমি বড় ভাই হয়ে ছোট’টার সামনে সেসব আবদার করার বিন্দু মাত্র জোর পেতাম না মনে।

প্রিয় মানুষগুলি ছেড়ে নীরব অভিমানে ক্যাডেট কলেজে যাওয়ার সময় ভাবিনি একদিন সেই ক্যাডেট কলেজটাও প্রিয় তালিকায় ঠাঁই পাবে। সাথে যোগ হয়েছিল আরো ৪৯ জন প্রিয় বন্ধু সহ সিনিয়র – জুনিয়র, শ্রদ্ধেয় স্যার ম্যাডাম… অনেকেই।

এরপর বাবার স্বপ্নের সাথে একাত্ম হয়ে বিএমএ তে যাওয়ার সময় ভাবিনি সেখানে একত্রে ট্রেনিং এর সময় কোর্সমেটদের সাথে অনুরূপ মনের মিল হয়ে উঠবে। আসলে এক সাথে কঠিন সময় পাড়ি দেয়ার সময় সহসাথীদের মাঝে অটুট বন্ধন গড়ে উঠে অদৃশ্য হয়েই।

তারপর ক্যালেন্ডারের পাতায় প্রিয় সব বন্ধুরা ছড়িয়ে ছিটিয়ে যায় কর্মক্ষেত্রে। অন্তরে নির্মেদ ভালবাসা থাকলেও জীবিকার মোহে এবং পারিপার্শ্বিক চাপে বেড়ে যায় মধ্যকার দূরত্ব। গড়ে ওঠে নতুন বৃত্ত; তৈরী হয় হালনাগাদ প্রিয়দের লিস্ট।

জীবনের দ্বিতীয় অধ্যায়ে অর্ধাঙ্গিনীর আহলাদ-মেশানো শাসনসমেত ভালবাসার ছোবলে বহুদিনের অভ্যাস প্রিয় সিগারেট কে ‘না’ বলেছি। একই ধারায় জীবনের অলি গলিতে হারিয়েছি – খুইয়েছি প্রিয় কলম, প্রিয় ঘড়ি, প্রিয় বন্ধু, প্রিয় মুখ, প্রিয় আরো অনেক কিছুই…!

আর তাই, পথ চলতে আচমকা কোন প্রিয় বন্ধু’র সাথে দেখা হলেই জমে যায় পুরান আড্ডা- স্মৃতির আয়নায় ভেসে ওঠে ফেলে আসা সোনার দিন গুলি; জীবন্ত হয়ে ছুটতে থাকে অতীতের সখ্যতা উচ্ছ্বল ঝর্ণার মত।

জীবন যতটুকু দেয় – যেভাবে দেয়- তার ষোল আনা কাজে না লাগাতে পারলেও একান্ত নিজের জন্য যতটুকু বারাদ্দ তা উপভোগ করতে কার্পণ্য করিনা কখনো। করা উচিৎও না। টেকনোলজির সুবাদে ইন্টারনেট আমাদের মধ্যকার আপাত দূরত্বকে নিমিষেই হটিয়ে দেয় প্রতি ক্লিক এ। সেজন্য প্রকৃতি সদয় হলেই অনিয়মিত ভাবে হলেও প্রিয় সিসিবি তে ফিরে ফিরে আসি। আর আসতেই থাকব ইনশাআল্লাহ।

ভূমিকার গদ্য দীর্ঘ হলো হয়তো- তথাপি বলছি আমার প্রিয়’র তালিকায় সিসিবি বোধকরি অমোচনীয় কালিতে আমরন লেখা হয়ে রবে। এখানে এলেই আমি খুঁজে পাই এই ‘আমাকে’।

সবাই ভাল থাকুন-অনেক ভাল। এই কামনাই প্রতিক্ষনের…

৩,১৭৯ বার দেখা হয়েছে

৪৪ টি মন্তব্য : “অতঃপর ব্লগর ব্লগর – ৫”

  1. রকিব (০১-০৭)
    এখানে এলেই আমি খুঁজে পাই এই ‘আমাকে’।

    :thumbup: :thumbup: :thumbup:
    বহুদিন পর আপনার লেখা পেলাম ভাইয়া। ভালো লাগলো। কেমন আছেন আপনি?


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  2. ভূমিকার গদ্য দীর্ঘ হলো হয়তো- তথাপি বলছি আমার প্রিয়’র তালিকায় সিসিবি বোধকরি অমোচনীয় কালিতে আমরন লেখা হয়ে রবে। এখানে এলেই আমি খুঁজে পাই এই ‘আমাকে’।

    জবাব দিন
  3. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    অনেকদিন পর ওবায়দুল্লাহ ভাই :clap: :hatsoff:

    অন্তরে নির্মেদ ভালবাসা থাকলেও জীবিকার মোহে এবং পারিপার্শ্বিক চাপে বেড়ে যায় মধ্যকার দূরত্ব। গড়ে ওঠে নতুন বৃত্ত; তৈরী হয় হালনাগাদ প্রিয়দের লিস্ট।

    :thumbup:

    সেজন্য প্রকৃতি সদয় হলেই অনিয়মিত ভাবে হলেও প্রিয় সিসিবি তে ফিরে ফিরে আসি। আর আসতেই থাকব ইনশাআল্লাহ।

    :hatsoff: :hatsoff: :salute:


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  4. ভাইয়া,
    আপনার লেখা পড়েই বুঝলাম কঠিন লিখেন। ভিতরে ঢুকে পেলাম অনে-ক ব্লগ লিখেছেন... অর্থাৎ আসলেই সিরাম ব্লগার আপনি।
    :hatsoff: :hatsoff:
    তাছাড়া পরাণের গহীন ভিতর-এ আপনার লেখা পড়েছি বলে মনে হচ্ছে... পরে চেক করে নিবো...

    যাই হোক, মূল কথা হলো-- আপনার সাথে আমার পরিচয় নাই। আমি খুব সাধারণ আর অন্তর্মুখী একটা ছেলে-- যে সিসিবি'তে এসে আমার প্রাণ ফিরে পেয়েছি। বুকের ভেতরের কথাগুলোকে সবার সাথে শেয়ার করা শিখেছি--যা আগে জমে জমে বরফ কঠিন হয়ে জমে থাকত...

    আপনাকে আমার পক্ষ থেকে নিয়মিত হবার জন্য স্বাগতম :salute:

    জবাব দিন
  5. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)
    জীবনের দ্বিতীয় অধ্যায়ে অর্ধাঙ্গিনীর আহলাদ-মেশানো শাসনসমেত ভালবাসার ছোবলে বহুদিনের অভ্যাস প্রিয় সিগারেট কে ‘না’ বলেছি।

    আপনি নিশ্চিত ভাবেই সৌভাগ্যবান বস। আমাদের অধিকাংশেরই ঝাড়ি মেশানো ভালোবাসাসমেত শাসনের গুল্লির কারনে প্রিয়তমা সিগারেট ছাড়তে হয়েছে। :(( :(( :((

    জবাব দিন
  6. মেহেদী হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    :just: কিছুদিন ধরে সিসিবিতে ঘোরাঘুরি করছি......।।

    আমার মিশন শেষ হতে আর ৩৫ দিন মত বাকী। তারপর আবার পোস্টিং হয়েছে কুমিল্লায়......।। আমার যে কি হবে...... :-/ :-/ :-/

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।