কিলাত ক্লাব মাঠ থেকে চৌ… জা … শরাফাত

হুম, ১৯৯৭ সালে চৌ… জা … শ … এই ভাবে শুরু করতেন। খেলার সম্পর্কে আহসান লিখেছে , আসলেই সেই দিনটা অনেক মজার অনেক
আনন্দের ছিল। এমনকি সে দিন চৌ… জা … শ চেচামেচি ও অনেক ভাল লেগেছিল। শেষ ওভারে, ব্অল খানি ব্যাটে লাগলেই চৌ… জা … শ এর
চিৎকার “বল চলে যাচ্ছে সিমানার দিকে ……… (জোরে), কিন্তু না ওখানে আছেন মরিস উদুম্বে … মাত্র এক রান (আস্তে)”।
staticmap
কুয়ালালুম পুর আসার পর থেকেই আমি খুজছি সেই মাঠ। কিন্তু কোন খোজ নাই। ডিএলএফ কাপ হল, ১৯ বিশ্বকাপ হল কিন্তু কিলাত ক্লাব এ কোন ক্রিকেট খেলা হয় না। ক্রিকেট খেলা হয় কিনরারার “কিনরারা ওভালে”। এর পর গুগলে পেলাম কিলাত ক্লাবকে। এখন সেই কিলাত ক্লাব মাঠ এর নাম এখন “তেনেগা ন্যাশনাল স্পোটস গ্রাউন্ড”। আমার বাসা থেকে খুব কাছে। রাতে আমার বাসা থেকে রাতে মাঠ দেখা যায়। এক দিন গিয়ে দেকেও আসলাম, এখন এটি মালেয়শিয়ান বিদুৎ বিভাগ (তেনেগা ন্যাশনাল) এর নিজস্ব মাঠ। সবার জন্য তেনেগা মাঠের কিছু ছবি। এদের কাছে কিছু না হলেও, আমাদের জন্য তো বড় স্মৃতিময় এ মাঠ।

২০০১ সালের ছবি - cricinfo

২০০১ সালের ছবি - cricinfo

৭১৫ বার দেখা হয়েছে

৩ টি মন্তব্য : “কিলাত ক্লাব মাঠ থেকে চৌ… জা … শরাফাত”

  1. ঠিক বলেছেন ভাইয়া.....ভীষণ স্মৃতিময় এই মাঠ......

    সেই সময় এখনকার তুলনায় অনেক সামান্য সুযোগ সুবিধা নিয়ে আমাদের এতবড় অর্জন এসেছিল আর আজ.... উল্টা দিকে হাঁটছে ক্রিকেট..... মাঠ আছে, টাকা আছে , নেই শুধু ভাল করার মানসিকতা.... ২ ম্যাচ হেরে সিরিজ পরাজয় নিশ্চিত করার পরেই খেলা শুরু করে বাংলাদেশীরা....... আর সেদিন লাস্ট বলে জিতেছিলাম.....

    আমাদের উচিত এই মাঠটিকে বাংলাদেশে নিয়ে আসা.... কিছু শিখুক এখনকার ক্রিকেটাররা... শিখুক কিভাবে ফাইট করতে হয়.....

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।