~ প্রেম প্রণয় যদাপি দীপ্য বহমান | জীবন ঋতি নিয়ত ঋদ্ধিমান – এক ~

জীবনটাইতো ভুলে ভরা । প্রেম তো জীবনের নিষ্ঠুরতম ভুলগুলোর একটি বৈ অন্য কিছু নয় । আর ভালোবাসা তো এমন এক উন্মাতাল ঝড়, যা বয়ে যাবার পর প্রতিটি দৃষ্টিপাতে স্মৃতিষ্মান আতীত কেবলি বুকের নদীতে মুহুর্মুহু হাহাকারের বাণ ডেকে যায় । বিধ্বংসী হাওয়ায় সব উড়িয়ে না নিলে তাকে আর ঝড় বলা যায় কি !

প্রকৃত প্রেম মানুষকে সত্যিকার অর্থে নিঃস্ব করে দেয় । তা না হলে পরে বুঝতে হবে তাতে লাগাম পরানো আছে, তাতে যোগ-বিয়োগের অংক কষা আছে, তাতে নির্ভেজাল কিছু জালিয়াতি আছে ! এ যুগে হায়, কেউ কি আর নিঃস্ব হতে চায় !

প্রকৃত প্রেম আজ তাই জলের অভাবে প্রাণ হারানো লতা গুল্মের মতোন নিষ্প্রভতায় বিলীন হয়ে যায় যায় ! এর মাঝে ক’টা দিন হয়তোবা তার শোভা-সুরভি কারো মনে কিয়দ জীবনের রঙ লাগিয়ে দিয়ে যায় … ওটুকুতে কি আর প্রেম তার মমি হওয়া শরীরে প্রাণ ফিরে পায় ! সত্যিকারের প্রেম খুঁজতে আজ তাই আমাদের সাহিত্য পুরান আর প্রত্নতাত্বিকের কাছে যাওয়া ছাড়া কোনো উপায় নাই !!!

লেখার সময়কাল ~ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ | প্রথম প্রহর

[ লেখাটির অনেক গুলো পর্ব আছে । কবিতার পাশাপাশি এটাও ক্রমশঃ দিতে থাকবো । সবার আন্তরিক চাঁছা ছোলা মন্তব্য পেলে প্রীত হবো । ]

১,০৯৭ বার দেখা হয়েছে

১৭ টি মন্তব্য : “~ প্রেম প্রণয় যদাপি দীপ্য বহমান | জীবন ঋতি নিয়ত ঋদ্ধিমান – এক ~”

  1. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    চলতে থাকুক লুৎফুল ভাই। মনে হচ্ছে কয়েকটা পর্ব পড়েছিলাম আগে।
    আপনার লেখার দার্শনিকতা আমাকে টানে ভীষণ। ভূমিকাটুকু (ধরে নিচ্ছি তাই) অনবদ্য লাগলো। একটি জম্পেশ সিরিজের অপেক্ষায়।

    'বিধ্বংসী' বানানটা শুধরে নেবেন কি?

    জবাব দিন
    • লুৎফুল (৭৮-৮৪)

      অনেক ধন্যবাদ নূপুর । আমার এটা একটা পুরোনো রোগ । ক্রনিক বলা যায় ।
      এমন ভুল বা টাইপো গুলো মেনশন করে দিওতো । তাতে এক কাজে দুই কাজ হবে ।
      ইদানিং এখানে আর এমন কোথাও যা পোস্ট করছি নতুন বা পুরোনো লেখা তা এক জায়গায় জড়ো করতে শুরু করেছি ।
      এগুলো তাহলে তোমার কল্যাণে ত্রুটিবিচ্যুতি থেকেও সেরে উঠবে ।

      ষোলো-সতেরোটা পর্ব লেখা ছিল। আরো বেশ কটা ভাবনায় ছিল । একবার ছেদ পড়ে সব গুবলেট হয়ে গেছে ।
      দেখি এখানে পোস্ট করতে করতে আরো কটা লিখে ফেলা হয় নাকি ।
      ব্যস্ততার বহর তেমন আলো দেখাচ্ছে না । তবু . . .

      জবাব দিন
  2. মাহবুব (৭৮-৮৪)

    "সবার আন্তরিক চাঁছা ছোলা মন্তব্য পেলে প্রীত হবো"
    আশ্চর্য সুন্দর ভাষা, প্রথম বারে ফেবু তে পড়ে মন্তব্য করেছিলাম, আবারো মুগ্ধতা জানাচ্ছি
    কিন্তু- প্রেম নিয়ে এত্তো লেখালেখি কেন? প্রেম ব্যাপারটা খুবই ওভার রেটেড

    জবাব দিন
    • লুৎফুল (৭৮-৮৪)

      সবাইরে দিয়ে কি আর সব হয় !
      আমি লাস্ট বেঞ্চি । আমি তো সেই কবে বুঝে গেছি, আমাকে দিয়ে কিচ্ছু হবে না, কিচ্ছুটি না ।

      তাই জীবন ভালোবেসে ওই এক প্রেমের চরে আঁটকা পড়ে আছি ।
      কদিন আগে একজন আমার ফেবু পোস্টে লিখেছিলো আমাকে "এক জীবনে কতোটা প্রেম দরকার"?
      আমার উত্তর ছিলো - "অযুত নিযুত পরিমান / প্রতিদিন সমুদ্র সমান" ।
      আসলেই কিন্তু ... আমাদের প্রত্যেকেওই চাই তা ...
      🙂

      জবাব দিন
    • পারভেজ (৭৮-৮৪)

      প্রেম জিনিষটা আসলেই ওভার রেটেড।
      প্রেমের যে সংজ্ঞাটা তাই আমার সবচেয়ে এপ্রোপ্রিয়েট বলে মনে হয় তা হলো:
      "ইটস এন এড্রেনাল রাশ"......
      স্বর্গিয় ফর্গিয় কিছু নাই। সকলি গর ভেল।
      মস্তিস্কে কতিপয় কেমিক্যালের ছুটাছুটি ছাড়া প্রেমের আর আছেটা কি?

      তবে হ্যাঁ, ছুটাছুটির ঐ সময়গুলো কিন্তু দারুন কাটে।
      স্বর্গিয় বলে ভাবতে খুবই মন চায়.........


      Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

      জবাব দিন
  3. সাইদুল (৭৬-৮২)

    সত্যিকারের প্রেম খুঁজতে আজ তাই আমাদের সাহিত্য পুরান আর প্রত্নতাত্বিকের কাছে যাওয়া ছাড়া কোনো উপায় নাই !!!

    কেনরে ভাই? প্রেমের কী এতই আকাল?

    লেখাটা কিন্তু দারুণ হচ্ছে, আমি ভাষা আর স্টাইলের কথা বলছি


    যে কথা কখনও বাজেনা হৃদয়ে গান হয়ে কোন, সে কথা ব্যর্থ , ম্লান

    জবাব দিন
    • লুৎফুল (৭৮-৮৪)

      সাইদুল ভাই । আগের যুগে না দেখেই প্রেম । তার পর এলো দেখে প্রেম ।
      তারপর প্রেম আছে তো আবার নেই ।
      এখন হলো "নো স্ট্রিং এটাচড" বা "ফ্রেন্ডস উইথ বেনিফিটের যুগ'।
      এখন অতো মান অভমান নাটকের প্রশ্রয় নেই ।
      আবার এখনো কোথাও আকাশ নীল কষ্ট গভীর হতে হতে ... গাঢ় হতে হতে ঘণ নীল ... যেনো কালোতে বিলীন ...
      আর প্রেম সে তো শুধু মানব মানবীর নয় । দেশ মাটি প্রিয় শহর নদী ... কতো কি ই তো হতে পারে ...
      সর্বত্রই কি এক রকমের কাট কাট যান্ত্রিকতা চেপে বসেনি ... স্বার্থান্ধতার কালিমা লেপটে যায়নি ...
      সেটাই ... ... ...
      সবগুলো পর্বে ভালো লাগা - মন্দ লাগা টুকু দিনের আলোয় তলে আনবেন । দাবীটা থাকলো কিন্তু ।

      জবাব দিন
  4. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    লুৎফুল ভাই,

    লেখার ধরণ বেশ ভালো লেগেছে। বিষয়টাও। তবে একটা জিজ্ঞাসা আছে।- ভাবি কি এই পোষ্ট দেখছেন? 🙂


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  5. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    কী চমৎকার করেই না লেখক প্রতিটি লেখার উত্তরে নিজের মন্তব্য জুড়ে দিচ্ছেন এখানে। :boss: :boss: লেখকের সাথে পাঠকের এই যে কথোপকথন চলছে এখানে সেটিও কত যে প্রাণবন্ত লাগছে পড়তে, ভাইয়া! সিসিবিতে অনেককেই দেখি একখানা লেখা ছুঁড়ে মেরে হাওয়া হয়ে যান বহুদিনের জন্য। পাঠকের সমালোচনা অথবা পাঠকের সাথে যে একটা যোগাযোগ থাকার ব্যাপার আছে সেটি অনেকেই ভুলে যান দেখি। নিজেরা অপরের লেখা তো পড়েনই না, নিজের লেখার বিপরীতে পাঠকের ভাল লাগা অথবা মন্দ লাগার তোয়াক্কাও অনেকে করেন না দেখি এখানে।

    বরাবরের মত :gulli2: :gulli2:

    জবাব দিন
  6. লুৎফুল (৭৮-৮৪)

    আসলে ফেস বুক, এই সিসিবি, এবং এমন যে কটা জায়গায়ই আমি জড়িত করেছি নিজেকে। সব লেখা পড়ার এবং তা নিয়ে মত বিনিময়ের চেষ্টাটা করি।
    এটা এক দিক থেকে আমার সেই পুরোনো অতীতের লেখক-কবিদের টিএসসি, শাহবাগ কেন্দ্রিক আড্ডার অভাবটা অনেকাংশে পুরন করে। যা দু দশক পর জুকারবার্গের কল্যাণে ঘটতে পারছে।কেননা সেই পুরোনো মানুষগুলোকে নিয়ে ওটা আর কখনো হবে না।
    তখন আমরা একে অন্যের লেখাকে বলতে গেলে ডিসেকশান করতাম। কত রকম মানে যে এক্টা লেখা থেকে একেক জন দাড় করাতাম।
    সেই সংযোগটা খুব দরকার। এতে উভয় পক্ষেরই লাভ। আর লেখা ভাবনা এসব আরো উতকর্ষে এগিয়ে যেতে পারে তরতর করে। ভাবনার শাখা প্রশাখাগুলোও নিত্য নিত্য নতুন পত্র-পল্লবে হাসে।
    তাছাড়া রাশভারী খুববিবেচনার বাইরে সাদামাটা কথায় ওটা আমার ভালোও লাগে। সবই যে সবসময় অর্থবহই হবে তা নয়। তবু।
    অনেক ধন্যবাদ। এতোসব মন্তব্যের বাড়তি কথা পড়বার সময় ক্ষেপনের জন্য।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।