একটি কোটা আর বাংলালিংক

এইতো গত বছর-

রাজশাহী ভার্সিটি বি বি এ পরীক্ষা, আই বি এর কোচিং করে স্বভাবতই ধারণা জন্মেছিল, ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা যাবে না। কিন্তু সেই ভুল পরীক্ষার হলে গিয়ে ভাঙল যখন দেখি পাশের ছেলেটি মহানন্দে দুইটি ক্যালকুলেটর একের পর এক ব্যবহার করে যাচ্ছে। ম্যাথ করতে যেয়েই যত বিপত্তি, এত বড় বড় ম্যাথ কিভাবে করবো? পাশের ছেলেটির ক্যালকুলেটর এর দিকে তাকাতেই সে বুঝতে পারল এবং মহানন্দে দুইটি ক্যালকুলেটর ই অন্যপাশে সরিয়ে রাখল।
আমি – 😐

জাহাঙ্গীরনগর আই বি এ পরীক্ষা। আই বি এ তে সাধারন জ্ঞান আর বাংলা দেখে অবাক হলাম। !! পাশের জন আলাপ করে জানল আমি ক্যাডেট। সে তো মহা খুশি। ইংলিশ দেখালাম। একটু ম্যাথ দেখতে চাইলে বলল- পারি না। মনে মনে বললাম, বাহ! বুয়েটের প্রস্তুতি নিয়ে ম্যাথ পারো না! ( তখন তো আর বাহ ভালো তো! ভালো না? এই কথাটা জানতাম না!)
টেক্সটাইল এর পরীক্ষা, ইঞ্জিনীয়ারিং কোচিং করি নি, ভালো ছাত্র ও না। আল্লাহ্‌র নাম নিয়ে শুরু করলাম, একের পর এক উত্তর বের করলাম আর বসালাম। সামনের মেয়েটি ইংলিশ দেখতে চাইল, ক্যাডেট সুলভ আচরণের কারণে স্বভাবতই দেখালাম। ভাবলাম, ম্যাথ তো অনেকগুলোই পারি নি, জিজ্ঞাসা করা যাক। জিজ্ঞাসা করতেই বলল – পারি না ! আমি পেছন থেকেও দেখতে পাচ্ছিলাম তার উত্তরপত্রের সব বৃত্তই একেকটি ব্লাক হোলের মতই কালো। মন টা আবার খারাপ হল। কিছুক্ষন পর আবার পেছনে ফিরে জিজ্ঞেস করলো- ইংলিশ এত নাম্বার টা কত? O:-)
আমি নিরুত্তর, এবং আমার খাতা উলটিয়ে একপাশে রাখা… (আর কত?) x-(

অবশেষে রেজাল্ট, এক বন্ধু ফোন করে বলল- দোস্ত রাজশাহী তে তুই ৩৩ তম হইছছ, বি বি এ তে! বিশ্বাস করি নি নিজে দেখার আগ পর্যন্ত, জাহাঙ্গীরনগর আই বি এ ও পেয়েছিলাম, সে কথা আলাদা।

টেক্সটাইল এ ভর্তি হতে গিয়েছি। বাসায় সকাল বেলাও ঝগড়া করে এসেছি। আমার ইচ্ছা ফ্যাশন ডিজাইনিং নিবো, বাসার কেউ রাজি না। এডমিশন রুম এর সামনে দাঁড়িয়ে বাসায় বোঝানোর শেষ চেষ্টা। পাশে টেক্সটাইলের ই সি সি সির এক বড় ভাই। কোথা থেকে এক ছেলে এসে বলে, ভাইয়া আসসালামু আলাইকুম, আমি অমুক, পি সি সি। এমনিতেই মাথা গরম। ভ্রু কুচকে তাকালাম একবার ওর দিকে একবার আমার ট্র্যাক স্যুট এর দিকে- যেখানে চোখে পড়ার মতো যথেষ্ট বড় করে লেখা- এস সি সি, ২০০৬-২০১২।
ক্লাসমেটের সাথে কথা বলতে থাকলাম কিছুক্ষন।
বললো- তুই অ্যাপারেল নিস না কেন?
আমি বললাম আমার পজিশন ১১৪১ ! ম্যানেজমেন্ট এর ১ম কল!
বললো- ওহ তুই ইজিলি অ্যাপারেল পাবি।
আমি বললাম    😮   কেমনে !?! তোর পজিশন কত?
বললো- (১৩০০-১৪০০) কিছু একটা। কেন তোর কোটা নাই??!
শুধু একটা কথাই মনে হচ্ছিল, কি দোষ করেছিলাম একটা কোটা না নিয়ে এই যুগে জন্ম নিয়ে। :bash:
আমি জানি না তখন কি করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু এখন জানি। গলা ফাটিয়ে জিজ্ঞেস করতে চেয়েছিলাম- “কোটা কি বাংলালিংক দামে পাইছছ?”
:gulli:

কোটা

২,৫৪১ বার দেখা হয়েছে

১৬ টি মন্তব্য : “একটি কোটা আর বাংলালিংক”

  1. আহমেদ ১৫২৯ (২০০৭-২০১৩) প.ক.ক

    হুম আসলেই :gulli2: মাইর‍্যা উড়ায় দেওন দরকার কোটা আলা গো


    বারে বারে অবাক হই, আর দেখি ফিরে ফিরে
    কতটা বদলে গেছি এই আমি প্রতিটি পদে পদে.....................

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।