রিফাতের বই এসেছে বইমেলাতে

ফেরদৌস জামান রিফাত ২০০৪ ইনটেকের ছেলে। জেসিসির এক্স-ক্যাডেট। সিসিবি তে লিখে। ফেসবুকে লিখে। কলেজে থাকতে ওকে ঐভাবে চিনতাম না। ওর সাথে প্রথম পরিচয় এক্কেবারে যমের বাড়িতে। সেই ২০১০ সালে। কলেজ থেকে বের হওয়ার পর আইএসএসবি তে গিয়ে। আমাদের ব্যাচের প্রথম আইএসএসবি ছিল ঐটা। বিভিন্ন কারনে সেই আইএসএসবি ছিল এক চরম বিভীষিকাময় একটা এক্সপেরিয়েন্স। সেই গল্প অন্য দিন করা যাবে। আজকে আলাপ শুধু রিফাত কে নিয়ে হবে.. আমরা আইএসএসবিতে একই গ্রুপে ছিলাম। ঐখানেই প্রথম এই বালক এর প্রতিভার ঝলক দেখেছিলাম।আমরা একসাথেই নেভিতে ঢোকার গ্রিনকার্ড পেলাম। আমি চলে আসলাম নেভিতে। আর রিফাত চলে গেলে আর্মডফোর্স মেডিকেল কলেজে। ডক্টর ওয়াটসন এর মতন সামরিক ডাক্তার হতে। আর্থার কোনান ডয়েলের স্টেরিওটাইপ অনুযায়ী সামরিক ডাক্তার দের লেখার হাত ভালো হওয়ার কথা। 😉 ওয়াটসন নামক ওই ডাক্তার এর লেখার কারনেই তো আমরা শার্লক হোমসের কাহিনী জানি, তাইনা? আমাদের রিফাতও বেশ লিখালিখি করে। ফেসবুকের বা ব্লগের এই যুগে তো যে কেউই চাইলে অনেক কিছু লিখতে পারে, তাহলে এইটা নিয়ে আলাদা কেন এত শোরগোল?
কথা হলো ,ছেলেটা একটু বেশি ভালো লিখে। ইরেগুলার, কিন্তু যখন লিখে তা থেকে চোখ সরানো দায়। মাঝে মাঝে ভাবি এই রকম চিন্তা কেন আমার মাথায় আসেনি ? সিসিবিতে প্রায়ই পোস্ট দেয়। অনেকেই হয়তো পড়েছেন। তবুও কয়েকটা লিংক দিলাম ওর সিসিবি পোস্ট এর। চোখ বুলাতে পারেন। আমি নিজে লেখা বর্ণনা করতে গেলে ঠিক সুবিচার হবেনা। তার চেয়ে এই স্যাম্পল চেখে দেখুন !
লিংক ১
লিংক ২
একুশে  বইমেলা তে ওর প্রথম বই প্রকাশিত হচ্ছে। বই এর নাম দুই দুই তিন শূন্য। হ্যা, ঠিক আন্দাজ করেছেন। আমাদের সবার ব্যক্তিগত “গণ পাসওয়ার্ড”.. ক্যাডেট নাম্বার ! বইয়ের প্রচ্ছদ করেছে বন্ধু দীপ মোজাহার। জেসিসি ২০০৪ ইনটেক ( ০৪ ইনটেক কিন্তু পাত্থরস 😀 ).. সেও এই সিসিবি পরিবারেরই সদস্য। অনেকদিন ধরে অবশ্য কিছু লিখেনা। কি বলবো, আমি নিজেই মনে হয় কয়েক মাস পরে কিছু পোস্ট করলাম। সব ই উছিলা !

 

Capture

 

Capture1

 

বইমেলাতে স্টল নাম্বার ১২৭-১২৮ নাম্বারে গেলেই বইটা পাওয়া যাবে। বইপত্র প্রকাশনী। সেই সাথে অনলাইন এ ও অর্ডার করা যাবে।  সেই জন্য যেতে হবে এই লিঙ্কে। ওহ আচ্ছা, আরেকটা ব্যাপার বলতে ভুলে গেছি। বই বিক্রির সমস্ত অর্থ ব্যায়  করা হবে আরেকটা মহত কাজে। পুরো টাকাটা যাবে ক্যান্সারে আক্রান্ত ফেনী গার্লস ক্যাডেট কলেজের বর্তমান ক্যাডেট রিদিয়ার ট্রিটমেন্ট ফান্ডে। সত্যি কথা বলতে কি শুনে খুব অবাক হয়েছিলাম প্রথমে। জীবনের প্রথম বই এর পুরো টাকা দিয়ে দিচ্ছে ? পরে ভাবলাম যে এই যে অবাক হওয়াটাই একধরণের মানসিক দৈন্যতা। ভালো কাজে অবাক হওয়ার কি আছে ! তো এই হলো আমার স্পেশাল অকেশন উপলক্ষ্যে মিনি ব্লগ। সিসিবির বাতাস গায়ে লাগিয়ে ভালো লাগছে। বাতাস লম্বা সময় ধরে গায়ে লাগানোর ইচ্ছে আছে.. হোপফুলি আমাদের লেখক সাহেবও সিসিবিতে পোস্ট দিয়ে তার অনুভূতি “মুন্নী সাহা” স্টাইলে জানিয়ে যাবে!

বইমেলা তে ঘুরে আসুন, রিফাত এর বই কিনে কোন এক সপ্তাহান্তে কম্বল মুড়ি দিয়ে বইটা পড়া শুরু করে দিন !

 

Tine Sunno F

১,৭৪৯ বার দেখা হয়েছে

১৫ টি মন্তব্য : “রিফাতের বই এসেছে বইমেলাতে”

  1. লুৎফুল (৭৮-৮৪)

    অভিনন্দন প্রথম বই প্রকাশে, লেখককে।
    সাধুবাদ বিক্রয়লব্ধ অর্থ নিয়ে মহৎ সিদ্ধান্তের জন্য, লেখককে।
    ধন্যবাদ এ ব্লগটি লিখে আমাদের জানার সুযোগ করে দেয়ার জন্য, নাফিসকে।

    জবাব দিন
  2. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    রিফাতকে আন্তরিক অভিনন্দন, এই মাইলফলক অতিক্রমণের জন্য। আর কাকতালীয় হলেও, একই প্রকাশকের স্টলে মুখ লুকোবে আমার "জীবনের জার্নাল"ও। ০৮ তারিখ থেকে সেটা পাওয়া যাবে আশাকরি। ভালই হবে, নিশ্চয়ই ওর সাথে দেখা হয়ে যাবে একদিন, যদি ও ঢাকায় থেকে থাকে। নতুবা ওর বন্ধুদের সাথে।
    বন্ধুর এ সাফল্য শেয়ার করার জন্য তোমাকে ধন্যবাদ। সেই সাথে সিসিবি'র সকল লেখকদের জন্য শুভকামনা।

    জবাব দিন
  3. ইশহাদ (১৯৯৯-২০০৫)

    অভিনন্দন লেখককে! :clap:

    বইটা প্রথম দিনেই চোখে পড়েছে। বইয়ের নাম একটা চার অক্ষরের সংখ্যা- এটা দেখেই সন্দেহ হচ্ছিল এটা কোনও ক্যাডেটের কাজ। উল্টেপাল্টে দেখে পরেরদিনের জন্য শর্টলিস্টে রেখে দিয়েছিলাম। এবারের স্টলবিন্যাস যাচ্ছেতাই।পরদিন গিয়ে আর ঐ স্টল খুজে পাইনি।

    পুনশ্চঃ রিদিয়ার ব্যাপারটা জানা ছিল না। এই প্রক্রিয়ায় আমরা কিভাবে যুক্ত হতে পারি?



     

    এমন মানব জনম, আর কি হবে? মন যা কর, ত্বরায় কর এ ভবে...

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।