টুশকি ৬

টুশকি [১] [২] [৩] [৪] [৫] [৭]

১. বিএমএ’তে প্রথম চার সপ্তাহ পর গেস্ট ডে’তে তানিমের গুল্লু গুল্লু চেহারা দেখে ওর আর্মি অফিসার আব্বার ঠোঁট উল্টানো মন্তব্য, “কি রে তোর গাল টাল তো একেবারেই ভাঙ্গে নাই। কি ট্রেনিং দেয় তোদের”?

২. আমাদের ক্লাসমেট অলমোস্ট সবাই বিয়ে করে ফেললেও একজন এখনও বিয়ে করছে না। তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে প্রথমেই বলে, “আমার সোনায় প্রবলেম আছে”। তারপর আস্তে করে বলে, “আজকাল স্বর্ণের যা দাম….”!!

৩. বিএমএ’তে তখন শ্রীলঙ্কান ক্যাডেটরা ট্রেনিং করত। কোন একদিন স্টাফ শ্রীলঙ্কান এক ক্যাডেটের সাথে ডিল করছেন। মধ্যখানে এক বাংলাদেশী ক্যাডেটের কি একটা কথায় স্টাফ গেলেন খেপে। রেগেমেগে বললেন, “আই টক – হি টক, হোয়াই ইউ মিডল টক”?

৪. বেসিক কম্যান্ডো কোর্সের অফিসিয়াল সমাপনীর পর একটা উড়াধুড়া ক্যাম্পফায়ার হচ্ছিল। আমার এক সিনিয়র কলিগ সেই ক্যাম্পফায়ারের আগুনের উপর দিয়ে বেশ কয়েকবার লাফিয়ে পার হয়ে যেয়ে বেমক্কা পাশের এক কাঁঠাল গাছের ডালে ঠ্যাং উপরের দিকে দিয়ে উল্টো হয়ে ঝুলে রইলেন। কারণ জিজ্ঞেস করতেই বললেন, “লাফালাফি কইরা মাথার রক্ত সব হাঁটুতে যায়া ঠেকছে। ওইগুলারে মাথায় ফেরত পাঠাচ্ছি”।

৫. এমবিবিএস পাশ করে যারা আর্মি মেডিক্যাল কোরে যোগদান করেন তারা আমাদের সাথে একটা শর্ট টার্ম ট্রেনিং করেন বিএমএ’তে। তাদের একটা গ্রুপ যখন আউটডোর এক্সারসাইজে মাটি কোপাকুপি করছে তখন তামাম গ্রামবাসী তার মুগ্ধ দর্শক। এর মধ্যে শোনা গেল এক বাচ্চা ছেলেকে তার বাবা বলছে, “শোন, ভালো কইরা লেখাপড়া কর। তা না হইলে এই রকম মাটি কোপায়া খাইতে হইবো”।

৬. আমার এক কলিগের খুব জরুরী একটা কাজে পাশের ইউনিটে কথা বলা দরকার। ফোন করতেই ওপাশে মহিলা অপারেটরকে বললেন, “আমাকে তাড়াতাড়ি ৯১১ নম্বরে লাগান তো”। সুমিষ্ট কন্ঠে সেই অপারেটর বলে উঠলেন, “নাম্বার কি লাগানো যায় স্যার? একটু ধরুন মিলিয়ে দিচ্ছি….”।

৭. বিএমএ’তে ডিগ্রী পাস কোর্সের বাংলা ক্লাসে জনৈক জেন্টলম্যান ক্যাডেটের ডাউট, “স্যার,’অন্ধকারে পিশাচের হামাগুড়ি’ – ব্যাপারটা ঠিক বুঝলাম না”। বাংলা ইন্সট্রাকটরের উত্তর, “বুঁজলানা? পিশাচ তো খারাপ …তাই না? আর অন্ধকারে হামাগুড়ি দেয়া তো আরও খারাপ…. বুঁজঝো না”? বেচারা ক্যাডেট যে কি বুঝছিল তা আমরা কেউ বুঝি নাই।

**********
পুনশ্চ: ৩, ৫ ও ৭ নম্বর ঘটনাগুলো বেশ অনেকটা দূরের সোর্স থেকে সংগৃহীত।

২,৮৮১ বার দেখা হয়েছে

২১ টি মন্তব্য : “টুশকি ৬”

  1. “আমাকে তাড়াতাড়ি ৯১১ নম্বরে লাগান তো”

    =)) =)) =))
    পুরা :gulli: ;;) :gulli: :-/

    বস দুইটা কাহিনী মনে পইড়া গেলো।
    ১.
    কমলাপুর রেল স্টেশনের পিছনে ওভার ব্রীজের গোড়ায় এক ফেরিওয়ালা সুই-সুতা বিক্রি করতেছিলো। পাশ দিয়া মহিলারা যাইতেছে আর ফেরিওয়ালা তাদের ডাকতেছে- আপা আসেন সুই, আপা আসেন ২ টাকায় সুই। 😮 😮
    ২.
    স্টেডিয়াম মার্কেটের নিচে খুব সস্তায় বিভিন্ন সিনেমার ডিভিডি পাওয়া যায়। ওইখানে একলোক আমির খানের 'লাগান'সিনেমার ডিভিডি বিক্রি করতেছে-
    এই, লাগান ২০ টাকা,লাগান ২০ টাকা। :grr: :grr:

    জবাব দিন
  2. কামরুল, তোমার তো ইডি ফরজে কাছাকাছি হয়ি গ্যাছে, রেডেট কথাবার্তা কও

    সায়েদ, ভাল হইছে,মন খারাপ থাকলে তোমার টুশকি পড়ি, মন ভাল করার বিরাট ওষুধ দিছ ব্লগে, গুড, কিপ ইট আপ

    জবাব দিন
  3. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    ২ নং টা পইড়া তো ইমোশনাল হয়ে গেলাম...!!!
    অমর (কেন যে মরে না...)এক রাজাকার রাজনীতিবিদের কথা মনে পড়ে গেল... :gulli:


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  4. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)

    @ তানভীর, নাজমুল, রবিন, বাহালুল, হাসনাইন,
    সবাইকে প্লেন্টি প্লেন্টি থ্যাংকস 😛 ।

    @ জুনায়েদ কবীর,
    লাইবেরিয়ান ইংরেজি মজাক করার জন্য মাথায় থাকা ভালো - এইটা আবার গুরুত্বপূর্ণ কোন জায়গায় দিয়া দিও না। দিলেই কিন্তু চিত্তির 😮 ।
    থ্যাংকস।

    @ কামরুল,
    ইডি লাইগা গেল কিন্তু 😉 ।
    তয় চিকনে বইলা রাখি দৈনন্দিন জীবনে আমরা এই শব্দটা কিন্তু অনেকগুলা কাজে ব্যবহার করে থাকি 😀 - সবই ভালো অর্থে।

    @ ফয়েজ ভাই,
    মন খারাপ হলেই 'টুশকি' পড়েন জানতে পেরে ভালো লাগছে - উৎসাহও পাচ্ছি।
    থ্যাংকস।

    @ ফৌজিয়ান,
    এইটা আমাদের তানিমই 😛 ।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  5. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    সায়েদ ভাই,এতক্ষন ভারী ভারী ছ্যাঁক খাওয়া আঁতেল টাইপ কমেন্টাইতে কমেন্টাইতে এইটা পইড়া মন এক্কেবারে ফিলিপ্স বাত্তির মত ফকফকা হয়া গেল 😀 😀 😀

    জবাব দিন
  6. তৌফিক (৯৬-০২)

    আমিও একটা ছাড়ি তাইলে।

    আমরা যখন ক্লাস নাইনে তখন এক নতুন জেপির জিগরে চোট লাগল- আমরা ক্লাস ইলেভেনরে সম্মান করি না। আমাদের ফল ইন কইরা সে বাংলায় কতোক্ষণ ঝাড়লেন। তারপর হঠাৎ ইংরেজি শুরু করলেন বেচারা...This is the prestige of....(দু'এক মুহূর্ত চুপচাপ) আমাদের। মনে হয় of এর পর গ্রামার মানা ইংরেজি শব্দ পান নাই।

    সায়েদ ভাই, আপনের এই সিরিজের হায়াৎ যেন আমার মাথার চুলের সমান হয়...আমিন, ছুম্মা আমিন।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।