জন্মদিনের অগ্রিম শুভেচ্ছা…

আর কিছুদিন পরেই আসছে ৩রা জুন।আমাদের ব্যাচের(৯৯-০৫) জন্মদিন।১৯৯৯ সালের এইদিনেই কতিপয় বালক ও কিছু বালিকা তাদের বাসা থেকে বিতাড়িত হয়েছিল।সেদিন তাদের মন ছিল কষ্টে ভারাক্রান্ত।চোখের কোণা ছিল জলে ভরা।সেদিন তাদের কান্নার ১০ম বছর পার হতে যাচ্ছে।এরই মধ্যে তাদের জীবন নদীতে বয়ে গেছে অনেক জল-ধারা।কিন্তু তাদের আবেগে একবিন্দু ও ঘোলা হয়নি এত বছর পরেও।সেদিন তারা জানতো না,বুঝতেও পারেনি কেউ যে, জীবনের সবচাইতে মজার সময়টা তারা কাটাতে যাচ্ছে।
আমার মনে আছে সেই সময়টা যখন আমার আব্বা বলেছিল যে ক্যাডেট কলেজে admission test
দিতে হবে।এইটা শুনেই আমার মন খুব খারাপ ছিল।বাসা ছেড়ে বাইরে থাকতে হবে এইতা শুইনাই তো আমার কান্দন থামে না।শুধু আম্মু-আব্বুর ইচ্ছায় test দিতে রাজি হইছিলাম তখন।ভাগ্যিস রাজি হইছিলাম!নাইতো তো যেই জিনিস মিস করতাম সেইটা সারা জীবন কানলেও তো পাইতাম না।
আমার কলেজে যাবার পিছনে যার অবদান সবচাইতে বেশি উনি হলেন আমার দুলাভাই।আমার বোনের ছেলে আমাদের কলেজে পড়ত।মামা তখন কুমিল্লা board থেকে মেধা তালিকায় ২য় হইছিল।কলেজ নাম ছিল মাহবুব(৯৩-৯৯)।আমার তখন খুব ইচ্ছা যে board এ স্ট্যাণ্ড করব।আমি আগে সারা জীবনে স্ট্যান্ড করতে দেখছি হাতে গনা কয়েকজন।আর একবার বোনের বাসায় গিয়াই একসাথে দেখলাম ১৯জন।আমি তো পুরা টাস্কি!!!!!
পরে মামার শেষ athelatics এ যখন কলেজ গেলাম কলেজ দেইখা বাকিটা কাইত।তখন লাগ্লাম আদাজল খাইয়া যে এইখানে আমারে টিকতেই হবে।নয়ত জীবন শেষ!
আজ দেখতে দেখতে নাকি ১০টি বছর চলে গেছে।হয়তো আরো যাবে।তবু অনুভূতি গুলো একটু ও বদলাবে না।আজ ও কলেজের কথা শুনলেই সজাগ হয়ে যাই।কলেজ নিয়ে বাইরের কেউ খারাপ কিছু বললে মনটা বিষিয়ে উঠে।ইচ্ছা হয় যেন কষে এক চড় লাগাই।
অনেক কিছুই লিখেছি।পরিশেষে শুধু বলতে চাই,
“জয়তু ক্যাডেট কলেজ।জয়তু ‘৯৯-০৫’ইনটেক”
‘৯৯-০৫’ এর সবাইকে জন্মদিনের অগ্রিম অভিনন্দন।

৩,৪৫০ বার দেখা হয়েছে

৪৯ টি মন্তব্য : “জন্মদিনের অগ্রিম শুভেচ্ছা…”

  1. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    ৯৯-০৫ ব্যাচের সবাইকে অগ্রীম শুভেচ্ছা... আমাদেরটাও চলে এসেছে, ৪ জুন।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  2. রাশেদ (৯৯-০৫)

    ভাবছিলাম কুমিল্লার পক্ষ থেকে আমিও লিখব 😛 যাই হোক আমরা আমরাই তো :hug:
    খান সাহেব তোর উইশ কিন্তু পূরন হইছিল 😀 তুই ভাই জিপিএ পাওয়া মানুষ 🙂
    ভাগ্যিস তুই ছিলি নাইলে কলেজে আমারে ক্যালকুলাস কে যে শিখাইত 😉
    ব্লগে বন্য, জুবুদের অনেকদিন দেখিনা, তাই তোরে নিয়মিত দেখে বড়োই সাম্প্রদায়িক ফিলিংস হচ্ছে B-)


    মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

    জবাব দিন
  3. বন্ধুরা

    আমি কাল ঢাকা ছেড়ে চলে যাবো-- ক্লাস শুরু হয়ে গেছে। এইবারো এইদিনটা পারলাম না তোদের সাথে কাটাতে। প্রথম দু'বার পেরেছিলাম।

    তোরা খুব ভালো থাকিস। আমি ওই কয়টা বছরকে দারুণ অনুভব করি বলেই প্রতিদিন এই সিসিবি'র সাথে থাকি-- সবার সাথে থেকে পুরোনো দিনের স্মৃতিচারণ করি...

    দোস্ত, আগাম এই আয়োজনের লেখাটার জন্য তোকে অনেক ধন্যবাদ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।