বৃষ্টি, সারস ও অন্যান্য

এইসব টুপটাপ বৃষ্টির রাতে,

সারস পাখির মত তোমার কাঁধে মাথা গুঁজতে সাধ হয়।

মাটির সোঁদা গন্ধ তখন তোমার-

পাঞ্জাবীর কলারে,

উৎসের খোঁজে-

প্রথমে তোমার গাল,

তারপর,

অ্যাডাম’স অ্যাপেল পেরিয়ে দেখা মেলে-

সব উপরের বোতাম দুটির।

 

ধরা পড়ে যাওয়া চাহনি নিয়ে

তোমার দিকে তাকাতেই-

আমার চিবুকে আলতো হাত রেখে বল,

“আর কবে আমি তোমার হবো?”

 

ঠিক তখনই বিদ্যুৎ খেলে যায়-

আমাদের আঙিনায়!

 

তোমার আঙ্গুল আমার চুলের মেঘে খোঁজে সখ্যতা-

কপাল ছুঁতেই অতীত উড়ে যায় বাষ্প হয়ে-

আলিঙ্গণে পাজরের ভেতর থেকে ভেসে আসা বজ্রনাদ-

তোমার ঠোঁটে এসরাজের সুর,

মেঘমল্লারের ঝংকার আমার নিঃশ্বাসে-

 

এরপর, একটু একটু করে বৃষ্টি ধরে এলে,

জানালায় গা এলিয়ে,

রংধনু বুনে যাওয়া-

বুনোফুলের ঘ্রাণে সুতীব্র আদিমতা,

ডানা ঝাপটিয়ে একটা পেঁচার ঘরে ফেরার শব্দ,

একটা-দুটো করে তারাদের জেগে ওঠা,

যেন-

তোমাতে-আমাতে মিলবে বলেই

প্রকৃতির এই এত আয়োজন-

বৃষ্টি,

ভেজা মাটি,

মেঘের চোখ রাঙানি,

বুনোফুল কিংবা তারার স্নিগ্ধতা, পেঁচার আশ্রয়,

আর জানালায় দুই মানব-মানবী…

-প্রেমের এক নিখুঁত ছবি!

 

 

এইসব টুপটাপ বৃষ্টির রাতে

রংধনু ছুঁতে বড় সাধ হয়!

জেগে থাকি আমি,

আর,

অনন্ত এই রাত।

বাইরে অবিরাম-

টিপটিপ টিপটিপ টিপ টিপ টিপটিপ…

 

 

 

২,৪২৫ বার দেখা হয়েছে

২২ টি মন্তব্য : “বৃষ্টি, সারস ও অন্যান্য”

  1. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    :clap: :clap: :clap:
    একটা বিশেষ আবেগঘন ক্ষণিকের ভাবনা রংধনু হয়ে আকাশে যেন পাখা মেলেছে। পাঠক সেদিকে তাকিয়ে তার সৌন্দর্যে বিমোহিত হবে নিঃসন্দেহে।
    কবিতার উপমাগুলো চমৎকার হয়েছে। প্রেমিক মনের আহ্বানে প্রকৃ্তির সাড়া দেয়ার আয়োজনের কথাগুলোও খুব সুন্দর করে বিবৃত হয়েছে।
    চমৎকার কবিতা।

    জবাব দিন
  2. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    কবিতাটা আসলেই অসাধারন।
    "পাঠ" করতে খুব ইচ্ছা হলো কিন্তু পরে মনে হলো, এটা নারী কন্ঠে অনেক বেশি উপযুক্ত।
    তাই এখানে পাঠ করা থেকে বিরত থাকলাম।

    তবে আশা করছি, যেভাবে যেভাবে ভেবেছি, সেভাবে সেভাবে তোমার বা অন্য কারো কন্ঠে একদিন শুনতে পারবো কবিতাটা।
    না পেলেও সমস্যা নাই কোনো, মনে মনে শুনতে তো আর কোনো বাঁধা নাই, তাই না?


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  3. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    আবৃত্তি ভাল হয়েছে।
    :clap: :clap: :clap:
    একটা মেঘমল্লার রাগ সহযোগে করতে পারলে দারুন হতো কিন্তু!!!
    এবার এটাতেই চলবে।
    ভবিষ্যতে ওটাও ট্রাই করে দেখো...
    🙂 🙂 🙂


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  4. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    ভালো লেগেছে তিশা।
    বৃষ্টির ধারা গড়িয়ে চলার মত --- তোমার পাঠও তাই।
    প্রেমের ছবিটি এঁকেছ বেশ যত্ন করে।

    কেবল 'সুতীব্র আদিমতা' কথাটা মনে ধরেনি খুব। মনে হচ্ছে 'সুতীব্র' শব্দটা ছাড়াই ইমোশন বোঝা যাচ্ছে।
    বানান ঃ ধরা পড়ে

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।