প্রেরণা

( কৈশোরের এক্সপেরিমেন্ট আবার নতুন করে করায় বেশ হালকা মেজাজের একটা ফলাফল দাঁড়ালো )

১. মরীচিকা…

মনের গোপন কোঠরে রাখা
রীবনে বাঁধা ইচ্ছেগুলো
চিৎকার করে বেরিয়ে আসে –
কালকের জমা কান্নাগুলোয়।

 

২. (কিন্তু) আঁধার,

আলোর জন্য আলোর খোঁজে
ধাবমান এক কালের মত –
রজনীও গিয়ে প্রভাতে মেশে।

 

৩. (সুতরাং) আবির্ভাবঃ

আগামীদিনের সুর শোন ওই
বিষণ্ণতার গানের মাঝে,
ভাবনাগুলোর দ্বার খুলে দাও –
বরণ কর জীবনটাকে।

 

৫৯০ বার দেখা হয়েছে

৯ টি মন্তব্য : “প্রেরণা”

  1. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    গত দুদিন ভাল ভাবে বুঝি নাই বলে কিছু লিখছিলাম না।
    এখন মনেহয় একটু একটু বুঝতে পারছি।
    লিখ তো সাবলিল ভাবেই, কিন্তু বুঝতে এত পরিশ্রম কেন দাও?


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  2. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    প্রথম দুটো অনবদ্য লেগেছে। একদম টানটান।
    সে তুলনায় শেষেরটা তেমন নাড়া দিতে পারলনা। সেটা মনে হয় -- এধরনের এক্সপ্রেশন বহুবার ব্যবহৃত হয়েছে বলে।
    লেখালেখি জারি থাক। একটা লম্বা গদ্য কবিতাই কি পেতে পারি না আমরা?
    এখানে যেন একটা গল্পের আভাস পাচ্ছি -- সেই গল্পের ধার ধরে ধরে একটা আস্ত কাহিনী-কবিতা।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।