সাংগঠনিক / প্রাতিষ্ঠানিক ব্যর্থতা – একটি অভিজ্ঞতা – পর্ব ১

এটি আমার চলমান জীবনের বাস্তব অভিজ্ঞতার শব্দরুপ মাত্র।

সম্পুর্ন কর্মজীবন এর সিংহভাগে সাংগঠনিক দক্ষতার পরিচয় দিয়ে, প্রথম মোড় যেদিন নিলাম, সেদিন অর্থ ও বানিজ্য বিষয়ক একটি উপ-দপ্তরের কাজ বুঝে নেবার দায়িত্ব পেলাম। আমাকে যারা নিজেদের প্রতিষ্ঠানে কাজ করার সুযোগ দিলেন, তারা ও ইতিপুর্বে আমার ই মতো একটি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন। যদিও তারা কেউই পুর্বতন প্রতিষ্ঠানে ১০ বছরের বেশী ছিলেন না, সেখানে ঐ একই ধরনের প্রতিষ্ঠানে আমার অভিজ্ঞতা ১৮ বছরের ও বেশী। গত এক বছর যাবত আমি যেখানে কাজ করছি এই প্রতিষ্ঠানটি একটি বেসরকারী সেবা খাতের অন্তর্ভুক্ত।

ঢেকি নাকি স্বর্গে গেলেও ধান ভানে। শোনা কথার বাস্তব প্রতিফলন পেলাম নিজের বেলায় ও। ক্রয় বিভাগে কাজ করলেও প্রশাসন ও মানব সম্পদ বিভাগের প্রতিটি কাজের যতটুকু চোখে পড়ে, তাতে ভালো দেখলে মনে মনে “শাবাস” দেই আর বেশীর ভাগ ই আমার থেকে মনে মনে “বাশ” পায়। অনেক গুলো কান্ড দেখে হাসতে হাসতে পেট ব্যথা হয়। বিখ্যাত কোন কোম্পানীর ঔষধ ও এ ব্যথা সারাতে পারবে না।

বিপনন বিভাগের সাথে পরিচালনা বিভাগের রেষারেষি, মানব সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত গোয়েন্দা প্রীতি, অর্থ বিভাগে ব্যবস্থাপক হীনতা – এ সব তো আমার চোখে দেখা। লোকে বলে ” যা দেখা যায় তার সবটা নাকি সত্য না “। দুর্জনের মুখে ছাই দিয়ে যদি এগোতে পারতাম, তাহলে এই কথার ছাপা টি শার্ট ঈদ উপহার নিতাম। কিন্তু কপালে না থাকলে কি আর করা। যা দেখলাম, তার সবটাই যখন সত্যি হয়, তখন আমার ঈদের ড্রেস এর কি হবে? হায় হায়, নাকি আয় হায়?

আসলে এই সংগঠন টা কে উন্নতির দ্বার থেকে যখন ই মুখ ফিরিয়ে নিতে দেখেছি তখন ই ঠিক করেছিলাম এ নিয়ে ভাবনা গুলো লিখে রাখবো। তাই আজ শুরু করলাম – ধারাবাহিক ভবে লেখবো। ভালো হোক বা খারাপ, ফিডব্যাক পেলে ভালো লাগবে। আজকে বিষয় এর অবতারনা করে দ্বিতীয় পর্বে আরো বিশদ ঘটনাপুঞ্জী ও ব্যখ্যায় যাবার চেষ্টা করবো।

ততক্ষন সবাই ভালো থাকবেন, এই প্রত্যাশায়

৯১২ বার দেখা হয়েছে

১৮ টি মন্তব্য : “সাংগঠনিক / প্রাতিষ্ঠানিক ব্যর্থতা – একটি অভিজ্ঞতা – পর্ব ১”

  1. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    ইয়ে মানে রফিক ভাই কি বিসিএস কর্মকর্তা নাকি? আমি ২৮ তম বিসিএস দিছি,এখনো পর্যন্ত কম্পিটিশনে টিকা আছি :shy: :shy: আমারে তাইলে একটু টিপস দিয়েন বস :shy: :shy:

    জবাব দিন
  2. তানভীর (৯৪-০০)

    ভাইয়া, আপনার সব ধরণের আমাদের সাথে শেয়ার করবেন প্লিজ। এই ব্লগের আমাদের সবার অনেক কাজে আসবে বলে আমার বিশ্বাস।

    আপনার পরের পর্বের অপেক্ষায় রইলাম। 🙂

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।