শুভ নববর্ষ।

শুরুতেই সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাই।শুভ নববর্ষ !

এই শুভেচ্ছা সম্বোধনটা যদিও আমাদের জন্যে অপেক্ষাকৃত নতুন। গত দশ পনের বছর ধরে এর চল।

এর একটা অত্যন্ত সুন্দর দিক আছে, আবার ওপিঠে কিছু দিক আছে, যা ভাবনার অবকাশ রাখে।

একদম ছোট্ট বেলায়, মনে পরে গ্রীষ্মের ছুটিতে যখন গ্রামে বেরাতে যেতাম, তখন একটা নতুন, মজার জিনিস উপভোগ করতাম। “হালখাতা”!

হালখাতা অর্থ যাই হোক, ব্যাপারটা অনেক মজার ছিল। প্রতিটি দোকানে গেলেই মিষ্টি দিত। কড়া পাকের রসগোল্লা ! সাথে নিমকি। ইস সারা দিন আমরা ছোটরা দল বেঁধে দোকানে দোকানে ঘুরে মিষ্টি খেতাম।

অনেক ঘুরে নিজেদের ‘গদি ঘরে’ ক্লান্ত হয়ে যখন যেতাম, চিত্ত কাকা, শিতেষ দাদা আদর করে কোলে নিয়ে পাটাতনের উপর বিছানো নরম তোষকের উপর বসতে দিতেন। এর থেকেই সম্ভবত ব্যবসায়িক প্রথিশ্ঠআনের নাম ‘গদি ঘর’ বলা হত।

চিত্ত কাকাই আমাদের টার্গেট। ওর কাছেই থাকতো কাঠের ক্যশ বাক্সটা ! এবং পেছনে লোহার সিন্দুক। সিন্দুকের প্রয়োজন আমাদের হতনা, কাঠের বাক্স খুলে আমাদের দাদু ভাইকে না জানিয়ে আনা-আধুলি পেলেই আমরা বর্তে যেতাম।

এর পরের বায়না ,মেলায় নিয়ে যেতে হবে। চাচাত ভাই আমার চেয়ে দেড় বছরের বড়। তাই শিতেষ দা’র উপর দাদুর হুকুম, আমাকে কাঁধে করে মেলা ঘুরিয়ে আনতে। কোন বাজে জিনিষ যেন খেতে না পারে আর কোন নগড়দোলায় যেন চড়তে না পারে , দেখো !

একশ গজ পেরুলেই এই আদেশ আর মনেই থাকতনা। বলবত করাতো দুরের কথা।

শিতেষ’দার চিল্লানী উপেক্ষা করে, চিত্ত কাকার দেয়া পয়সা দিয়ে, একগাদা চিনির বাতাসা, মঠ, বিন্নি ধানের খই, গজা খেতে খেতে মেলা দেখতে থাকতাম।  নগরদোলায় চড়াতো আছেই।

এই ছিল হাল খাতার দিনটি। হালখাতা অর্থ অনেক পরে জেনেছি। অর্থ নতুন খাতা খোলা !! ব্যবসায়ীদের গত বছরের বাকি টাকা পরিশোধ করে, বছরের শুরুতে নতুন খাতায় নাম লিখানোর দিনটিই ছিল “হালখাতা’র দিন”।

এতে শুভ নববর্ষ বলে একে অপরকে অভিনন্দন কক্ষনোই গোচরিভুত হয়নি। পান্তা-ইলিশ, মুখোশ, রেল্যিতো নয়ই !

তবে এই নতুন সামাজিক রীতি গুলিরও একটা সুন্দর দিক আছে। শেকড়ের সন্ধান !

প্রতিটি জাতির একটা নিজেস্ব সংস্কৃতি আছে। এবং সেটা প্রদর্শন করার অধিকার তারা সংরক্ষণ করেন।

তবে কিছু বিষয়ের প্রতি লক্ষ রাখতে হবে, তা হল, এই রীতি-নীতি গুলির যেন বানিজ্যিকিকরন না হয়। এবং দৃষ্টি রাখতে হবে যেন যথা সম্ভব ধর্মীয় অনুভুতি গুলির সাথে সাংঘর্শিক না হয়।

শুভ নববর্ষ সকলকে!

 

 

৪৩৬ বার দেখা হয়েছে

১০ টি মন্তব্য : “শুভ নববর্ষ।”

  1. রাব্বী (৯২-৯৮)

    শুভ নববর্ষ আজিজ ভাই!

    আপনার শৈশবের নববর্ষ খুব সুন্দর। শহুরে নববর্ষের উৎসব আমেজটাও ভালই লাগে। তবে এখন সব দিবসই বানিজ্যিক।


    আমার বন্ধুয়া বিহনে

    জবাব দিন
    • আজিজুল (১৯৭২-১৯৭৮)

      বাণিজ্যিক হলেও আমার এজন্যে এত আক্ষেপ নেই। কারন প্রতিটি জাতির নিজেস্ব কিছু স্বকীয়তা, অহংকারের কিছু আনন্দ-উৎসব, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড অবশ্যই থাকা প্রয়োজন। এতে এক আধ দিনের জন্যে অল্প বান্যিজিক মিশ্রণ এমন দূষণীয় কিছু নয় বলে আমার অভিমত।
      নববর্ষের শুভেচ্ছা রইল।


      Smile n live, help let others do!

      জবাব দিন
  2. শরিফ (০৩-০৯)

    পর্বত চূড়ার পিছনে সূর্যোদয়ের মতো
    নতুন আশার আলোয় শুরু হোক আমাদের দিনগুলো

    __সাফল্য, আনন্দ, আর প্রশান্তিতে
    ভরে উঠুক আপনার জীবন, আমাদের জীবন __

    সাথে থাকুক জীবনমুখী গান, ভালবাসা আর কবিতা
    শুভ নববর্ষ ভাইয়া । (সম্পাদিত)

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।