ভালোবাসার ঋণগ্রস্থ এক আমি…

সিসিবি পরিবারের সবাইকে অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাই আমাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানোর জন্য। জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে গতকাল মাস্ফু আমাকে ফোন করেছিল। ওর সাথে আমার পরিচয় হবার পর থেকে বিভিন্ন উপলক্ষে বা যে কোন পার্বনে আমাকে ফোন করতে ওর ভূল হয়না। আমি নিজেও জানতাম যে মাস্ফু আমাকে এই দিনটিতে ফোন করবেই। ফোনে কথা শেষ করার ঠিক আগে অন্য সব সময়ের মতই ও বলেছিল, “সিসিবি’তে ঘুড়ে যেয়েন।” আমি তখনো বুঝিনি যে এই ছেলেটা আমার জন্য এরকম একটা সারপ্রাইজ রেখেছে ব্লগে। সত্যি বলছি, আমাকে নিয়ে কেউ যে ব্লগ লিখতে পারে, তা-ই বিশ্বাস হয়না আর মস্ফুর লেখা “কমান্ডো কথন” তো আমার জন্য এক বিস্ময়।

মাস্ফু ছেলেটা কেন যেন আমার প্রতি সব সময়ই একটু তরল। হয়তো কোন কোন ক্ষেত্রে একটু পক্ষপাতদুষ্টও। ওর সবচেয়ে বড় গুণ হচ্ছে, শিশু সুলভ আচরণ দিয়ে সবার মন জয় করে নেয়। যে কাউকে অকুন্ঠ প্রশংসা করে তাকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলতেও ছেলেটার জুড়ি নেই। আর এভাবেই সিসিবি’তে আমাকে আত্মপ্রকাশের ক্ষেত্রে একটা বড় ভূমিকা রেখেছে মাস্ফু।

মাস্ফুর লেখাটা গত কালই আমি আর মিশকাত (আমার অর্ধাঙ্গিনী) মিলে একত্রে পড়েছি। লেখাটা এবং মন্তব্যগুলো পড়ে শেষ করার পরে সিসিবি পরিবারের নতুন সদস্য (আমার স্ত্রী হিসেবে) আমার দিকে অনেক টা ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে ছিল। হয়তো গতকালই সে প্রথম জেনেছে অকৃত্রিম ভালোবাসা কাকে বলে।

লেখাটি আমি নিজে অনেক বার পড়েছি। সবার প্রতিটি মন্তব্যও অনেক বার করে পড়েছি। লাবলু ভাইয়ের মত এত বড় মাপের একজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি, ফয়েজ ভাই’র মত এত মায়াবী বড় ভাই, বন্ধুবর আহমেদ কিংবা ওয়াহিদা আপু’র কাছ থেকে পাওয়া জন্মদিনের শুভেচ্ছা গুলো আমাকে আবেগাপ্লুত করেছে। আর ছোট ভাই-বোনগুলির কথা নাইবা বললাম। ওরা অনেক দুষ্ট…কারণ, এই দুষ্টের দল কাল অনেক বার আমার চোখ ভিজিয়েছে।

মাঝে মাঝে জীবনের মানে খুঁজে পাইনা। বেঁচে থাকাটাকে অর্থহীন মনে হয়। “এ জীবন রেখে আর কি হবে” -ও যে কখনো ভাবিনি তা না। তবে গতকাল যখন আমার জন্মদিনে উপহার হিসেবে মাস্ফুর এমন ইমোশনাল একটা ব্লগ পেয়েছি, মুঠো ফোনে সুদুর সাত সমুদ্র তের নদী দূরে থাকা দিহানের (দিহান অনেক সংগ্রামের পর ওকে আমার সম্বোধন “দিহান ভাবী” থেকে “দিহান আপু” সেখান থেকে “ছোট আপু” এবং সবশেষে “দিহান” এ নামিয়ে আনতে পেরেছে) কন্ঠে “হ্যালো ভাইয়া শুভ জন্মদিন” শুনেছি, বন্ধু সেলিনার শুভেচ্ছা, আর ছোট ছোট ভাই বোনগুলির এত এত শুভেচ্ছা পেয়েছি, তখন মনে হয়েছে – “এ জীবনের অনেক মানে আছে… জীবনটা অনেক সুন্দর এবং রঙ্গীন। এই অকৃত্রিম ভালোবাসার লোভেই জীবনটাকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে…যত বেশী দিন সম্ভব।” আমার জন্মদিনটি আরেকটু বেশী স্পেশাল করেছে মাস্ফু’র আরেকটি উপহার। আশু পেশাগত জীবনের ভবিষ্যত পরিকল্পনার যে ওয়াদা মাস্ফু আমাকে উপহার দিয়েছে তার সাথে অন্য আর কোন উপহারের তুলনা হয়না।

ফেসবুকে মাস্ফু আমাকে বলেছিল সিসিবিতে এসে যেন আমি একবার দেখে যাই যে কত ভাই-বোনেরা আমাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে। ওর এই মেসেজ পাওয়ার আগেই আমি লেখাটি এবং মন্তব্যগূলো বেশ কয়েকবার পড়ে ফেলেছিলাম। অনেক বার মন্তব্য লিখতে চেয়েছি…কিন্তু পারিনি। প্রতিবার ই থেমে গেছি। এমন কি এখন যে লেখাটি আপনারা পড়ছেন সেটিও আমি মন্তব্য হিসেবেই শুরু করেছিলাম। কিন্তু দশটি আঙ্গুল আর একটি কি-বোর্ড এর সম্মিলনে এই অকৃত্রিম ভালোবাসার সমুচিত জবাব দেয়ার মত কোন শব্দ তৈরী করতে পারিনি। এই ভালোবাসার কোন প্রতিদান হয়না। এমনকি কৃতজ্ঞতার বহিঃপ্রকাশ করতেও মনে হয় আমার এই লেখাটি অনেক কম। তবে বুকের মাঝে অনেক সযতনে রেখে দিয়েছি এই ভালবাসার মানুষগুলোকে।

ভালোবসার ঋণ কখনো শোধ করা যায়না। জানি, আমিও পারবোনা। তবে পারা গেলেও আমি কখনো এই ঋণ শোধ করার চেষ্টা করতাম না। সারাজীবন সিসিবি পরিবারের কাছে এই একটা বিষয়ে আমি ঋণগ্রস্থ-ই থাকতে চাই।

১,৬০৩ বার দেখা হয়েছে

১৫ টি মন্তব্য : “ভালোবাসার ঋণগ্রস্থ এক আমি…”

  1. সার আপনি কি জানেন আপনার কমান্ডো স্টুডেন্ট রা আপনাকে কতটা পছন্দ করে ? কমান্ডো কোর্সের ডি এস কে পছন্দ করার কোনো কারণ নেই বলেই আমার ধারণা ছিল ,আপনি বা মেজর সাইফ সার এর সান্নিধ্যে না এলে আমার এই ধারণা আজীবন থাকত.আল্লাহ আপনাকে অনেক সন্মানিত করুন. আর একটা দাবি ১৫/২০ বছর পর যখন কাধ দুটো অনেক ভারী হবে তখনও এমন ই থাকবেন.

    জবাব দিন
  2. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    এই অকৃত্রিম ভালোবাসার লোভেই জীবনটাকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে…যত বেশী দিন সম্ভব
    x-( একশ বছর হইতেছে মিনিমাম লিমিট,উপরে যত যাওয়া যায়।এর আগে পরপারে যাওয়ার চেষ্টা করে দেইখেন :duel: আমাদের সেই ওল্ড হোমের কথা মনে আছে ভাইয়া যেখানে আমরা সব এক্স ক্যাডেটরা বুড়ো বয়েসে একসাথে থাকব আর আপনি সেইটার সিও হবেন??

    জন্মদিনে আবারো অনেক অনেক শুভেচ্ছা আহসান ভাই।আপনার মত মানুষেরা শঠতায় ভরা এই পৃথিবীকে কিছুটা হলেও পূর্ণতা দেয়।ভাবীসহ সবগুলো জন্মদিন অনেক অনেক মজা করে পালন করবেন এই আশা করি :guitar:

    জবাব দিন
  3. শাহেদ_৯৭-০৩

    আহসান ভাই মানুষ্টারে বড় ভালা পাই আমি...তবে উনার বিরুদ্ধে কমপ্লেইন আসে...আমরা তিনজন নামক পোষ্টের শেষে উনি "চলবে" বইলাও পোষ্টা চলে নাই...

    যাই হোক...শুভেচ্ছা রইল...ভাবীকে সালাম...

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।