টুশকি ১৭

টুশকি [১] [২] [৩] [৪] [৫] [৬] [৭] [৮] [৯] [১০] [১১] [১২] [১৩] [১৪] [১৫] [১৬] [১৮]

১. টিভিতে টিপু সুলতান হচ্ছে। বাসার আবালবৃদ্ধবণিতা একত্রে বসে গভীর মনোযোগে দেখছে। টিপু সুলতান এক পর্যায়ে স্ত্রীর কাঁধে হাত রেখে বেশ অন্তরঙ্গ হয়ে কি একটা কাজের কথা বলছেন। দর্শকদের মধ্যে কেউ একজন ব্যাপারটা বুঝতে না পেরে জিজ্ঞেস করল, “এখন কি হবে”? সেটা শুনে এক পিচ্চি পুট করে বলে উঠল, “কি আর হবে? শোবে”।

২. বন্ধুর ছয় বছর বয়সী ছোট ভাই বলল, “নাপিতের কাছে চুল কাটতে হবে”। তা শুনে বন্ধুর বাবা বললেন, “উঁহু, ‘নাপিত’ না – ‘বারবার’ (Barbar) বল”। তখন ছোট ভাই শুরু করল, “নাপিত, নাপিত, নাপিত, নাপিত…….”।

৩. বিএমএ’তে ফ্রগজাম্প হচ্ছে। কোমরের পরিবর্তে দুই হাত একত্রে একান্ত ব্যক্তিগত স্থানে সন্নিবেশিত। প্রতি লাফের সাথে চলছে স্লোগান,
“আহ্ কি মজা োলস ধরেছি,
আহ্ কি মজা োলস ধরেছি”।

৪. সিনিয়র এক কলিগের ফোন রিসিভ করে বোনদের সামনেই কথা বলা শুরু করলাম। দেখি আমাকে ইশারা করে দুজন দুজনকে খুঁচিয়ে হাসতে হাসতে কুটিপাটি হচ্ছে। কারণ? কারণ আমি নাকি মিনিটে মাত্র ২২ বার “স্যার” বলেছি 😛 !!

৫. পানিতে ডাইভ দেয়ার সময় যাতে নাকে পানি না ঢোকে সেজন্য এক হাতে নাক চেপে ধরতে হতো, আর যাতে দু পায়ের ফাঁকে পানির বেমক্কা থ্রাস্ট না লাগে সেজন্য আরেক হাতে সেই জায়গা সংরক্ষণ করতে হতো। কাপ্তাই নেভাল বেসে এইরকমই একটা ট্রেনিং এর সময় স্টাফের সতর্কবাণী, “সাহেব, পরিবার সাবধানে রাইখেন”।

৬. এমআইএসটি’র এক জুনিয়র কলিগকে ফোনে জিজ্ঞেস করলাম, “ইঞ্জিনিয়ারিং করতেছ, রুমে কম্পিউটার আছে”?
“হ্যাঁ স্যার আছে” তার গর্বিত উত্তর।
জিজ্ঞেস করলাম “কি কম্পিউটার”?
উত্তর এলো, “XP কম্পিউটার স্যার”।
খানিকটা থমকে যেয়ে আবার জিজ্ঞেস করলাম, “এটা তো অপারেটিং সফটওয়্যারের নাম বললা। তোমারে মেশিনের কনফিগারেশন কি”?
একটু ইতস্ততভাবে জবাব এলো, “দাঁড়ান স্যার দেখে বলি। উম্-ম্– স্যার এটা Samsung কম্পিউটার”।

৭. আমরা বিএমএ’র স্টাফদের কথা গায়েই লাগাই না কিন্তু বাকি সবার কথা বাতাসের আগে দৌড়ে পালন করি। এরকমই কি একটা কারণে স্টাফ খুব খেপে গিয়ে বলছেন, “পছন্দ হয় না – না? আমারটা পছন্দ হয় না। উনারটা বেশি বড় – তাই না? আইসেন, বিকেল বেলা ইডি’র সময় ভা-লো কইরা তেল দিয়ে আইসেন। দেখবোনে……”।

*************

৬ নম্বর গল্পটা এর আগে মন্তব্য আকারে শেয়ার করেছি।

৫,৫৫৫ বার দেখা হয়েছে

৫৯ টি মন্তব্য : “টুশকি ১৭”

  1. সামি হক (৯০-৯৬)

    টিপু সুলতানে একটা এপিসোডে দেখায়ছিল যে হায়দার আলীর বউ বেশ আবেগ ভরা কন্ঠে বলতেছে 'হায়দার, আহ হায়দার' আমরা সেই ডায়লোগ শুনে তার সাথে আরো আহা উহু লাগায়ে (তা তখন পুরা গুপ্ত সাহেবের বইয়ের ডায়লগ হয়ে যেতো) আমাদের ব্যাচের হায়দারকে টিজ করতাম। হায়দারের কথা মনে পড়ে গেলো আমাদের বন্ধুটা বড় অকালে চলে গেছে।

    জবাব দিন
  2. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)
    সেটা শুনে এক পিচ্চি পুট করে বলে উঠল, “কি আর হবে? শোবে”।
    আহ্ কি মজা োলস ধরেছি
    সাহেব, পরিবার সাবধানে রাইখেন
    আমারটা পছন্দ হয় না। উনারটা বেশি বড় - তাই না? আইসেন, বিকেল বেলা ইডি’র সময় ভা-লো কইরা তেল দিয়ে আইসেন। দেখবোনে……

    :)) :)) =)) =)) :goragori: :goragori: :khekz: :khekz: :awesome: :awesome: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :hatsoff: :hatsoff:


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন
  3. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    ইয়ে মানে সায়েদ ভাই,৫০ লংকোর্সের মোশাররফ ভাই একবার আমাদের প্লাটুনকে(সম্ভবত ১৭ জনের) প্যারেড স্টেট দিতে বলেছিলেন এভাবে-অন প্যারেড ৩৪ ব*লস,১৭ ক*কস

    বি দ্রঃশালীনতার সীমা লঙ্ঘনের জন্যে ক্ষমাপ্রার্থী 🙁

    জবাব দিন
  4. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)
    “কি আর হবে? শোবে”।

    =))

    “আহ্ কি মজা োলস ধরেছি,
    আহ্ কি মজা োলস ধরেছি”।

    :)) :))

    “পছন্দ হয় না - না? আমারটা পছন্দ হয় না। উনারটা বেশি বড় - তাই না? আইসেন, বিকেল বেলা ইডি’র সময় ভা-লো কইরা তেল দিয়ে আইসেন। দেখবোনে……”।

    :goragori: :goragori:

    “সাহেব, পরিবার সাবধানে রাইখেন”।

    :gulli2: :gulli2: পরিবার নিরাপদে রাখুন :thumbup:

    যথারীতি আরেকখান হিট টুশকি :hatsoff: :hatsoff:


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  5. রায়হান আবীর (৯৯-০৫)

    সচলের সন্ন্যাসীদা'রে তো চিনেন। হের পোস্টে আমি কি কমেন্ট করুম বুঝে পাইনা।

    আপনার টুশকিগুলাতেও একই অবস্থা।

    সায়েদ ভাই, দীর্ঘজীবি হোক। টুশকি হাজার পর্ব হোক। এই কামনায় 🙂

    জবাব দিন
  6. রহমান (৯২-৯৮)

    দোস্ত, তোর টুশকি পড়ে বিএমএ র একটা ঘটনা মনে পড়ে গেল। প্রথম যেদিন আমাদের কোর্স কে টাওয়ার থেকে র‌্যাপলিং শেখানো হচ্ছিল তখন টাওয়ারের উপরে ষ্টাফ সবার কোমড়ের দড়িতে স্ন্যাপ রিং পরিয়ে দিচ্ছিল আর নিচে প্লাটুন কমান্ডার দাড়িয়ে দেখছিলেন। আমাদের প্লাটুনের একজন ক্যাডেট ছিল খুব ভীতু। হাইট ফোবিয়া খুব বেশি। ওর কোমরে রশি বাঁধার সময় শুরু হলো ওর কাপাকাপি। নিচ থেকে প্লাটুন কমান্ডার তা দেখে প্রচন্ড রেগে চিৎকার করে উঠলেনঃ "ােন নাট, টেল ইউর জিসি নাম্বার এন্ড ইউ আর রেডি ফর জাম্প, দ্যান জাষ্ট গিভ জাম্প" প্লাটুন কমান্ডারের এই বকা খেয়ে তাড়াহুড়া করে ও বলে বসলঃ
    "জিসি নাম্বার-****, জাম্প ফর রেডি স্যার"
    সেই থেকে ওর নাম হয়ে গেল "জাম্প ফর রেডি স্যার"
    (বিঃ দ্রঃ জিসি নাম্বার বললে অনেক দুষ্টু ক্যাডেটরা বের করে ফেলবে এই ব্যক্তিটি কে?)

    জবাব দিন
  7. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    :khekz: :khekz: :khekz: :khekz: :khekz:
    ৩ নম্বরটা পইড়া "ফুল মেটাল জ্যাকেট" সিনেমাটার কথা মনে পইড়া গেল। সিনেমার প্রথম এক ঘণ্টা সৈনিকদের ট্রেনিং পর্ব দেখাইছিল, ভিয়েতনাম যুদ্ধের প্রাক্কালে। ট্রেনিং এর সময়কার কিছু গান ছিল, শুনলে হাসুম না কাঁদুম বোঝার উপায় থাকে না। যৌন সুঁড়সুঁড়িমূলক কিছু বাক্য মিলায়া অতীব মজাদার কিছু গান বোধহয় স্টাফ আগে থেকেই মুখস্থ কইরা রাখছিলেন।

    জবাব দিন
  8. টিটো রহমান (৯৪-০০)

    যথারীতি
    :awesome: :awesome: :awesome: :awesome: :awesome: :awesome:
    :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski:
    :hatsoff: :hatsoff: :hatsoff:


    আপনারে আমি খুঁজিয়া বেড়াই

    জবাব দিন
  9. রাজীউর রহমান (১৯৯৯ - ২০০৫)
    কারণ আমি নাকি মিনিটে মাত্র ২২ বার “স্যার” বলেছি 😛

    অনেক ভাল ভাই, আমরা একবার হলের ক্যান্টিনে বসে আড্ডা দিচ্ছিলাম । হটাৎ বন্ধু ফোন রিসিভ করে দাড়িয়ে গেল । ইশারায় সবাইকে চুপ করতে বললো। আম্রা তো অবাক। স্যার ...স্যার ...স্যার ...স্যার ...স্যার ...

    স্যারের সাথে কথা বলা শেষ হইলে বলে দোস্ত ফোন করছিল । 😀

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।