পেশকি-২

আমরা যখন ISSB দিচ্ছিলাম তখন পকক এর একজন ছিল যার হাত খুলে যেত! রসিকতা না সত্যি তার শোল্ডার ডিসলোকেট হয়ে যেত। ISSB এর অবস্ট্যাকল করার সময় বেচারার হাত খুলে গেল; সবাই মহা চিন্তায় এখন কি হবে? কিছুই হয় নি এমন ভাবে সে বলল, “স্যার, পাশের গ্রাউন্ডে আমার রুম মেট আছে, ওকে ডাকুন একমাত্র ওই পারে আমার হাত জোরা লাগাতে!”
**********
আমাদের ক্লাসমেট জামাল, নভিসেস পার‌্যেড এর আগে খুব সিরিয়াস তাকে বেস্ট টার্নাউট ক্যাডেট হতে হবে। বুট পালিশ ভাল হয় ওয়াটার পালিশ করলে এটা তার জানা ছিল, জানতোনা সে কিভাবে করে এই ওয়াটার পালিশ। বড় এক বালতিতে ডিটারজেন গুলালো, তার পর তাতে তার বুট ডুবিয়ে রাখল। ক্লাস ৮ এর রুম লিডার বালতি দেখে জামালকে যখন জিজ্ঞেস করল কি ওটা, তার সরল উত্তর, “ভাইয়া, জুতা ডুবাইছি, ওয়াটার পালিশ করব!”
***************
এত ক্লাস ৭ এর কথা, দ্বাদশ শ্রেনীতে দেখলাম জুতা পালিশের নতুন বিরম্বনা! তিন তলার হাউসের সবাই উতকন্ঠায়, ক্লাস ৭ এর এক ক্যাডেট বারান্দায় রেলিং এ দারিয়ে, ঝাপ দিয়ে আত্মহত্মা করবে। কেন কেন ? কি কারন? এই ছেলের কি এত কস্ট জানতে চাইলে সে বলে,” কাল প্রিন্সিপালস প্যারেড, আমার জুতা ঠিক মত পালিশ হচ্ছেনা, এই জীবন আমি আর রাখবনা ভাইয়া…………………………”
****************
আমার এক ক্লাসমেত সবসময় আফটারনুন প্রেপ এ নাসিমা বানুর লেখা ইয়া মোটা এক জ়ীব বিজ্ঞান বই প্রায় সবদিন নিয়ে যেত। কৌতুহল, কেন শালা এই বই নেয় প্রতিদিন? তার উত্তর শুনে আমি অবাক, ” বই এর পাতাগুলা খুব নরম এর উপর মাথা রাইখা ঘুমাইতে নাকি খুব মজা!”
*****************
নাসিমা বানুর এই বই এর আরো অনেক ব্যবহার ছিল যা আমি আরো পরে বুঝেছিলাম! বিশেষত বই এর শেষের দিকের মানব প্রজনন বিষয়ক আলোচনা সমুহ। কেউ কেউ তা পরে এতই পেকে গিয়েছিল যে ক্লাসের কার কার বিশেষ অঙ্গের আকার কেমন হবে তা নিয়ে আলোচনা শুরু করে দিল। ক্লাসের গোবেচারা, সবচেয়ে মোটা ছেলেকে বলে বসল ‘তোর শিশ্ন কলাগাছের মত’। আর যায় কই সে, সোজা স্যারের কাছে…স্যার অরা বলে আমার শি… কলাগাছের মত। স্যার সানাউল হক স কে শ আর শ কে স বলে তার অবাক প্রশ্ন ,’ সিস্ন কি?’ নালিশ দিতে এসে মহা বিপদ, কারন এই শব্দের সঠিক অর্থ তারো জানা নেই। আমি জানিনা স্যার, খারাপ কিছু হবে ওরা বায়লজি বইয়ে পেয়েছে। স্যার চললেন বায়লজি বই খুজতে আমরা অপেক্ষায়, শব্দটার স্বচিত্র, শব্দার্থ দেখে স্যারের অবস্থা বুঝতেই পারছেন।
*****************
সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষক জনসংখ্যা বিস্ফোরন এর কারন পরাচ্ছিলেন,এর মধ্যে একটা কারন ছিল বিনোদনের অভাব। ত্যাদড় এক ছাত্র বুঝতে পেরেও প্রশ্ন করে বসলো, স্যার বিনোদনের অভাবে জনসংখ্যা বিস্ফোরন হয় কিভাবে? স্যার ক্ষেপে বললেন, “বুঝলানা ব্যাডা বেডীর চাপে ফাইট্টা বিস্ফোরন হয়।” ত্যাদড় তখনো নাছোর বান্দা, ” কি ফাটে স্যার?” “বেয়াদপ ছেলে” , স্যার বললেন,” বোঝোনা, সেক্স বম ফাটে!”
*******************
পরা লেখার কথা দিয়েই আজকের পেশকি শেষ করি। এইচ এস সি তে পাঠ্য এক ইংরেজী কবিতা ছিলো “The Passionate Shepherd To His Love”। প্যাশনেট মানে পেটে আসে কিন্তু মুখে আসছেনা, প্রায় ৫qu পরিমান ডজার হওয়ার কারনে কোন ডিকশনারী দেখতে ইচ্ছা করছিলোনা। অবশেষে এক ইংলিশ নোট বই বের করলাম, যে অর্থ দেখলাম তাতে মনে হলো কবিতার লেখক এই অর্থ দেখলে আবার মারা যাবে। “প্যাশনেট শেফার্ড টু হিস লাভ” নোট বইয়ে এর অর্থ লেখা হয়েছে ” কামাতুর মেষপালক তার প্রেমিকার প্রতি” , হায় খোদা !!

ভাবতেছি কেউ যদি বলে , “cricket is my passion” এর অনুবাদ তারা কি বানাবে?………।

৪,৩৬৯ বার দেখা হয়েছে

৬১ টি মন্তব্য : “পেশকি-২”

  1. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    :)) :)) :))

    (শুধু তিন তলা থেকে লাফ দিয়ে চাওয়া পোলার কাহিনি দিয়ে আলাদা সিরিজ করা যাবে )


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  2. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)

    ভাল্লাগ্লো দোস্ত ...।

    ৫qu পরিমান ডজার হওয়ার কারনে কোন ডিকশনারী দেখতে ইচ্ছা করছিলোনা।

    তুই তো তাইলে বিশাল ডজার। আমি তো ভাবসিলাম ডজিং এর একক qu ব্যাপারটা অই ফ্যারাডের মতন। মাইক্রো ফ্যারাডে বা পিকো ফ্যারাডে লেভেল যন্ত্রপাতির শুধু বাস্তবে বহুল ব্যবহার আছে, কিন্তু ১ বা ২ ফ্যারাডে লেভেলের জিনিস্পাতি দেখা যায় না। তেমনি কাইয়ুমের প্রতি সন্মান দেখিয়ে ডজিং এর একক qu রাখা হয়েছে। এই যেমন, তুই বা মোসাদ্দেক ভাই, যদ্দুর মনে হচ্ছে, পিকো লেভেলের ডজার। কামরুল, রবিন, তানভীর - এরা মাইক্রো লেভেলের ডজার। টিটো, রকিব, শার্লী, আদনান- এরা সেমি লেভেলের ডজার। এই রকম আর কি --- ১ qu লেভেলের ডজার শুধুই দোস্ত কাইয়ুম।

    জবাব দিন
  3. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)

    তোর কমেন্টের একটা কথা মনে ধরছে,

    জীবনে আনন্দের দিন গুলা শেষ হয়ে যাচ্ছে

    একদম খাঁটি কথা।

    এই ব্যাপারগুলা আমার আড্ডায় না বসলে মনে আসে না। আর এখন, এখানে সেটার বড়ই অভাব। তুই চালায়া যা.......আমার কিছু মনে আসে কিনা দেখি 😀 😀 😛 😛 ।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  4. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    প্রায় ৫qu পরিমান ডজার হওয়ার কারনে কোন ডিকশনারী দেখতে ইচ্ছা করছিলোনা।

    এ ব্যাপারে জনাব কাইয়ুম মহাশয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি-উনার মন্তব্য শুনতে মঞ্চায় :-B :-B

    জবাব দিন
  5. ওয়াহিদা নূর আফজা (৮৫-৯১)

    জুতা পালিশের কথা মনে হলে এক ধরনের গর্ব বোধ করি। ক্যাডেট লাইভে এই জিনিষটা মোটামুটি না করেই পার করে দিয়েছি।
    একটা ভালো জিনিষ উল্লেখ করেছো। প্যাশনের বাংলা কি হবে?


    “Happiness is when what you think, what you say, and what you do are in harmony.”
    ― Mahatma Gandhi

    জবাব দিন
  6. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    “cricket is my passion” এর অনুবাদ হবে "আউচ্‌...(স্ট্যাম্পের কথা মাথায় রেখে... 😉 )

    আর যদি সের্গেই বুবকা টাইপ কেউ কয় " Poll-volt is my passion" এর অনুবাদ হবে 'ওরে বাবারে"... ;;;


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  7. আহমদ (৮৮-৯৪)

    Christopher Marlowe-এর 'The Passionate Shepherd to His Love' কবিতাটার সাথে নজরুল ইসলেমর 'মোর প্রিয়া হবে এসো রানী' গানটার আশ্চর্য রকমের মিল রয়েছে। দুটোতেই প্রেমের আহবান রয়েছে প্রলোভনের সাথে। পার্থক্য শুধু বাস্তবতা আর কল্পনায়।


    চ্যারিটি বিগিনস এট হোম

    জবাব দিন
  8. আশহাব (২০০২-০৮)

    বই এর পাতাগুলা খুব নরম এর উপর মাথা রাইখা ঘুমাইতে নাকি খুব মজা! :khekz: :khekz: :khekz:
    ভাই, সত্যিই পিরা গেলাম :goragori: :pira:
    একটার থেকে একটা অসাধারণ :thumbup:
    কোই কিসিসে কাম নেহী... :clap:
    ভাবতেছি কেউ যদি বলে , “cricket is my passion” এর অনুবাদ তারা কি বানাবে?………। :-B :))

    জবাব দিন
  9. রুম্মান (১৯৯৩-৯৯)

    বস
    পাংখা হইছে।চালায়া যান॥ :boss:


    আমার কি সমস্ত কিছুই হলো ভুল
    ভুল কথা, ভুল সম্মোধন
    ভুল পথ, ভুল বাড়ি, ভুল ঘোরাফেরা
    সারাটা জীবন ভুল চিঠি লেখা হলো শুধু,
    ভুল দরজায় হলো ব্যর্থ করাঘাত
    আমার কেবল হলো সমস্ত জীবন শুধু ভুল বই পড়া ।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।