মিরাজ

আমার প্রেম এখনো থমকে আছে কাঁধ ছুঁই ছুঁই চুলে!

দেড়শ বছরের পুরনো এই শহরে এখনো যুবকের কাঁধ অবধি ঝাঁকড়া চুল দেখলে

চমকে উঠি।

গলার স্বর নামিয়ে বলতে ইচ্ছে করে, এই শোন!!

৫,৯২৩ বার দেখা হয়েছে

৬৮ টি মন্তব্য : “মিরাজ”

  1. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    মারাত্মক ভাল লাগল, অসাধারণ!! :clap: :thumbup:

    অঃটঃ ১। আপা, শিরোনামটা কি Mirage? :-B
    ২। দেড়শ বছরের পুরনো শহর- কোনটা? :-/


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  2. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    সরি, তোমার আধা প্রশ্নের উত্তর দিয়ে চলে গেলাম... B-)

    আমি যে ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে থাকি যা প্রায় পৌনে দুশো বছরের পুরনো... কবিতার খাতিরে দেড়শো বছর লিখলাম! 😛
    এই হইলো দেড়শো বছরের শানে নুজুল... 🙂

    এখন আবার বলো না ঝাঁকড়া চুলের মানুষ টা কিডা 😛

    জবাব দিন
  3. মোকাব্বির (৯৮-০৪)

    মিরাজ বা ফরাসী উচ্চারণে বললে মিহাজ/স এর মাঝামাঝি কিছু একটা! "হ" টা আসবে আরবীর মত কন্ঠের ভেতর থেকে। আমি মিরাজ ভাই কিডা জিগাইতে গিয়া মাইর খাই নাই তাইলে! ;)) ;)) ;))


    \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
    অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

    জবাব দিন
  4. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    ঝাকড়া চুলের মিরাজ ভাই, কে যেন আপনাকে ডাকে :-B


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  5. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    মাত্র চারটা লাইন কিন্তু কি একটা স্বপ্নীল ভাললাগার পরিবেশ তৈরী করেছে তা।
    একেই বোধহয় শিল্পোত্তির্ণ হওয়া বলে। মুগ্ধ......

    তবে কনসেপ্টটার সাথে মতদ্বৈত্যতার অবকাশ আছে।
    কেবল একটি ফিচারে বেইজ করে যে আকর্ষণ বোধ, তাকি প্রেম? নাকি মুগ্ধতা?
    প্রেম কি এত হালকা হয়? হওয়া উচিত?
    একপক্ষের এই মুগ্ধতাকে প্রেম ভাবাটা কি ঠিক? তাতে দুজনের সমান অংশগ্রহন না থাকাটাই তো স্বাভাবিক। এই অসম মুগধতা কে প্রেম ভেবে তা থেকে কারো কষ্টের সূত্রপাত হলে কবি কি সেই কষ্টের দায়ভার নেবেন?


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  6. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    এই প্রথম সিসিবিতে আমার চাইতেও অপেক্ষাকৃত তরুণ কাউকে পাওয়া গেলো। 🙂 আমি সিসিবির সদ্যোজাত সদস্য 😛 , এখানে আসার পর থেকে খানিক সংকুচিত হয়ে ছিলাম এই ভেবে যে আমার সমসাময়িক লোকজন কি এই জগতে কেউ আর নাই? 😛 আপনাকে পেয়ে ভাল লাগলো। 😀

    আপনার মন্তব্য পড়ে খানিক বিগলিত হয়ে আছি, ভাইয়া! 😛
    অনেক ধন্যবাদ আমার সামান্য লেখাটি পড়বার জন্য! 🙂

    ঝাঁকড়া চুল ছেলেটির অনেক ফিচারই হয়তো পছন্দ ছিলো প্রেমিকার, নয়তো প্রেমে পরবে কেনো! 🙂
    অন্য সব গুণপনার মাঝে ধরে নেয়া যায় তার এই চুলের ফ্যাশনই তাকে আলাদা করে রেখেছিল সবার থেকে। তাই কাঁধ অবধি ঝাঁকড়া চুল দেখলেই তাকে মনে পরে! এই মনে পরা ব্যাপারটি মুগ্ধতাকে অতিক্রম করেছিলো বলে ধারণা করা যেতে পারে। 🙂
    অণু কবিতায় এক চাইতে বেশী কিছু বলা যায় না যে 😛

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।