চুমুর দিনে

লম্বা পথটাকে ফেলে এসে অন্ধকার সিঁড়িকোঠা,
উদ্দেশ্যহীন নয়, অনেক স্বপ্নে সাজানো চুমু নিয়ে।
চলে যাব বলে বন্ধ চোখের দাবীটুকু মেনে নিতে
দু’বার বলতে হয়নি আমার।
দুটো খাতা, একটা বই, সবটুকু সম্বল বুকের কাছে জড়ো করে,
বন্ধ চোখে কিশোরীর শিহরন, অপেক্ষা।
ডান হাতে বাম গাল, চুলের একটুখানি,
কাপড়ের খসখসে বুকের ধুকপুক বন্ধ হয়নি।
তপ্ত নিঃশ্বাস, আর শরীরে একটু শরীর ছোঁয়া।

তারপর সেইক্ষণ, হৃদয় বন্ধ করা,
টুপ করে ঠোঁট ছোঁয়া, তোমার কপালে।
মৃদু স্বরে ‘ভালোবাসি’, তারপর ? আমি নেই।
বন্ধ চোখে আবেশ ও কম্পন নিয়ে
কিশোরী তখনো স্তব্ধ দাঁড়িয়ে নির্জন সিঁড়িঘরে।

বুকের কাছে জড়ো করা নোটবই, বন্ধ চোখ আর থরথর কম্পন,
কিশোরী তখনো দাঁড়িয়ে নির্জন সিঁড়িঘরে।
প্রেমিক আমি প্রথম চুম্বন এঁকে ব্যস্ত জীবনের ডাকে,
পথে নেমে ছুটছি দূরে, আরো দূরে।
কিশোরী তখনো বোঝেনি স্বপ্ন কতটা সত্যি।
শুধু ভালো লাগা মৌনতা, ছোঁয়ার মুগ্ধ ক্ষণ।

পথে নেমে আমি কিছুই ছুঁই না তখন,
এই হাতে তোমাকে ছোঁয়ার রেণু।
জল কিংবা খাবারে বড্ড অরুচি আমার,
জল যে ঠোঁটে চুমুর স্পর্শ মুছে দেয়।
আজ সত্যি করেই বলি, স্পর্শ এড়ানো হাত আর ঠোঁটটাকে
যেই সাতদিন আমি বাঁচিয়ে রাখতে পেরেছিলাম
প্রতিটা ক্ষণ জুড়ে, আমি সেই অন্ধকার সিঁড়িঘরটাকে খুঁজে পেতাম।

পুনশ্চ
আমি প্রেমিক না হয়ে আয়না হলে ভালো হত,
আমার মত একটা চুমুর গল্প থাকত তোমার কাছে।
তোমার আছে শব্দ, গন্ধ, স্পর্শের অনুভুতি, বুকের ধুকপুক।
আমি সবটা গল্প নিয়ে এখনো সেই অন্যরকম সময়ের সাক্ষী, ভালবাসি।

১,৮৬৭ বার দেখা হয়েছে

২৫ টি মন্তব্য : “চুমুর দিনে”

  1. রকিব (০১-০৭)
    আমি প্রেমিক না হয়ে আয়না হলে ভালো হত,
    আমার মত একটা চুমুর গল্প থাকত তোমার কাছে।

    অদ্ভূত সুন্দর লাইনদুটো। :boss:
    বস, পুনঃশ্চ= পুনশ্চ, স্বাক্ষী= সাক্ষী হবে।


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  2. সাব্বির (৯৫-০১)

    রেশাদ ভাই কেমন আছেন?
    আপনি যে জটিল টাইপের কবি+লেখক এই টা তো কলেজে থাকতে টের পাই নাই 🙁
    ভাই আপনার কি মনে আছে শরিয়তুল্লা হাউসের ১ নম্বর রুমে বসে আপনার সাথে ২৯ খেলসিলাম কোন এক ভ্যাকেশনে যাওয়ার আগের রাতে।
    ১১বছর আগের ঘটনা 😮 😮
    (আবেগে পুরা ইমোশনাল হইয়া গেলাম)

    জবাব দিন
    • রেশাদ (১৯৯৩ -৯৯)

      ঘটনা মনে আছে, রুম নাম্বার এ ঘাপলা করছস সম্ভবত, ১০৭ হওয়ার কথা। কোনদিন অস্ট্রেলিয়া গেলে আবার এক সেট ২৯ খেলুম কথা দিলাম।

      আমি লেখক কবি কোনটাই নারে, কলেজ ম্যাগাজিনে একবার সম্পাদকীয় ছাড়া আমি আর কোনদিন কিছু লেইখা দেখি নাই, সিসিবি পাইয়া একটু আধটু লেখি ক্যাডেট স্বত্তাটারে ভুলতে চাইনা বলে। (আমিও তো পুরা ইমোশনাল হইয়া গেলাম দেখি 😛 )।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।