ইনসমনিয়া

দীর্ঘ, ক্লান্তিকর, মরবিড শীতের রাতের কার্নিশে
পাপ জমে তিলেতিলে শিশিরের মত অসহায় ঘাসে।
ভেন্টিলেটরে জেগে ওঠে স্টুপিড চড়ুইয়ের প্রলাপ
অপসৃয়মান রাতের ছায়া,চড়ুই আর আমাতে জমে ওঠে আলাপ।
ক্যাঁচক্যাঁচ শব্দে পুরনো চেয়ারটা হিঁচড়ে বারান্দায় নিয়ে যাওয়া,
অতঃপর বাসি তামাকে সূর্যের বিপরীতে নাচে নীলচে রঙের ধোঁয়া!!
“তোমাদের শোক যখন আমার কবিতার পুঁজি
তখন আমি একফালি রোদের বিলাসিতা খুঁজি।
বহুদিন আগে ছায়াদের দেশ থেকে চুরি করে আনা রোদ,
আর পৃথিবীর শেকড়ে গাথা সে আদিম ক্রোধ।
দুয়ে মিলে কেন কেড়ে নিলে সকালের ঘুম?
রাক্ষসপুরীতে কেন উৎসবের ধুম?”
অনাবৃত আকাশে চেয়ে থাকি অপার্থিব কামনায়
নিরাসক্ত বিকেল নামে শুকনো ঝরা পাতায়
রাতের প্রাচীর বেয়ে ওঠে বিলাপের সুর
একঘেয়ে গেয়ে যায় মেঘলা রোদ্দুর।
দুর থেকে ভেসে আসে প্রেমিকার ডাক
সাড়া নেই পৃথিবীতে প্রহর অবাক।।

৬০১ বার দেখা হয়েছে

৪ টি মন্তব্য : “ইনসমনিয়া”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।