ব্রুটাসের অট্টহাসি

ব্রুটাস, তুমি এইখানে, এদিকটায় এসো

বঙ্গদেশে তোমাকে অভ্যর্থনা জানাতে

হাজারে হাজার সাঁজোয়া গাড়ির প্যারেড,

অশ্বারোহী কিংবা তরবারী স্যলুট

যেটাই তুমি চাও, প্রস্তুত।

চল্লিশ বছর আগের হাড়গোড়

-বেশি নয়, হাজার বিশেক খুব জোর

নিখোঁজ কিছু নিখোঁজ সংবাদ, দুটো চারটে ধর্ষণ

সব কিছু ভুলে গেছি, কসম!

চার চার করে কত বছরের মসনদ চাই, বলো।

লক্ষাধিক, মনমাতোয়ারা নওজোয়ান

তোমার জিগীরে সাড়া দিতে, কাতারে হাজির

জেহাদী আজাদী জোশে কিছু শাহবাগী বাস

পুড়লোই নাহয়-

নাফরমান কতলের অধিকার তো তোমারই!

এইসব জোশী, বেহুঁশী, রক্তপিপাসী জওয়ানদের

আমরা কুকুরের মত ছড়িয়ে দেবো দেশময়

আগ্নেয়াস্ত্র, নিদেনপক্ষে একটা জেহাদী বই হাতে-

প্রতিবাদ ? হাসালে বুঝি,

ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক, শোষণমুক্ত জিগী জিগী ব্লা ব্লা এই দেশে

কার ঘাড়ে কটা গর্দান ?

প্রোলেতারিয়েত বুদ্ধিজীবী, সংবাদপত্র, দূরদর্শন-

সব, সব জিন্নাহ টুপি দিয়ে চাপা দেবো আমরা।

কাগজের সবকটা পাতা, টিভিটকশো সমস্ত

কুত্তাবাচ্চা মধ্যপ্রাচ্যের কৃপায় ক্রয় করেছি।

স্বাধীনতা, মাতৃভাষা, আর যত আলুপটল ছিলো –

র‍্যাপিঙে মুড়ে ফেসমুখোশের দেয়ালে টাঙানো সব।

সাধারণ ক্ষমায় নয়, ব্রুটাস-

আমাদের বিবেকের গালিচায় পা ফেলে তুমি এসো।

এখানে কোন মার্ক অ্যান্টনী নেই,

এখানে কোন মার্ক অ্যান্টনী নেই।

*কবিতায় উল্লেখ্য চরিত্রটি নিতান্তই কাল্পনিক। কারো সাথে মিলে গেলে তা নেহাতই কাকতালীয়, এর জন্য কবি দায়ী নন।

৯০৭ বার দেখা হয়েছে

১৩ টি মন্তব্য : “ব্রুটাসের অট্টহাসি”

  1. আসাদুজ্জামান (১৯৯৬-২০০২)

    নাফিজ, এক কথায় অসাধারন লেখা। অসাধারন...... আরো একবার পড়ি। কাউকে ছাড়োনি, কাউকে না। বর্তমান প্রেক্ষাপটে নির্মম বাস্তবতার অসাধারন কাব্যিক রূপ। :clap:

    কিন্তু ব্রুটাসকে কেন ডাকছো???? সে কি বাংলাদেশেই বর্তমান নয়???? 😉

    জবাব দিন
    • নাফিজ (০৩-০৯)

      ধন্যবাদ ভাই...গালাগালি বেশি হয়ে গেছে কিনা এই ভয়ে আছি ;))

      কথা ঠিক... ব্রুটাসকে আর ডাকার কিছু বাকি নেই। বরং দ্বিতীয় প্রজন্মের ব্রুটাসরাও এখন সুসংবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে...


      আলোর দিকে তাকাও, ভোগ করো এর রূপ। চক্ষু বোজো এবং আবার দ্যাখো। প্রথমেই তুমি যা দেখেছিলে তা আর নেই,এর পর তুমি যা দেখবে, তা এখনও হয়ে ওঠেনি।

      জবাব দিন
  2. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    ব্রুটাসকে খারাপ বানিয়ে দিতে চাও? সে তা নয়।
    আর এন্টনী অতটা ভালোও নয়; সে রাজত্ব দুইভাগ কইরা এক ভাগ নিজে শাসন করছে।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন
    • নাফিজ (০৩-০৯)

      আক্ষরিক ব্রুটাসকে নিয়ে আসলে কবিতাটা নয়...শুধু নামটা এবং বিশ্বাসঘাতকতার প্রেক্ষাপটটা ধার করা। আসল ব্রুটাস এখানে কে তাতো কবিতাই বলছে ।

      মার্ক অ্যান্টনীর ক্ষেত্রেও বোধহয় রূপক ব্যবহারে সীমিত রাখাটাই ভালো।


      আলোর দিকে তাকাও, ভোগ করো এর রূপ। চক্ষু বোজো এবং আবার দ্যাখো। প্রথমেই তুমি যা দেখেছিলে তা আর নেই,এর পর তুমি যা দেখবে, তা এখনও হয়ে ওঠেনি।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।