জনৈক ভাষাসৈনিক বলছি

জনৈক ভাষাসৈনিক বলছি

অন্ধকার গোরস্থান থেকে বলছি –
আমি এক নির্বাসিত পথিক ,
আমার এই রক্তে এখনও তাজা বারুদের গন্ধ ,
তাজা বুলেট এখনও বিঁধে আছে বুকে ।

রুদ্ধ কবর থেকে বলছি –
আমি এক বেওয়ারিশ মুর্দা ,
বুলেটের তরঙ্গে কম্পমান ভারি বায়ুস্তর থেকে
আমার দরাজ কন্ঠ ভেসে আসে ;
আমার দেয়া দৃপ্ত স্লোগান কি এখনো ভেসে বেড়ায় ?

আমি চেনা সহস্র জোড়া চোখের ভিড়ে
অচেনা এক ভাষাসৈনিক বলছি ;
চোখ বন্ধ করলেই অবাধ প্রাণশক্তির জোয়ার ,
রক্তলাল কৃষ্ণচূড়ার মেলায় কতগুলো হিংস্র প্রাণশক্তি ;
উন্মত্ত মাতাল আমি , উন্মাদ –
বিশাল মিছিল , দৃপ্ত স্লোগান , পাশবিক চিৎকার –
তারপর মৃত্যু – রক্ত , লাল রক্ত ;
রক্তলাল কৃষ্ণচূড়ার মেলায় রক্তাক্ত আমি ।

ফেব্রুয়ারি ২১ , শহীদ মিনার প্রাঙ্গন থেকে –
বাংলা একাডেমির বইমেলা প্রাঙ্গন থেকে বলছি ;
আমি এক ক্ষুব্ধ ভাষাসৈনিক বলছি –
আজও দেখি একদিনের মিথ্যে উৎসব ,
দিবস নামের অর্থহীন নগ্ন উৎসব ;
কারণ ২১ এর পরে ২২ তো আসেনা ।
কালের অতল গহ্বরে হারিয়ে যাওয়া –
নিজের নাম না জানা এক ভাষাসৈনিক বলছি আমি ;
তবু আমি একজন –

আমি জনৈক ভাষাসৈনিক বলছি ।

৩৭০ বার দেখা হয়েছে

৩ টি মন্তব্য : “জনৈক ভাষাসৈনিক বলছি”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।