মেঘবালিকার আত্মকথন

“চুড়ি চাই, ফিতা চাই-ইইই…?”

“ফেরিওয়ালা, ও ফেরিওয়ালা!”

“কী চাও, বালিকা?”

“১ জীবন মেঘ চাই আমার”

“মেঘ?…”

“হুম, সেই মেঘে চড়ে উড়ে যাবো আমি,

মেঘের দেশে আমিও মেঘ হবো তখন”।

“মেঘ হয়ে কী করবে তুমি?”

“কেন, সাদা পেঁজা তুলোর মত মেঘ হয়ে

ভাসবো নীল স্বপ্নের আকাশে!

আর যখন অনেক অভিমান জমবে আমার বুকে –

কালোরঙা ঝড়ো মেঘ দেখলেই চিনতে পাবে আমায়…”

“তারপর?”

“তারপর যেদিন খুব করে ছুঁতে ইচ্ছে হবে,

বৃষ্টি হয়ে ঝরবো তোমার পৃথিবীতে”।

“আমার কাছে আসবে কী করে তখন?”

“ওমা! তখন তো সবকিছুতেই শুধু আমি আর আমি-

ফেরিওয়ালা, সেদিন আমার হবে তো তুমি?…”

১,১৫১ বার দেখা হয়েছে

৮ টি মন্তব্য : “মেঘবালিকার আত্মকথন”

  1. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    সুন্দর কবিতা। পংক্তিগুলোর মাঝে স্পেসটুকু তুলে দিলে ভালো হয়।
    'মেঘবালিকা' নামে আমারও একটা কবিতা আছে, ২১ জুলাই ২০১৫ তারিখে এই ব্লগে প্রকাশিত। পড়ে দেখলে খুশী হবো।

    জবাব দিন
  2. লুৎফুল (৭৮-৮৪)

    হাওয়াই মিঠাই মেশিন নিয়ে মেঘ বানাবো নানান রঙএ
    আকাশটাকে ছড়িয়ে মাঠে জুড়বো সে সব নানান ঢঙএ

    ~ আকাশ আর মেঘ নিয়ে কিছু লিখলেই উড়ে বেড়াবার মতোন ফুরফুরা লাগে যেনো ।
    :clap: :clap:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।