সিসিবি আর আমি

১০০০তম পোস্ট উপলক্ষে কিছু লিখব ভেবেছিলাম। ব্যাস্ততার কারণে (এবং কিঞ্চিত আইলসামি) লেখা হয়ে ওঠেনি। বসতে বসতে দেখি পোস্টের সংখ্যা এর মধ্যে ১০৩০+ হয়ে গেছে। বাসি জন্মদিনের মতই হয়ে যাচ্ছে লেখাটা। কিন্তু তারপরও নিজের অস্তিত্ত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য ভাব্লাম লেখাটা উচিৎ। নইলে কবে আবার মাসখানেক সিক রিপোর্ট মারার কারণে এডু সাহেব না আবার আমারে ব্যান কইরা দ্যান।

সিসিবিতে আসা আর আমার বাংলা টাইপ করাটা প্রায় একসাথেই হয়েছিল। অফিসের এক বন্ধুর মাধ্যমে (বাঙ্গালী বন্ধু) বাংলা ব্লগের কথা প্রায়ই শুনতাম। কি সব সচল না কি যেন। পাত্তা দেইনি তেমন। কিন্তু অফিসে বসে অনেকটা সময় চলে যেত আউলা কামে ব্রাউজ করে করে। কিন্তু ব্রাউজ করার জন্য খুব বেশি সাইট আমার জানা ছিল না। তাই একদিন ভাবলাম দেখি না কি শালার এই বাংলা ব্লগ। মহা উৎসাহ নিয়ে রেজিস্ট্রেসন করে ফেললাম সচলে। করার পর টের পেলাম ওখানে লিখতে বছর খানেক লেগে থাকতে হবে। তাই কিছু না লিখেই বাদ। সামহয়ারে গিয়ে মনে হোল এরা একটু কম কঠিন। তাই মহা উৎসাহে লিখে ফেললাম আমার প্রথম বাংলা লেখা। মনে পড়ে প্রায় দুই ঘন্টা অফিসের টাইম নস্ট করে এক পৃষ্ঠা লিখেছিলাম। কিন্তু সামহয়ারে সাবমিট করার পর বুঝলাম প্রথম পাতায় আসতে আরও কিছু তামশা করতে হবে। যথারীতি বাংলা ব্লগের সেখানেই ইতি। আমার লেখা প্রথম বাংলা পৃষ্ঠাটা পরে রইল মাই ডকুমেন্টসের এক কোনায়।

এর পরে খোঁজ পেলাম সিসিবির খুব সম্ভবত বেক্সকার কোন ইয়াহুর গ্রুপ মেইল থেকে। পাত্তা দিলাম না। ধুর হালা, অইসব তামশার মইদ্যে আমি নাই। ফেসবুকে তখন প্রতিদিন ঢু মারতাম। সেখানে হাজার জন হাজার রকম রিকোয়েস্ট পাঠায় আর আমি মহা উৎসাহে ইগ্নোর করি। কোন একদিন মনে হয় অন্য কারও স্ট্যাটাস আপডেটে দেখলাম সিসিবির কথা। ভাবলাম দেখি না ব্যাপারটা কি। সিসিবির যে একটি মাত্র কারণে আমার ভাল লেগেছিল প্রথম দেখায় সেটা হোল পেজের সাধারনত্ব। আউল ফাউল ইমেজ, সাইড বারে গুগলের এ্যাড, দুর্বল রঙের ব্যাবহার, ব্যাবহারে কাঠিন্য আমার দু চোখের বিষ। ভাল সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং খুবই কঠিন একটা ব্যাপার। বিশেষত যেখানে ইউজার ইন্টারফেসের ব্যাপার থাকে সেখানে সামান্য কারণে ব্যাবহারকারি বিরক্ত হয়ে যেতে পারে। সিসিবিতে আমার টিকে থাকার প্রথম কারণ ছিল আমি প্রথমে ব্যাবহার করে বিরক্ত হইনি। ঠিক এই কারণে সামহয়্যার আমার দু চোখের বিষ। শালাদের যদি ইউজার স্যাটিস্ফেকশান নিয়ে কোন মাথাব্যাথা থাকত। যাই হোক সেটা ভিন্ন বিষয়। আমি টিকে গেলাম সিসিবিতে।

প্রথম দিনেই খুব সম্ভত লিখে ফেললাম আমার উপস্থিতি জানান দিয়ে একখান পোস্ট। পোস্টের পরপরই কমেন্ট পেয়ে উৎসাহ এক্সপোনেন্সিয়ালি বেড়ে গেল। পরদিনই অফিসে বসে লিখলাম প্রাপ্তবয়ষ্ক বিষয়ক লেখা। লিখে রিভিউ এর জন্য সাবমিট করার পর মনে হোল কাজটা মনে হয় ভাল হোল না। পোস্টের কন্টেন্ট তো বেশি সুবিধার ছিল না। কে না কি ভাবে। সাবমিটের সময় মনে হচ্ছিল সবতো ক্যাডেট, কোন ব্যাপার না। কিন্তু সাবমিটের পরপরই পালপিটিশন বেড়ে গেল। মডারেটর না জানি কি ঝাড়ি দেয়। আর ভাবতেছিলাম মডারেটর না জানি কোন সিনিয়র ভাই, শেষমেস না ঝাড়ি খাই, মান ইজ্জত নিয়া টানাটানি। বাকিটা আর নাইবা বললাম। রীতিমত নেশায় পেয়ে বসল। এতদিন পর পাঁচ মিনিট পর পর ব্রাউজ করার মত একখান সাইট পাওয়া গেল।

পরিশেষে বলতে চাই, সিসিবির চেহারা যেমন ইদানিং মাশাআল্লাহ হয়ে উঠছে, ঠিক তেমনি পোস্টের সংখ্যা এবং গুনগত মান দিনদিন বেড়েই চলেছে। এখন তো পোস্টের সাথে তাল মিলিয়ে চলাই মুস্কিল হয়ে উঠেছে। কিছু অনুরোধ (যদি সম্ভব হয়)
১। হোম পেজের চেহারা নিয়মিত পরবর্তন করা হোক নতুনত্ব আনার জন্য (যেটা এখন প্রায় নিয়মিতই হচ্ছে। মডারেটরদের ধন্যবাদ)।
২। ম্যানেজ পোস্ট অপশনে গিয়ে শুধুমাত্র আমার সাবমিট না করা পোস্ট খুজে বের করাটা বেশ ঝামেলার। সবার পোস্টের মধ্য থেকে খুজে বের করতে হয়। ব্যাপারটা আরও ব্যাবহার উপযোগি করা যেতে পারে।
৩। পোস্ট লেখার পেজটা খুব একটা ব্যাবহার উপযোগি নয়। বিশেষ করে শিরোনামের ঘরটা অনেক বড় করে আসে (অন্যদের হয় কিনা জানিনা, আমি IE8Beta ব্যাবহার করি)। রংটাও হোম পেজ থেকে ভিন্ন। মনে হয় যেন অন্য কোথাও এসেছি।
৪। চ্যাটিং অপশন যোগ করা যেতে পারে অনলাইন ব্যাবহারকারিদের মাঝে। স্টাফ লাউঞ্জ আছে, কিন্তু সেটা অন্য পেজে নিয়ে যায় যা খুব সুখকর নয়। ইয়াহু বা গুগল বা ফেসবুক চ্যাটের মত হলে ভাল হোত।
৫। যারা অনলাইনে নেই তাদের জন্যও মেসেজ পাঠানোর ব্যাবস্থা করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে মেসেজ গ্রহনকারির ইমেইল ঠিকানা যোগার করার ঝামেলা থাকল না, সাথে প্রাইভেসিও রক্ষা হোল।
৬। হোম পেজে বিনোদনের জন্য কিছু করা যেতে পারে। যেমন এফএম রেডিও লাইভ শোনার ব্যাবস্থা করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে আইনগত+টেকনিক্যাল সমস্যা থাকতে পারে। ঢাকার লোকাল লাইভ রেডিও না হলেও অনলাইনে অনেক লাইভ রেডিও, মিউজিক চ্যানেল আছে, যেমন প্যান্ডোরা, বিবিসি, ইয়াহু এদের ব্যাবহার সম্ভব কিনা তা যাচাই করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

অনেক অনুরোধ করে ফেললাম। মডারেটর আর টেকনিক্যাল ভাইরা না জানি আবার কয়া বসে “ইইইহ্‌, পোলার শখ কত, যা, অইহানে গিয়া কানে ধইরা খারায়া থাক”। তার আগেই ভাগি। যাবার আগে সবাইকে বাসি ১০০০ পোস্টের শুভেচ্ছা।

১,৯৫২ বার দেখা হয়েছে

২৩ টি মন্তব্য : “সিসিবি আর আমি”

  1. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    সবার ইতিহাস পড়তে খুব ভাল লাগছে। আর মরতুজা ভাইয়েরটাতো স্পেশাল।
    আপনি না আসলে আমগো কি হইত একবার চিন্তা করেন!!!!!

    প্রস্তাবগুলা খুব ভাল। দেখি মডুরা কি ব্যবস্থা নেয়।

    জবাব দিন
  2. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    বস,
    এডু/মডু রে তো অনেকগুলা কাজ ধরায়া দিলেন...
    এবার একটু আপনার নিজের কাজের দিকে... 😀
    না, মানে...ঐ যে কি একটা সিরিজ ছিলনা জানি..."ভোটার"(১৮ঊর্ধ অর্থে) দের জন্য মনে হয়... 😉


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  3. ১.
    IE8Beta ইউজ কইরা কি আরাম পান? আমি তো ডরে ওইটা অপেন করি না। এমন স্লো আমার এইখানে। ক্লিক করলে মনে হয় পেজগুলি বিল গেটসের বাড়ি থেইকা ঘুইরা তারপর আসে।
    ২.
    অনেকের এখানেই সিসিবি ঠিক মতো দেখা যায় না তার একটা কারন, বেশির ভাগ উইন্ডোজের ডিফল্ট vrinda ফন্ট ইউজ করে। সিসিবির জন্যে সবচেয়ে মানানসই হচ্ছে BNG বা solainamilipi ফন্ট। তাইলেই দেখবেন সব ঝকঝকা। 😀
    bangla problem সেকশনে দুইটার ডাউনলোড লিঙ্ক আর সেটাপ পদ্ধতি আছে। (কারে কি কই!! আপনে হইলেন টেকি উস্তাদ )
    ৩.
    বাকি প্রস্তাবগুলির ব্যপারে মডুদের মনযোগ আকর্ষন করছি। :thumbup:
    ৪.
    এতো রাইতে অন প্যারেডে কি করেন। যান ঘুমাইতে যান 😀

    জবাব দিন
  4. জিহাদ (৯৯-০৫)

    ১নং প্র: উ:- হোম পেজের চেহারা এখন থেকে কখনোই একরকম থাকবেনা। থিম ঘন ঘন চেঞ্জ হবেনা কিন্তু রঙ এবং ব্যানার নিয়মিত পাল্টাবে।

    ২ নং প্র:উ:- এই সমস্যাটা ওয়ার্ডপ্রেসের লেটেস্ট ভার্সনে আপডেট করলে থাকবেনা। তখন ড্যাশবোর্ডেই নিজের ড্রাফট করা পোস্টগুলো শো করবে।

    ৩নংপ্র:উ:- পোস্ট এডিটরটা ডিফল্টই রাখা হয়েছে। কারণ আমরা ওয়ার্ডপ্রেস কোর ফাইলে খুব বেশি হাত দিতে চাচ্ছিনা। ওয়ার্ডপ্রেস ভার্সন আপডেট এর সময় তাহলে পুরো কাজ আবার করতে হয়। আর টাইটেল এর ব্যাপারটা আমি ঠিক শিওর না। আমার এখানে মজিলা, অপেরা দুইটাতেই ঠিক আছে বলেই মনে হয়। আর সব ব্রাউজারে একই রকম লুক আনাটা সবসময়ই একটু ঝামেলার কাজ 🙁

    ৪নং প্র:উ: চ্যাট অপশন নিজেদের সার্ভারেই এখন হোস্ট করা সম্ভব। কিন্তু তাতে সার্ভারের উপর বেশি লোড পড়তে পারে ভেবে সেটা এখনো করা হয়নি। বর্তমান স্টাফলাউঞ্জটা যে কামের না সেইটা সবাইই বুঝতেসি। তাও মন্দের ভাল হিসেবে রাখা আর কি।

    ৫নং প্র:উ: মেসেজিং সিস্টেম হয়ে যাবে ইনশাল্লাহ। কিন্তু একজন প্রফেশনাল হ্যান্ড পেলে, ভাল একজন পি এইচ পি ডেভেলপার, তাহলে কাজটা আরো তাড়াতাড়ি হয়ে যেত। কেউ যদি সাহায্য করতে আগ্রহী হন তাহলে দয়া করে জানাবেন।

    ৬নং প্র:উ:- পরশু রাতে ঘুমানোর আগে এবিসি রেডিও শুনতে শুনতে এই কথাটা আমিও ভাবতেসিলাম যে একটা এফ এম স্ট্রিমিং করা সম্ভব হলে বেশ হতো। তবে কপিরাইট কিংবা এর জন্য টেকনিক্যাল ব্যাপারে আমার খুব বেশি ধারণা নাই। এই ব্যাপারে আমার মনে হয় ভাবা যেতে পারে।

    (পরীক্ষায় তো সব প্রশ্নের উত্তর দিয়া ফালাইলাম। এখন দেখা যাক মাস্টার সাব নাম্বার কত দেয়। 🙂 )


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
    • মরতুজা (৯১-৯৭)

      ১। এর জন্য আগেই ধন্যবাদ দিয়েছি। আবার দিলাম। আজকেরটাও জটিলস্য হইছে।
      ৩। আমারও ধারনা ছিল এই সমস্যার মুল কারন IE8। সব প্ল্যাটফর্ম সাপোর্ট করা যে সম্ভব না সেটাও সত্যি।
      ৪।৫। অপেক্ষা করতে কোন আপত্তি নেই।
      ৬। এইটা হইলে মাশাল্লাহ। আগে কোন এক সাইটে রেডিও ফুর্তি না জানি কোনটা শুনতে পেতাম। সারাদিন অফিসে অইটা শুতাম। পরে শালারা অইটা বন্ধ করে দিল। এখন অবশ্য রেডিও নর্থস্টার শোনা যায় তবে অইটা লাইভ রেডিও না।

      জবাব দিন
  5. আমিন (১৯৯৬-২০০২)

    বস আপনের ব্লগে খুব সম্ভবত আমার প্রথম কমেন্ট।
    আপনি যখন প্রাপ্তবয়স্ক লেখা দিতে থাকেন আমি পড়ি একনাগাড়ে।
    কিন্তু কমেন্ট করা হয়নি কিছু ঝামেলার কারণে। সেই ঝামেলাতেই আমি ব্লগ ছেড়ে নির্বাসনে চলে যাই তাই আপনার ব্লগে কথা বলার সুযোগ হয়ে উঠেনি।
    আজকে করলাম প্রথম। আপনার লেখা পিচ্চিদের ( আমিও পিচ্চিদের মইধ্যে ) বড় অণুপ্রেরণা।
    ভালো থাকবেন ভাইয়া।

    জবাব দিন
  6. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    সিসিবিটা এখন একটা পূর্ণাঙ্গ ব্লগ। আমি তো এটাতেই কাটাই প্রায় সবটা সময়। তোমার অভিজ্ঞতা পড়ে ভালো লাগলো।

    কিন্তু একটা অভিযোগ : জিহাদ এখনো বিজয়ের সমস্যা সমাধান করলো না। আমি মহা যন্ত্রণায় আছি।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  7. তাইফুর (৯২-৯৮)
    এতদিন পর পাঁচ মিনিট পর পর ব্রাউজ করার মত একখান সাইট পাওয়া গেল।

    মরতুজা ভাই আইছিল বইলাই না ... :boss:


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।