মধ্যান্তর

নদীর এপারে দাঁড়িয়ে ভাবছি শুধুই আমি,
আবছা ছবির খোঁজে ওপারে আছো তুমি।
আমার স্বপ্নগুলো শুভ্র কুয়াশায়
ভেসে চলে অজানা পথের নিরালায়।

কখনও দেখেছ কি অরুণ রোদন?
ছুঁয়েছ আপন হাতে শশীর বদন?
তবে কি অজানা তারা মোদের কাছে,
এখনও লুপ্ত তারা তোমার পাছে।

ভাবছ তুমি, এখনও ব্যস্ত বুঝি সে আগের মতন,
ভাবছে সে, সবইত রেখেছি তার করে যে যতন।
হাঁটছি রাস্তা ধরে আঁধার পেরিয়ে
কখনও জোনাকি জ্বলে দীপ জ্বালিয়ে।

সাতটি রঙ্গের খেলায় বাধা বুঝি,
দুইয়ের সাথে দুই মিলে চার খুঁজি।
সাতের বাধনের গাঁথা কলি
তোমাকে হারালে আসবে সপ্ত ওলি।

তাদের দংশনে আমি যে ভীত নই
ওষ্ঠে আনিত মধু সহসা কপালে ছুঁই।
নদীর এপারে বসে ভাবছি এসবই আমি
দেখিনি, বাদল ধারায় ঝরছে চোখের পানি।

 

৩৬৫ বার দেখা হয়েছে

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।