তবুও নিরাপদ সড়ক চাওয়া যাবে না

একদিনে ১৫ টি প্রান । প্রতিনিয়ত হাজারো নাগরিক সমস্যা, হত্যা, ছিনতাই, গুম, ধর্ষন , এত কিছুর ভীড়েও আমাদের মন কে কি একটু নাড়িয়ে দিয়ে যায় না? যায়। কতটা ? আজকের সংবাদ পত্রের পাতায় দেখলাম আগামীকালই তো এটা বাসি খবর। আবার নিজেদের নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ব। প্রতিদিন খারাপ খবর শুনতে শুনতে আমাদের কান অভ্যস্ত হয়ে গেছে। যেদিন পত্রিকার পাতায় এমন কিছু না পাই মনে মনে বলি আজকে গুরুত্বপূর্ন কোন সংবাদ নাই। অন্যায় দেখতে দেখতে আমাদের চামড়া হয়ে গেছে গন্ডারের চামড়ার দ্বিগুন পুরু। গা সওয়া হয়ে গেছে সব। প্রতিবাদের ভাষা তো হারিয়ে ফেলেছি সেই কবে এখন কাউকে প্রতিবাদ করতে দেখলেও মনে হয় অযথাই বাড়াবাড়ি।

আজকে দূর্ঘটনার খবরটা দেখে ভাবলাম কেন বারবার এত দূর্ঘটনা ঘটে আমাদের দেশে। নিজেকেই প্রশ্ন করি কেন ঘটবে না? যে দেশে লাইসেন্স ছাড়াই গাড়ী চালানো যায়, যে দেশে ট্রাফিক আইন এমনকি ড্রাইভিং না জানলেও লাইসেন্স পাওয়া যায় সেখানে দুর্ঘটনা ঘটবে না তো কোথায় ঘটবে? আমরা অনেক সময় দুর্নীতির প্রভাব টা খেয়াল করি না। অথচ যে ড্রাইভারটা লাইসেন্স ছাড়া গাড়ী চালাচ্ছে বা ঘুষ দিয়ে লাইসেন্স নিচ্ছে এটা কি সম্ভব হত যদি রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশ ঠিকভাবে চেক করত, যদি বি আর টি এ কোন প্রকার দুর্নীতি না করে ঠিকভাবে লাইসেন্স দিত? জানি গাড়ী চললে দুর্ঘটনা হওয়া স্বাভাবিক কিন্তু উপরের বিষয়গুলো খেয়াল করলে কি দুর্ঘটনা কমানো যাবে না? সবাই জানে যাবে কিন্তু কে করবে? আজকে একজন নিরাপদ সড়কের জন্য আন্দোলন করেন তার কুশপত্তলিকা পোড়ানো হয় ,সেই উৎসবে যোগ দেন জনগনের নির্বাচিত প্রতিনিধি, মন্ত্রী।
এত এত প্রান ঝরে যাবে, প্রতিদিন কয়েকটা পরিবার বিপন্ন হবে তবুও নিরাপদ সড়ক চাওয়া যাবে না।

৪৪০ বার দেখা হয়েছে

২ টি মন্তব্য : “তবুও নিরাপদ সড়ক চাওয়া যাবে না”

  1. ইফতেখার (৯৫-০১)

    আচ্ছা আমরা এইটারই আরেকটা পার্ট চিন্তা করে দেখি -

    - আমরা যেই সব রাজনীতিবিদ ওই সড়ক ও জনপথের টাকাগুলো পকেটে ঢুকালো আর যে জন্য রাস্তা চওড়া করা সম্ভব হলো না (প্রপারলি অন্তত দুই লেনের রাস্তার জন্য) তাদেরই আবার ভোট দিলাম - কি আশায়? যে এইবার তারা ফেরেশতা হয়ে যাবে? দোষ কার?

    - আমিই সারাদিন নিরাপদ সড়ক চাই ইত্যাদি করে দুনিয়া মাথায় তুল্লাম, সন্ধ্যা হওয়ার পর সেই আমিই আমার টয়োটা হাকায়ে গেলাম শর্মা হাউসে পার্টিতে - ড্রাইভারকে বলে রাখলাম গাড়ি যাতে সামনেই রাস্তাতেই পার্ক করে রাখে (আমার দোষ কৈ? সবাই ই তো রাখে - আমি না রাখলে অন্য কেউ রাখবে) - বদলে যাও বদলে দাও শ্লোগানের মুল্য থাকলো কৈ?

    - ড্রাইভার ভাড়া/চাকরি দেয়ার সময় যাতে সবচেয়ে কম বেতন দেয়া লাগে সেইটা দেখলাম - লাইসেন্স কোথা থেকে পেলো বা ঠিকমতন পরীক্ষা দিয়ে পেয়েছে কিনা দেখলাম না - কিভাবে আশা করি সেই ড্রাইভার ভালো হবে? বেসিক ইনসেন্টিভ এর ব্যাপার - ড্রাইভার দেখলো ঠিকমতন অনেক খরচ করে ঠিকপথে লাইসেন্স নেয়ার পর তার প্রতিযোগিতা হবে দুইনম্বর লাইসেন্সের লোকের সাথে - কি দরকার এত কষ্ট করে ঠিক লাইসেন্সটা নেয়ার?

    - গাড়ীর কাগজ আছে কিনা বা ড্রাইভারের লাইসেন্স ঠিকআছে কিনা দেখার জন্য পুলিশ গাড়ী থামানো মাত্র যাত্রীদের 'বিশটা টাকা দিয়া দে' টাইপ চিল্লানো শুরু হয়, বা প্রাইভেট কার হলে কিভাবে পাশ কাটিয়ে যাওয়া যায় (ঘুষেরই হোক, বা পরিচিত বড় অফিসারকে ফোন করেই হোক) তার রাস্তাই দেখলাম সবার আগে - দুইহাতে তালি বাজানোর একহাতে প্লাস্টার তো আমরাই করলাম - কিভাবে আশা করি অন্য হাত নিজ দায়িত্বে দ্বিগুন কষ্ট করে চাকা চালু রাখবে?

    জবাব দিন
    • জাহিদ (২০০০-২০০৬)

      আমরা অনেক সময় দুর্নীতির প্রভাব টা খেয়াল করি না। অথচ যে ড্রাইভারটা লাইসেন্স ছাড়া গাড়ী চালাচ্ছে বা ঘুষ দিয়ে লাইসেন্স নিচ্ছে এটা কি সম্ভব হত যদি রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশ ঠিকভাবে চেক করত, যদি বি আর টি এ কোন প্রকার দুর্নীতি না করে ঠিকভাবে লাইসেন্স দিত?
      কথাগুলো পোস্টেই বলেছি...আপনার সাথে আমি দ্বিমত করব না। আমরাও দায় এড়াতে পারি না। যখন ড্রাইভিং শিখতে টাকা বেশি লাগবে, যখন ভাল ড্রাইভারদের হাতেই শুধু লাইসেন্স থাকবে তখন ড্রাইভাররা বেশি টাকা মাইনে চাইলে আপনি দিতে বাধ্য থাকবেন আর যদি লাইসেন্সবিহীন কাউকে নিয়োগ দিতে চান তাহলে তো আবার সেই দুর্নীতির কথাই চলে আসল। আমি বলেছি আমাদের মানসিকতার কথা।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।