সাপ্তাহিক ২.২

মজানুল মোবারক। নিত্যনতুন ইফতার আইটেম আর বাজারে আগুন মাস শেষে ঈদের আনন্দের প্রতিশ্রুতি নিয়ে বছর ঘুরে আবার আমাদের মাঝে ফিরে এসেছে রমজান। তাও আবার বোনাস প্যাকসহ, অর্ধদিবস নয় পুরো সাড়ে ১৪ ঘন্টা। এর সাথে যারা ট্রাফিক জ্যাম আর লোডশেডিং এর সমন্বয় ঘটানোর মত সৌভাগ্যবান তাদের জন্য তো সোনায় সোহাগা। আমি নিজে যদিও এ দুটি থেকে বঞ্চিত তবে বাড়তি হিসেবে আমার জন্য বরাদ্দ আছে দিনব্যাপী পরীক্ষা আর রাতব্যাপী এসাইনমেন্ট। এই যেমন প্রথম রোজায় টানা ৬ ঘন্টায় পরীক্ষা দেয়ার পর মনে হচ্ছিল রোজা মনে হয় একটা না, দুটো রেখেছি একসাথে। টানা তিন দিন ছুটি পেয়ে একটু শান্তিতে আছি কিন্তু মাথার উপর ঝুলছে বিশাল কাজের চাপ।

ত সপ্তাহ জুড়ে ছিল ভয়াবহ রকমের গরম। সিলেটে থেকেও যে আমার বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা করতে হবে এটা কখনো চিন্তা করিনি। বৃষ্টি যে একবারেই হয়নি সেটা না, প্রতিদিনই কিছু না কিছু হয়েছে কিন্তু সেটা কোন ভাবেই পরিস্থিতি ঠান্ডা করতে পারেনি, থামার পরে বোঝাই যেত না। তবে গত দুদিন বেশ টানা বৃষ্টি হচ্ছে, যার কারনে একটু স্বস্তিতে আছি।এই বৃষ্টির পিছনে নিশ্চয় ব্যাঙে এর বিয়ের হাত আছে। বিবিসির ওয়েব সাইটের আমার প্রিয় একটা লিংক হলো Day in Picture। এখানে প্রতিদিনের প্রধান ঘটনা গুলোর দারুন সব ছবির দেয়। এর সাথেই আছে Week in Picture আর বিশেষ ঘটনা গুলো নিয়ে আলাদা এলবাম।এখানে ক্লিক করে দেখতে পারেন সেসব ছবি। সেখানেই কিছুদিন আগে বাংলাদেশে বৃষ্টির জন্য ব্যাঙের বিয়ের এই ছবিটা দেখলাম।

ঠাৎ করে মুভি দেখা বেড়ে গিয়েছে। এত ব্যস্ততার মাঝেও প্রতিদিন গড়ে একটার বেশি দেখা হচ্ছে। কোন বাছবিচার না করে হাতের কাছে যা পাচ্ছি তাই দেখছি। সেখানে ১৯৬১ এর মিস্টেরিয়াস আইল্যান্ড থেকে শুরু করে এ সময়ের কিলারস… সব। আজ যেমন দেখলাম ট্রান্সফরমার ২। বিভিন্ন কারনে এতদিনে এটা দেখা হয় নি। মুভি নিয়ে শোনা বিভিন্ন নেগেটিভ কমেন্ট এর মাঝে একটি। আমার কাছে এটা প্রথমটার তুলনায় অনেক দূর্বল মনে হয়েছে, এক পর্যায়ে মনে হচ্ছিল মুভি এত লম্বা কেন? তবে শেষের একশন সিকোয়েন্সে এসে আবার পুষিয়ে গিয়েছে, সেই সাথে দূর্দান্ত সাউন্ড ইফেক্ট। গভীর রাতে ফুল ভলিউমে এই রকম সাউন্ড ইফেক্টের মুভি দেখার মজাই আলাদা। আর সাথে মেগান ফক্স নামের অভিনেত্রী তো ছিলোই।

মুভি দেখার ফাঁকে ফাঁকে চলছে ফিফা ১০। এখানে এসে খেলায় নতুনত্ব এসেছে, সেটা হলো মাল্টিপ্লেয়ার খেলা। একারনে ম্যানেজার মুডে বেশি এগোতে পারছি না, তবে একে অন্যের সাথে খেলার মজাই অন্য রকম। ইতিমধ্যে আমি নিজেকে মোটামোটি খুনী প্লেয়ার হিসেবে পরিচিত করে তুলেছি। কারন প্রতি খেলায়ি আমার প্রতিপক্ষের প্লেয়ার অবশ্যই ইঞ্জুরড হবে আর আমার প্লেয়ার লাল কার্ড দেখবে। মাঝে মাঝে সেটা বাড়াবাড়ি পর্যায়ে চলে যায়, এখন পর্যন্ত আমার সর্বোচ্চ ৪ জন লাল কার্ড পেয়েছে, যদিও আমি ফেয়ার প্লে খেলার চেষ্টা করি কিন্তু রেফরির ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে আমার এই দশা…

পেক্ষার পালা শেষ, আজ শুরু হয়ে যাচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ। সেই সাথে ফ্যান্টাসী ফুটবল লীগ। আগেই বলেছি এবার বেশ হিমসিম খেতে হয়েছে দল বানাতে গিয়ে। অনেক কষ্টে একটা দল দাড় করিয়ে ছিলাম, আজ সকালে দেখি মৌসুম শুরুর আগেই তার মাঝ থেকে তিনজন ইঞ্জুরির তালিকায় নাম তুলে ফেলেছে, আবার নতুন করে ভাঙ্গা চোরা শুরু করলাম। এখন পর্যন্ত দলের চেহারা এরকম…

যারা এখনো ফ্যান্টাসী লীগে নাম লেখাননি তারা দেরি না করে আজকের মধ্যেই মাঠে নেমে পড়ুন। বিস্তারিত পাবেন এখানে আর এখানে। (আধাঁর ভাবী, দল নামাবেন নাকি একটা? 😉 )

শেষ করছি আর্সেনাল ফ্যানদেরকে একটা ভিডিও উৎসর্গ করে, বাকিরাও দেখতে পারেন, দারুন ভিডিও

শুভেচ্ছা

১,০৯২ বার দেখা হয়েছে

২২ টি মন্তব্য : “সাপ্তাহিক ২.২”

  1. রাশেদ (৯৯-০৫)

    আরে আকাশদা আছেন কেমন 😀
    মেগান ফক্সরে অন্যরা ভালু পায় কিন্তু কেন যেন আমি পাই না 🙂 আপনি যে ব্যস্ত এইটা নিয়মিত ব্লগ লেখা দেখেই বুঝা যায় 😀


    মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

    জবাব দিন
  2. আরিফ (১৯৯৭-২০০৩)

    স্যার.........।।আপ্নে না জেসিএসসি করতাছেন?
    পড়াশুনা করেন স্যার, এইগুলা বাদ দেন
    আল্লাগো, এর মধ্যে কেমনে মুভি দেখেন ~x( ~x( O:-) 😡
    আমি কিন্তু সিও'র কাছে রিপোর্ট কইরা দিমু।
    ওহ, সিমের লাইগা থ্যাঙ্কু.........
    সালাউদ্দিন স্যার রে সালাম দিয়েন।


    মুছে যাক গ্লানি/ঘুচে যাক জরা
    অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।