সাপ্তাহিক…(২)

বার বৃহঃস্পতিবার চলে আসছে… কি শান্তি। ইদানিং বৃহঃস্পতিবারের মজা শুরু হয় লাঞ্চের থেকে, মেন্যু খালি কলেজের ইম্প্রুভ ডিনারের কথা মনে করে দেয়… এমনিতে এই সপ্তাহে এতোই ব্যস্ত ছিলাম যে কোন দিক দিয়া দিন চলে গেল টেরই পাই নাই। এক দিক দিয়া ভালই লাগে, তাড়াতাড়ি ছুটির দিন চলে আসে কিন্তু পরীক্ষার শিডিউলের দিকে তাকালেই মনে মধ্যে হায় হায় শুরু হয়ে যায়, তারপরেও থার্সডে নাইট বলে কথা। সাব্বির ভাই গতকাল তার পোস্টে পুরা আমার মনের কথা বলে দিছে… সিসিবির অসাধারন সব লেখার মাঝে আমার এই রকম আবোল তাবোল টাইপ লেখা দিতে সাহসে কুলায় ওঠে না। তারপরও কিছু লেখার দুঃসাহস দেখায় ফেললাম… কারন এই মুহুর্তে আমার লেইজার টাইম মানেই সিসিবি, আর এই লেখার মাধ্যমেই বলা যায় আমি থার্সডে নাইট পালন করছি।

ত শনিবার ছোট খাট একটা আউটিং ছিল পতেঙ্গাতে। যাওয়ার আগে কেউই খুব একটা উৎসাহ পাচ্ছিল না, কারন ফৌজে এইগুলা পুরা ফল ইন টাইপ হয়ে যায়, মনে হচ্ছিল শুধু শুধু একটা ছুটির দিন নষ্ঠ করা। কিন্তু ওখানে যাবার পর এ ধারনা ভুল প্রমানিত হয়। প্রথমে শুরু হয় বিচ ফুটবল দিয়ে, (চরম খেলা হইছিল… আর প্রথম গোলটা আমিই করছিলাম B-) )। তারপর পানিতে নামা, প্রথম পর্যায়ে শুধু পা ভেজানোর চিন্তা ভাবনা থাকলেও এক পর্যায়ে তা পানিতে দাপাদাপি এবং শেষ দিকে একে অপরকে চুবানোর প্রতিযোগিতায় পরিনত হয়। এরপরে ছোট খাট একটা গানাবাজনার আয়োজন, লটারি, পুরষ্কার আর সব শেষে সমুদ্রের পাড়ে বসে ভূরিভোজ। সব মিলিয়ে ভালই ছিল।

ই সপ্তাহে বিকালে ফুটবল খেলা হইছে মাত্র ২ দিন, তবে এর মধ্যে সোমবার চরম খেলা হইছে, কেম্নে কেম্নে জানি আমি হ্যাট্রিক করে ফেলছি, শেষ কবে যে হাট্রিক করছিলাম মনে করতে পারতেছিনা… কোর্সে আইসা আর কিছু এ্যাচিভ করতে পারি আর না পারি, এই অর্জনেই আমি ব্যাপক খুশি।

দুনিয়াদারির খবর খুব কমই রাখা হচ্ছে, এমন কি খেলাধূলারও কোন খোজ খবর রাখা হচ্ছে না। ২০/২০ ওয়ার্ল্ড কাপের একতা খেলাও দেখা হয়নি, কনফেডারেশন কাপের খবর পাইছি পরে, তাও শুনি স্পেন হারছে ইউএসএ’র কাছে। আর ঐ দিকে উইম্বলডন শুরু হয়ে গেছে, নাদাল খেলতে পারছে না জেনে ব্যাপক কষ্ট পাইছি, ফেদেরার এবার সাম্প্রাসকে ছাড়ায়া যাবে, ভাবতেই মেজাজ খারাপ হয়ে যাচ্ছে … সাম্প্রাসের আমলে আমি ওর বিশাল ফ্যান ছিলাম, আর ফেদেরার কে আমি কেন জানি সহ্যই করতে পারই না। গতবারের নাদাল-ফেদেরার ফাইনাল মনে হয় আমার দেখা সেরা স্পোর্টিং ইভেন্ট, ভাগ্যকে ধন্যবাদ দেই যে সারা রাত জেগে ঐ ম্যাচটা দেখেছিলাম, সাথে সে দু’একজন ছিল তারা বৃষ্টির ব্রেকে ঘুমাইতে চলে যাওয়ায় পরেরদিন কি আপসোসটাই না করছিল।

শেষ পর্যন্ত আশরাফুলকে সরানো হলো, যদিও ঐ নির্লজ্জ্ব ক্যাপ্টেন্সি চালিয়ে যেতে চাচ্ছিল। দেখা যাক এইবার ব্যাটস্ম্যান হিসেবে কি করতে পারে। তবে মাশরাফিকে নিয়ে আমি খুব একটা আশাবাদি না, পুরা পাগলা, কি করে আল্লাহই জানে। হঠাৎ একদিন পেপারে দেখলাম ক্রিকেট টিমে কি নাকি বিদ্রোহ হয়েছে। বিস্তারিত জানার আর সময় পাই নাই, কেউ কি ঐ ঘটনার বিস্তারিত কোন খবরের লিঙ্ক দিতে পারবে? আর সালাউদ্দিন নাকি সাফ ফুটবলের সভাপতি হচ্ছে, এইটাও বিস্তারিত জানা হয়নি… আশা করি এর মাধ্যমে সালাউদ্দিন আমাদের ফুটবলের জন্য অনেক কিছু করতে পারবে।

ম্পিউটার ব্যবহার করার শুরু থেকেই এর প্রধান আকর্ষন ছিল আমার কাছে গেমস। প্রথম দিকে বিভিন্ন ধরনের গেমস খেললেও পরবর্তীতে সেটা শুধু ফিফা তেই সীমাবদ্ধ হয়ে যায়। তবে আরেকটা যেটা নিয়মিত খেলা হতো সেটা হলো সলিটায়ারমাইন সুইপার আর স্পাইডার সলিটায়ার মাঝে মাঝে খেলা হলেও ফ্রিসেলটা খেলা হতো না, বুঝতামই না। তবে কিছুদিন আগে এইটার নিয়ম কানুন জানার পর থেকে প্রায়ই খেলতাম । তবে ইদানিং পুরা ফ্রিসেল এডিক্ট হয়ে যাচ্ছি (ইতিহাসে প্রথম মনে হয়) কিছুক্ষন পরপরই একটা গেম খেলে ফেলছি।

বশেষে সমকালিন সিসিবি ধারা বজায় রেখে একটা গান দিলাম , ওয়ারফেজের একটি ছেলে, কয়েকদিন খালি এইটা আর আলো শুনছি… ওয়ারফেজ রিয়েলি রকস (আলো গানটা এখানে দিতে পারলাম না… কেউ কি হেল্প করতে পারবে? )

( লেখাটা পড়ে আমার নিজেরই মনে হচ্ছে পুরা বখোয়াজ কেউ পড়ে বিরক্ত হলে দুঃখিত… আসলে লিখতে ভাল লাগছিল তাই লেখা… )

২,৬৩৫ বার দেখা হয়েছে

৪৬ টি মন্তব্য : “সাপ্তাহিক…(২)”

  1. মঞ্জুর (১৯৯৯-২০০৫)
    লেখাটা পড়ে আমার নিজেরই মনে হচ্ছে পুরা বখোয়াজ কেউ পড়ে বিরক্ত হলে দুঃখিত… আসলে লিখতে ভাল লাগছিল তাই লেখা… )

    আরে ভাই,আমরা আমরাই তো...লেখা তো ভালই হইছে।হুদাই খালি ভাব ধরলেন ভাইজান। 😛 😛

    জবাব দিন
  2. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)

    মাশরাফির ব্যাপারে আমিও আশাবাদি হতে পারছি না। বিদ্রোহের খবরটা আমিও জানতাম না। দেখি ওয়েবসাইটগুলো কি বলে।
    অনেক দিন গেম খেলা হয়না। এজ অফ এম্পায়ার ৩ ডাউনলোড দিসি। দেখা যাক কেমন লাগে এটা।

    জবাব দিন
  3. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    সাম্প্রাসের ব্যাপারে তো দেখি তুমি আমি এক জায়গায়!! :thumbup:

    আর ফিফা তো আমার পোলার প্রিয় গেইম!! কেম্নে কি? এর বয়স এখন ১৩ মাত্র....... ;;;


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  4. শাহরিয়ার (১৯৯৬-২০০২)

    আরে আহসান!!! তুই তো কয়েক কলাম এর রিপোর্ট এক কলামেই লিখে ফেলেছিস। সাবাস!!!খুব ভাল লাগলো তোর সাপ্তাহিক বুলেটিন পড়ে।চালিয়ে যা...

    আমার কাছে আলো-র অডিও কপি আছে। কিন্তু কিভাবে আপলোড করব জানিনা।কেউ কি হেল্প করবে???

    জবাব দিন
  5. দিহান আহসান

    সলিটায়ার আর স্পাইডার সলিটায়ার
    ভাইয়া দেখি আমার মত, আমিও সেইম খেলা। 🙂
    আমার বর হছে খেলার পাগল, অর কাছেই খেলার সব খবর পাই। মাঝে মাঝে পত্রিকা খুললে অল্প-সল্প চোখে পরে।
    গত শনিবার ছোট খাট একটা আউটিং ছিল পতেঙ্গাতে
    ভাইয়ার কি চট্টগ্রাম থাকা হয় নাকি? 😮

    জবাব দিন
  6. রকিব (০১-০৭)
    এই সপ্তাহে বিকালে ফুটবল খেলা হইছে মাত্র ২ দিন, তবে এর মধ্যে সোমবার চরম খেলা হইছে, কেম্নে কেম্নে জানি আমি হ্যাট্রিক করে ফেলছি,

    দাড়ান ফার্গু মিয়ারে একখান ফোন দেই, শুনলাম রুনাল্ডুর জায়গায় নাকি লোক খুজতেছে :grr: :grr: ।
    ভাইয়া, লেখাটা ভালো পাইছি,; দারুন একখান সাপ্তাহিকলিপি।


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  7. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    আরে আকাশদা নিকি?তা মশাই আপনি এতদিন কোথায় ছিলেন?কত করে বললুম যে গোলন্দাজ বাহিনীতে থাকলেও কোলকাতাকে ভুলে যাবেন না-তা আর হল কোথায়।তা মশাই শুনেচি পতেঙ্গা সমুদ্রতীর নাকি কোলকাতার চাইতে অনেক বড়।সত্যি নাকি মশাই?ভাল করে কোর্স করুন মশাই-বাঙ্গালির মান রাখতে হবে না? 😀

    জবাব দিন
  8. শার্লী (১৯৯৯-২০০৫)

    ভাই আপনিতো দেখি জটিল ফুটবলার। যদিও আপনি আমার শত্রু গোত্রীয়, আমি আবার গোলকীপার কিনা 😛 ।

    লেখা পড়ে বিরক্ত হই নাই। তাইফুর ভাই কই গেলো। আহসান ভাইরে কিছু বলা লাগে যে।

    জবাব দিন
  9. @juna vai: freecell er #number 2 ta vul hoite pare. Amar pc te screenshot ase. Oita deikha janamu ne.

    Toy amago adnan er ekta record ase hearts e. Tana 4 ta shoot the moon koira felsilo . Group mail e disilo.
    0-26-26-26
    0-52-52-52
    0-78-78-78
    0--game over.

    Ami onek chesta koirao 3tar besi pari nai :((
    ar minesweeper e 16 sec easiest e ( andaze marsilam 😀 )

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।