পিলখানা, বিডিআর হেডকোয়ার্টারে ব্যাপক গোলাগুলি?!!

মাত্রই শুনলাম পিলখানা,বিডিআর হেডকোয়ার্টারে নাকি ব্যাপক গোলাগুলি হচ্ছে। সেটা নাকি অনেক আগে থেকেই হচ্ছে। কিন্তু মিডিয়াতে নিউজটা আসছে দেরীতে। হলে থাকি। টিভি দেখা হয়না। ব্লগই ভরসা। সামহোয়ারইনেও একই রকমের পোস্ট দেখলাম। সেখান থেকেই জানলাম বিডিআর এর একাংশ নাকি বিদ্রোহ করসে এই টাইপের নিউজ। এ ব্যাপারে কেউ কিছু জানেন নাকি? জানলে ডিটেইলস একটু শেয়ার করুন প্লীজ।

যতদূর জানি সামিয়া(৯৯-০৫) পিলখানাতেই থাকে বিডিআর কোয়ার্টারে। পরশুই বলতেসিল যে ওদের ওখানে কি উপলক্ষে প্রধাণমন্ত্রী আসছে। এইজন্য ব্যাপক কড়াকড়ি চলছে। টেনশন হইতেসে।

কেউ কিছু জানলে শেয়ার করুন প্লীজ।

১৮,৭২৭ বার দেখা হয়েছে

২৩৫ টি মন্তব্য : “পিলখানা, বিডিআর হেডকোয়ার্টারে ব্যাপক গোলাগুলি?!!”

  1. জিহাদ (৯৯-০৫)

    সাম ইনে একজনের পোস্ট থেকে পেলাম:

    দীর্ঘদিন ধরেই বিডিআর জওয়ানেরা নানা সুযোগসুবিধার দাবি করে আসছিলো। গতকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিডিআর সদর দপ্তরে যাওয়ার পরও এ ব্যপারে তাদের কোনো আশ্বাস দেননি। এ ছাড়া বিডিআরের সদস্যদের মধ্যে পদক বিতরণেও বৈষম্য হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে জওয়ানদের মধ্যে। এসব ঘটনায় বিডিআর সদস্যদের মধ্যে ক্ষোভ দানাবাঁধে। সম্ভবত, বিডিআর সদস্যরা এসব অভিযোগ নিয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ, যারা মূলত সেনাবাহিনীর সদস্য, তাদের সঙ্গে দেনদরবার করে। এ সময় বিডিআর জওয়ানেদের কেউ কেউ অফিসারদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছে। এর ফলশ্রুতিতেই এক পর্যায়ে গোলাগুলির ঘটনা শুরু হয়। তবে কারা আগে গুলি করেছে তা এখন পর্যন্ত স্পষ্ট নয়। মৃতের সংখ্যা নিয়েও মতবিরোধ আছে।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  2. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    আমার এক মেজর বন্ধু বলল ক্যু হয়েছে, বিডিআর এর এক অংশ, কিন্তু নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছে না, কারন সে যাদের কাছে ফোন করছে তারা কেউ রেসপন্স করছে না।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  3. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    লেটেস্ট খবর জারলাম। এক বন্ধুর মামা বিডিআর হেডকোয়ার্টারে থাকে সেই সুবাদে:

    বিডিআর এর টপ পোস্টগুলা আর্মি থেকে দেয়া হয়। এইজন্য বিডিআর এর জুনিয়র অফিসারের মধ্যে ক্ষোভ ছিল। জুনিয়র অফিসার কয়েকজন গিয়ে নাকি বিডিআর এর ডিরেক্টর ও সিনিয়র অফিসার কয়েকজনকে গুলি করেছে। এর ফলে সৃষ্ট অচলাবস্থায় ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বিডিআর দখল করার জন্য। বিডিআর রাইফেল্‌স স্কোয়ার এবং আশপাশ দখল করে শক্ত অবস্থান নিয়েছে। আর্মি ও বিডিআর গোলাগুলি চলছে। নিহত নাকি আসলেই কয়েকজন হয়েছে, তবে এটা নিশ্চিত করা যায়নি। আশপাশের এলাকায় অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। আশপাশের বসতবাড়ি থেকে গোলাগুলি ও ধোঁয়া দেখা যাচ্ছে।

    জবাব দিন
  4. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    সামিয়া ধানমণ্ডিতে। ওর বাবার সাথে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না। এজন্য বাসায় সবাই খুব টেনশন করছে। সে বোধহয় এই অবস্থায় আমাদের কিছু জানাতে পারবে না। সামিয়াকে ফোন করে এই খবর পাওয়া গেছে।

    জবাব দিন
  5. জিহাদ (৯৯-০৫)

    সামিয়ার সাথে মাত্র কথা হলো। ও বাইরে আছে। ওর আম্মু আর ছোট ভাই ভালো আছে। কিন্তু ওর আব্বুর সাথে কোন কনট্যাক্ট করতে পারছেনা। বেচারী খুব টেনশন করতেসে। সবাই একটু দোয়া করেন।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  6. জিহাদ (৯৯-০৫)

    সাম ইন এর আরেকটা পোস্ট থেকে:

    বিডিআর হেডকোয়ার্টারের বাইরে মোবাইল ফোন কানে চিৎকার করে কথা বলছে এক যুবক। কৌতুহলি সাংবাদিক তার দিকে এগিয়ে যান। গোলাগুলি-বিশৃঙ্খলার মধ্যে এই দৃশ্যটি অবশ্যই ব্যতিক্রম, আর সে জন্যই এটি দৃষ্টি আকর্ষন করেছে এই সাংবাদিকের।

    মাসুদের (ছদ্ম নাম ) সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তার ভাই আলম (ছদ্ম নাম) বিডিআর জওয়ান। তিনি ভেতরে আছেন। মাসুদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক মোবাইল ফোনে যোগাযোগ আছে। আলমের কাছ থেকে জানা গেছে, বিডিআরের দরবরা চলাকালে বিডিআর প্রধান, ডিজিকে গুলি করা হয়েছে। এ সময় আরো কয়েকজন সেনা কর্মকর্তাকেও গুলি করা হয়। ডিজি, বিডিআর নাকি প্রচন্ড দুর্ব্যবহার করতেন জওয়ানদের সঙ্গে এবং কৃৎসিত ভাষায় গালিগালাজ করতেন। ঘটনার সময়ও নাকি তিনি প্রত্যেককে অত্যন্ত অপমানজনকভাষায় গালিগালাজ করছিলেন।

    আর্মি বিডিআর সদর দপ্তরের দখল নেওয়ার চেষ্টা করছে। তবে বিডিআর জওয়ানেরা বলছেন, শেষ রক্তবিন্দু থাকতেও বিডিআর হেডকোর্য়ার্টারের দখল আর্মি বা অন্য কাউকে নিতে দেওয়া হবে না। আলম বলেছেন, আমরা নারা ধরণের ভারি অস্ত্র নিয়ে প্রস্তুত। মৃতু্কে ভয় পাই না। যদি আর্মি বিডিআর দপ্তর দখণ নিতে চায়, তবে যুদ্ধ হবে। বিডিআর জওয়ানেরা এখন সমঝোতা চাইছে। তারা চাইছে উচ্চ পর্যায় থেকে তাদের সমঝোতার প্রস্তাব দেওয়া হোক।

    উল্লেখ্য, এ তথ্যগুলো একজন বিডিআর জওয়ানের দেওয়া, সুতরাং একপেশে হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  7. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    ডেইলি স্টার এর আপডেট,

    Gunfights at BDR HQ reported
    Star Online Report

    Thousands of rounds of gunshots and mortar firing are rocking the BDR Headquarters and adjacent areas in Dhaka as “angry and aggrieved” BDR soldiers launched a violent and armed mutiny against their high command from around 7:45am.

    At least four army officers have been killed and dozens have been held hostage, claimed one of the protesting soldiers at BDR gate number-3 at around 10:30am.

    Sources said that the number of death could be much higher as the soldiers have been firing all sorts of weapons at all directions.

    Fire and smoke can be seen from the outer perimeters of the Bangladesh Rifles headquarters.

    According to reports from The Daily Star correspondents, heavy weapons like cannons have been used to damage some buildings, while the soldiers driving armoured vehicles were shooting at any attempt of the Rab or the Bangladesh Army to enter the BDR perimeter.

    With all of its three gates closed, hundreds of soldiers wearing red bandana and partly covering their faces with yellow clothes were seen staging armed processions in front of the gates—letting the people know that they were angry.

    “We have been deprived for a long time, we have deep grievances,” the soldiers chanted as their slogans.

    Meanwhile, due to the violent situation, all the adjacent markets including the New Market have been closed. Doors and windows of all nearby buildings have been closed.

    Thousands of people who have homes in the BDR headquarter area have remained stranded while many relatives of BDR officers and soldiers who had either came out of the perimeters or have just arrived from other places were seen crying for their near and dear ones who might have been held hostage by the situation.

    At about 11:45pm, army personnel were trying to enter inside the BDR headquarters as the BDR soldiers guarded all its gates.


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  8. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    বিডিআর রাইফেলস স্কয়ার মার্কেট দখল করে নিয়েছে। সিনিয়র অফিসাররা সবাই বিডিআর সিপাহীদের হাতে বন্দী আছেন। আর্মি বাইরে থেকে ঘেরাও করে রাখলেও ভেতরে ঢুকতে পারছে না।
    একজন বলেছেন: ৬ সিভিলিয়ান এবং ১৯ আর্মি অফিসার মারা গেছে। তবে এর কোন নির্ভরযোগ্য সূত্রে নেই। মিডিয়া কিছু বলছে না। সাধারণ মানুষেরাই এটা দেখেছে।

    জবাব দিন
  9. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    বিকাল ৩টা থেকে কার্ফ্যু ঘোষনা করা হয়েছে
    আর্মি থেকে হেভি আর্টিলারি বিডিআর এর দিকে যাচ্ছে।
    আশপাশে উতসাহী দর্শক এখনও আছে। মাঝে মাঝে নাকি বিডিআর সিপাহীদেরকে জনতার উদ্দেশ্যে হাত নাড়তে দেখা যাচ্চে।

    জবাব দিন
  10. রায়হান আবীর (৯৯-০৫)

    স্যামের সাথে কথা হলো একটু আগে।

    ওর বাবার সাথে এখনও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে তাদের ড্রাইভার (বিডিআর এর জোয়ান) এর সাথে মোবাইলে কথা হয়েছে। উনার কাছ থেকে জানা গেছে, যেসকল অফিসারের বিরুদ্ধে অভিযোগ নেই তাদের সরিয়ে আনা হবে। ড্রাইভার চেষ্টা করছে স্যামের বাবাকে সরিয়ে আনতে। যদিও প্রচুর পরিমানে গোলাগুলির কারণে কিছুই করা যাচ্ছে না।

    যতটুকু মনে হচ্ছে বেশ ভালো পরিকল্পনা নিয়েই মাঠে নেমেছে বিডিআর। এই ধরণের লিস্টিং সেই ইংগিতই দিচ্ছে।

    জবাব দিন
  11. বন্ধুগন, এখনো বুঝা যাচ্ছে না পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে। পিলখানার আশেপাশের এলাকায় ১৪৪ ধারা জারী করা হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত না হলে ঢাকা শহরে কার্ফিউ জারী হতে পারে।

    জবাব দিন
  12. সামীউর (৯৭-০৩)

    খবরে দেখলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী আহত হয়েছে। সব চ্যানেলেই একি টেপ ঘুরে ফিরে দেখাচ্ছে...কোন ডেফিনিট কিছু নাই...আর স্যামের বাবার জন্য শুভ কামনা।

    জবাব দিন
  13. তাইফুর (৯২-৯৮)

    মাজহার (রুবেল) কুমিল্লার ৯২-৯৮ ব্যাচের, ৪৩ বিএমএ ... ডিজি বিডিআর এর এডিসি ... ১০৩০ মিনিটে কথা হইছে ... এখন ফোন বন্ধ।


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  14. সামীউর (৯৭-০৩)

    টিভিতে বিডিআর সদস্যদের মোবাইল আলাপ মেগাফোন দিয়ে শোনানো হলো। সেনা-বিডিআর কোন্দল, অপারেশন ডাল-ভাতের কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি আর শাকিল-মঈন গং দের অত্যাচার এই বিদ্রোহের মূল কারন। রক্ত দেব তোবু সেনাবাহিনীকে পিলখানায় ঢুক্তে দেবোনা এই মন্ত্রে দীক্ষিত বিডিআর।

    জবাব দিন
  15. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    ETV একজনের সাক্ষাৎকার প্রচার করেছে, ভয়াবহ অবস্থা, মঈন আর শাকিল বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ, অনেকটা আর্মির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনার মত লাগল।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  16. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    হতাশাজনক অবস্থা 🙁
    ডিফেন্সের বিদ্রোহ সেটা যে কারণেই হোকনা কেন এর সমাপ্তি কখোনোই সুখকর হয়নি। এছাড়াও ভেতরে অফিসার যারা আটকে আছেন তাদের পরিণতি নিয়েও কেউ কিছু বলছেনা। ফুটেজ দেখে সর্বাত্মক বিদ্রোহই মনে হচ্ছে। খুব খারাপ অবস্থা 🙁 🙁


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  17. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    ভালো লাগতেসে না...
    আগে নাহয় বিএসএফ-নাসাকা বাহিনীর হাতে গুলি খায়া সীমান্তে মইরা থাকতো...আজকে তো স্বদেশী জলপাই ভাইদের হাতে লাশ হয়ে পিলখানায় পইড়া থাকবে...


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  18. জিহাদ (৯৯-০৫)

    প্রধাণমন্ত্রীর পক্ষে দুই জন কথা বলার জন্য বিডিআর হেডকোয়ার্টার এ গেছেন সাদা পতাকা নিয়ে। জাহাঙ্গীর আলম নানক আর মির্জা আজম। এখনো ভেতরে ঢুকতে পারেনাই। বাইরে থেকে হ্যান্ডমাইকে বিডিআর এর সদস্যদের সাথে কথা বলতেসে। সাথে আর্মি বা কোন ধরণের নিরাপত্তা কর্মী নাই। রেডিও নিউজে শুনলাম এইটা।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  19. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    সামিয়ার আব্বা কি বিডিআর এর অফিসার? নাকি আর্মি থেকে ডেপুটেশনে?
    আংকেলের কোন আপডেট থাকলে জানায়ো/জানায়েন...

    আমার শ্বাশুড়ী ও শ্যালিকা মীনাবাজারের সামনে এক বিল্ডিং এ আটকা পড়সিলেন...এখন অবশ্য বাসায় ফিরতে পারসেন...আর্মি নাকি পিঁপড়ার মত সারা রাস্তা ছেয়ে ফেলছে, ক্রলিং করে আগাচ্ছে...


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  20. জিহাদ (৯৯-০৫)

    ঠিক দুইজন না, আসলে ঢুকসে চারজন। বাকি দুইজন সংসদ সদস্য। একজন পুরুষ এবং একজন মহিলা। পুরুষ সদস্যটি হচ্ছেন কর্ণেল তাহেরের ভাই । আর মহিলা হচ্ছেন গাইবান্ধার এম পি।

    আর অন্যদিকে বিডিআর সদস্যদের পক্ষ থেকেও রাইফেলস স্কয়ারের সামনের এটিএম বুথে সাদা পতাকা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  21. সামীউর (৯৭-০৩)

    ইটিভিতে কিছু বিদ্রোহী বিডিআর জওয়ানদের সাক্ষাতকার শোনালো। অনেক আর্মি অফিসারের বিডিআর এ এসে দুর্নীতির খবর বাইর হয়ে আসতেসে...আর এই জন্যি মনে হয় সেনাবাহিনী এতো দুশ্চিন্তার মধ্যে আসে। এতো অন্যায় অবিচার সহ্য করে রাতের আঁধারে সীমান্তে গুলি খেয়ে মরার চেয়ে এখানে একতাবদ্ধ একটা দাবীর জন্য জীবন দেওয়া অনেক ভালো মনে করতেসে বিডিআর জওয়ান রা। এটলিস্ট লাশটা তো পাওয়া যাবে...সীমান্তে মারা গেলে তো লাশও ফেরত দেয়না।

    জবাব দিন
    • তাইফুর (৯২-৯৮)

      সামীউর এর মন্তব্যে কষ্ট পাইলাম ...

      অনেক আর্মি অফিসারের বিডিআর এ এসে দুর্নীতির খবর বাইর হয়ে আসতেসে…আর এই জন্যি মনে হয় সেনাবাহিনী এতো দুশ্চিন্তার মধ্যে আসে।

      স্বল্প শিক্ষিত, উচ্ছৃংখল বিডিয়ার জওয়ান এর এক পেশে মন্তব্য শুনে করা মন্তব্যটা বড় বেশি জেনারালাইজড হয়ে গেল।


      পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
      মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

      জবাব দিন
  22. জিহাদ (৯৯-০৫)

    বিদ্রোহী বিডিআর সদস্যগণ সাধারণ ক্ষমা দাবী করেছেন। না হলে ধ্বংসাত্নক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন।

    একই সাথে তারা দাবী করেছেন বিডিআর প্রধাণ সহ আরো বেশ কয়েকজন আর্মি অফিসারকে তারা জিম্মি করে রেখেছেন। আর একজন আর্মি অফিসার নিহত হয়েছেন। তার নাম জানা যায়নি।

    খবর: রেডিও এবিসি।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  23. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    সূত্রঃ আমার ব্লগ

    অবশেষে বিডিআর তাদের দাবি দাওয়া পেশ করলো!

    একটু আগে বিডিআরের একজন মুখ ঢেকে সাংবাদিকদের সামনে এসে বল্লো, “নিউমারকেটের ৩ নামবার গেট হাসিনা ও স্বরাস্ট্রমন্ত্রীর জন্য খোলা।আমরা আপাতত বিদ্রোহ থামাইলাম।তারা আসলে তাদের স্বাদরে গ্রহন করা হবে ও আমাদের দাবিদাওয়া পেশ করা হবে ও আমাদের সাধারন ক্ষমা করতে হবে”ঐলোক আরো বলেন, যেহেতু বিডিআর সপ্তাহ চলতেছে তাই ১৫০০০ বিডিআর তাদের সাথে ভিতরে আছেন।


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  24. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    ১৪সদস্যের বিদ্রোহী বিডিআর প্রতিনিধি দল আলোচনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সরকারী বাসভবন 'যমুনা'য় পৌঁছেছেন...

    কিন্তু এখনো পিলখানার ভেতরে বিক্ষিপ্ত গোলাগুলি ও বিস্ফোরণের আওয়াজ পাওয়া যাচ্ছে

    সূত্রঃ এটিএন বাংলা প্রতিঘন্টার সংবাদ...বিকাল ৪ ঘটিকা


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  25. সামীউর (৯৭-০৩)

    বাংলা ভিশন ও চ্যানেল আই এর রেজওয়ান কাদের (কচি ভাই) এর রিপোর্টে দেখলাম বিডিআর জওয়ানরা টিভি মিডিয়াতে শাকিল ও তার স্ত্রীর রাইফেলস পাব্লিক স্কুল, ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল, দরবার হল ও মার্কেট এর অনিয়ম নিয়ে অনেক টাকা আত্মসাত অ দুর্নীতির অভিযোগ করতেসে। এসব যদি সত্যি হয় তাহলে কেচো খুড়তে অনেক বড় সাপ বের হয়ে যাবে, ফেঁসে যাবে আর্মির অনেকেই।

    জবাব দিন
  26. শার্লী (১৯৯৯-২০০৫)

    এই ঘটনাকে রাজনৈতিক আঙ্গিকে উপস্থাপনের চেষ্টা করা হবে বলেই আমার ধারনা(বস্তুত আমি নিশ্চিত)। সমস্যার গভীরে পৌছানোর কথা কেউ ভাববে না, এই হল কষ্টের কথা।

    জবাব দিন
  27. ফরিদ (৯৫-০১)

    সাড়ে চারটা বাজে। আমি ইউনিভার্সিটিতে, জহুরুল হক হল থেকে এতক্ষণ হেলিকপ্টার আর টুকটাক গুলির আওয়াজ পাচ্ছিলাম। আপাতত সব শব্দই থেমে গেছে। প্রায় ১৫ মিনিট হল গুলির কিংবা হেলিকপ্টার এর শব্দ পাচ্ছি না। আশা করা জায় প্রধান মন্ত্রী সাথে বি। ডি আর প্রতিনিধি দলের আলোচনা ফলপ্রসু হতে যাচ্চে।

    জবাব দিন
  28. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    সূত্রঃ বিডিনিউজ২৪.কম ভায়া আমারব্লগ
    সরি, কপি-পেস্টটা বেশি লম্বা হয়ে গেল 😕
    সেনা কর্মকর্তাদের প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিডিআর সদস্যরা

    ঢাকা, ২৫ ফেব্র”য়ারি ঢাকা, ২৫ ফেব্র”য়ারি (বিডিনিউজ ২৪ ডটকম)- বিদ্রোহী বিডিআর সদস্যরা তাদের বাহিনী থেকে সেনা কর্মকর্তাদের প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে। একইসঙ্গে তারা বিসিএস ক্যাডারভূক্ত কর্মকর্তা নিয়োগের কথাও বলেছেন।

    বিকেল তিনটায় আজিমপুর বিডিআর তিন নাম্বার গেটে প্রহড়ারত বিডিআর সদস্যরা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রতিবেদক মারুফ মলি�ক ও সায়েদুল ইসলাম তালাতের কাছে এসব দাবির কথা বলেন।

    তারা এই সংকট সমাধানে দ্রুত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান। মুখে লাল কাপড় বাঁধা ও রাইফেলের মাথায় লাল পতাকা লাগানো অবস্থায় এক বিডিআর সদস্য এই পরিস্থিতির জন্য তাদের বাহিনীতে সেনা বাহিনী থেকে আসা কর্মকর্তাদের দায়ী করেন।

    তিনি বলেন, “আমাদের কেবল বেতন-ভাতার বৈষম্যই নয়, অফিসাররা আমাদেরকে চরমভাবে নির্যাতন ও সাজা দিয়ে থাকেন। অন্যায়ভাবে অফিসাররা আমাদের র‌্যাংক খুলে নেয়।

    বিডিআর সদস্যরা বলেন, “ঘটনাস্থল থেকে সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করে যতক্ষন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী না আসবেন ততক্ষন এই সমস্যার সমাধান হবে না। প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রীপরিষদের সদস্যদের জন্য তিন নম্বর গেট উন্মুক্ত রয়েছে। তারা আসলে তাদের নিরাপদে ভেতরে নিয়ে আসা হবে। সেখানে তাদের পক্ষ থেকে আলোচনার জন্য নায়েক শহীদ প্রস্তুত রয়েছে।”

    এক প্রশ্নের জবাবে টহলরত বিদ্রোহী বিডিআর সদস্য ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, “আমাদেরকে সরকার থেকে যে রেশন দেওয়া হয় তার পুরোটা আমরা পাই না। অর্ধেক রেশন অফিসাররা নিয়ে নেয়। এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালে সৈনিকদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও তাৎক্ষনিক শাস্তিও দেওয়া হয়েছে।”

    তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে নেওয়া ডাল-ভাত কর্মসূচিতে কোটি কোটি টাকার দূর্নীতির কথা তুলে ধরে বিদ্রোহী অপর এক সদস্য বলেন, “কিরকম দূর্নীতি হয়েছে শুনলে আপনারাই শিহরিত হয়ে উঠবেন। মালোয়েশিয়া থেকে কেজিপ্রতি ৩৩ টাকায় আমদানি করা সয়াবিন তেল ১৪০ টাকায় বিক্রি করেছে বিডিআরের অফিসাররা। ডাল-ভাতের কর্মসূচির বদৌলতে সেনাবাহিনী থেকে আসা অফিসাররা নিজেদের বাসায় কতদিন বাজার করেনি তা সৈনিকদের সবাই জানে।”

    ওই সৈনিক জানান, তাদের সমস্যাগুলো দীর্ঘদিন থেকে উর্ধ্বতন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কাছে বলা হয়েছে, সরকারের কাছেও জানানো হয়েছে। কিন্তু কোন ফল হয়নি। আজকের এই পরিস্থিতি একদিনে তৈরী হয়নি।

    সৈনিকরা এই প্রতিবেদকের সঙ্গে কথা বলার সময় দুদফা রাইফেল থেকে উপরের দিকে ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে এবং মাইকের মাধ্যমে তাদের দাবি-দাওয়া জনগণের উদ্দেশ্যে প্রচার করতে থাকে।

    বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/এলএইচ/এমআর/জেএফ/আরএইচএন/এজে/এফএফ/এসকে/১৫৫৮ঘ.


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  29. সামীউর (৯৭-০৩)

    আর টিভিতে প্রচারিত নাজনীন মুন্নির রিপোর্টে বিডিআর জওয়ানদের দুটি চিঠি পড়ে শোনানো হয়েছে। চিঠিতে বিডিআর জওয়ানদের উপর সেনা অফিসারদের বৈষম্যমূলক আচরণ, অপারেশন ডাল-ভাতের দুর্নীতি, ও অন্যান নানা দুর্নীতির অভিযোগ আনা হয়েছে।
    এগূলো সত্যি হলে 'দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী'র অন্ধকার দিকটি জনগণের কাছে ফুটে উঠবে।

    জবাব দিন
  30. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    সামিয়ার আব্বুর খবর কি? কোন আপডেট পাওয়া গেছে কি?

    আর আমরা আপাতত না জেনে কোন পক্ষকেই দোষারোপ না করি। ভাল হবে না ব্যাপারটা। এইটা অনেকদূর গড়াবে তাই আপাতত আমরা আমাদের মন্তব্যের ব্যাপারে একটু চিন্তা করে মন্তব্য করি। কারো নামে কিছু উদ্ধৃতি করা থেকে বিরত থাকি যেহেতু এইটা একটা পাবলিক মাধ্যম।

    জবাব দিন
  31. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    বিদ্রোহ দমনের লক্ষে বিডিআর সদর দপ্তরে ঢোকার চেষ্টা করছে সেনাবাহিনীঃ হেলিকপ্টার থেকে হামলা
    Wednesday, 25 February 2009 16:41

    সূত্রঃ আরটিএনএন


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
    • সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

      টাইম দেইখা মনে হয় যে, প্রধানমন্ত্রীর সাথে বৈঠক শুরু হওয়ার পরে হেলিকপ্টার হামলা শুরু হইসে... 😮
      তবে এই সূত্র কতটা নির্ভরযোগ্য- আমি জানিনা...


      "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
      আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

      জবাব দিন
      • কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

        চ্যানেলগুলার লাইভ নিউজে এটার কোন আলামত নাই আপাতত।
        খুবই কম্প্লিকেটেড অবস্থা।
        বিডিআর সিভিলিয়ানদের উপর গুলি করছে বিক্ষিপ্ত, ভয় লাগানোর জন্যেই হয়তো। ভেতরের আটকা পড়া অফিসারদের কোন খবর নেই। গেইটের জওয়ানরা এ ব্যাপার এড়ায়া যাচ্ছে।


        সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

        জবাব দিন
  32. জিহাদ (৯৯-০৫)

    রেডিওতে আখাউড়া আরেকটা কোন এলাকার কথা জানি বললো মাত্র। বিডিআর জওয়ানরা ক্যাম্প দখল করে নিসে আর আর্মি অফিসারদের আটকায় রাখসে।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  33. তাইফুর (৯২-৯৮)

    কষ্ট পেলাম ... সামীউরের মন্তব্য গুলো খুব বেশি জেনারালাইজড হয়ে গ্যাছে। ভেতরের অনেক কিছু না জেনে একতরফা দুই একটা 'বিদ্রোহী'র বক্তব্য শুনে ...

    আমাদের সমস্যাটা এখানেই ... আমরা যখন যার কষ্টের গল্প শুনি তার প্রতি দরদ উথলে উঠে ... যে দাবী দাওয়া গুলো উঠে এসেছে তার দায়ভার এককভাবে সেনা বাহিনীর অফিসারদের দেয়া হচ্ছে কেন ?? এম্নিতেই কষ্টে আছি। পরিচিত অনেকে যুক্ত না হওয়া স্বত্বেও ভেতরে কেমন আছে, কিভাবে আছে ... বিদ্রোহের সময় বিদ্রোহীরা নিয়ম মেনে চলেনা ...

    sorry .... কি লিখতে কি লিখলাম


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
    • সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

      পোস্ট এবং মন্তব্য পড়তে পড়তে আমার এমন কিছু প্রতিক্রিয়া হচ্ছে। তাইফুরের আগেই সেটা প্রকাশ করা উচিত ছিল। কিন্তু বুঝতেই পারছো রেডিওর খবর নিয়া বড়ই পেরেসান আছি। তবে বিডিআর সদস্যদের ঢালাও অভিযোগ কতটা সত্যি, আবার একেবারে সব অসত্য কিম্বা সেনা কর্মকর্তারা সব চোর বা ফেরেসতা- এমন সব ব্যাপারে কেউ কোনো সিদ্ধান্ত টেনো না। সমস্যা অনেক গভীরে। এটা ভালোমতো জানা বোঝা দরকার। পাশাপাশি এর সঙ্গে দেশের রাজনৈতিক ভবিষ্যত, গণতন্ত্রের ভবিষ্যতও জড়িয়ে যাচ্ছে।

      বোঝা যাচ্ছে দুই পক্ষেই বেশ কিছু হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। ভেতরের প্রকৃত অবস্থা আমরা এখনো জানিনা। আর একটা জীবনও যাতে না যায় সেটাই কামনা করি। স্যামের বাবার জন্য দুঃশ্চিন্তা হচ্ছে। ওর মোবাইল নাম্বার জানো কেউ? আমাকে এসএমএস করতে পারো ০১৭১৩ ০৬৮৮৮৬।


      "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

      জবাব দিন
    • সামীউর (৯৭-০৩)

      তাইফুর ভাই...আমি কোন পক্ষকে দোষারপ করি নাই বা বা ফেরেশতাও বানাই নাই। আমি বলেছি "এগূলো সত্যি হলে"। আর ভালো খারাপ সব পেশাতেই আছে। মিডিয়াতে যেভাবে খবরগুলো এসেছে তার প্রেক্ষিতে আমার ব্যাক্তিগত মতামত মাত্র। এই ঘটনার পেছনেও হয়তো অনেক ঘটনা আছে ধীরে ধীরে তা উন্মোচিত হবে। তাইফুর ভাই আমি আবারো দূঃখিত।

      জবাব দিন
      • সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

        ধন্যবাদ সামীউর। এটাই মনোভাব হওয়া উচিত। প্রথমে আমরা সবকিছু ভালোভাবে জানি-বুঝি। তারপর এ নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করবো। কারো আত্মসমালোচনা থাকলে সেটাও হওয়া উচিত।

        যেমন একটা ঘটনা শুনলাম। আমাদের এক সহকর্মীর বাবা চাপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন ৬ মাস আগে। তার পরিবার আজো সব পাওনা বুঝে পায়নি। গতকাল বিডিআর সপ্তাহের অনুষ্ঠানে ওদের পরিবারকে দাওয়াতও দেওয়া হয়নি। উচিত ছিল নিহতকে সম্মান জানানো। তাকে মরনোত্তর পদক দেওয়া। যেটা হরহামেশা পুলিশ ও সামরিক বাহিনীতে হয়। এরকম ঘটনা একটা শৃঙ্খলাবদ্ধ প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের মানসিকভাবে ভীষণ আহত ও ক্ষুব্ধ করে।


        "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

        জবাব দিন
  34. মাসুম (৯২-৯৮)

    খন হঠাৎ করে বিডিআর থেকে সব অফিসার প্রত্যাহার করে নিলে সেই শূণ্যস্থান পূরন করবে কারা। আর অফিসার নিয়োগ দিতে হলে তাদেরকে সে ধরনের ট্রেনিং দেয়ার জন্য ট্রেনিং সেন্টার তৈরী করতে হবে। একজন সৈনিকের ট্রেনিং এর চেয়ে একজন অফিসারের ট্রেনিং এর খরচ বহুগুন বেশী। সেই টাকাই বা হঠাৎ করে আসবে কোথা থেকে? এখনকার শিক্ষিত তরুনদের আর্মিতে যোগদানেই আগ্রহ কম। বিডিআরে অফিসার পদে যোগদানে উৎসাহী যোগ্য প্রার্থী পেতে যথেষ্ট বেগ পেতে হবে।

    জবাব দিন
    • তাইফুর (৯২-৯৮)

      মাসুম ... ভাল বলছিস। আমার আরও অনেক বক্তব্য আছে এ ব্যাপারে। দাবী আদায়ের পদ্ধতি আর দাবীগুলো নিয়ে অনেক কিছু বলা যায়।

      কোনরকমে ম্যাট্রিক পাশ করে এমন সরকারী চাকুরী, মাস শেষে ৭/৮ হাজার টাকা বেতন ... তারপরও এত দাবী-দাওয়া। অফিসার, সৈনিক সমান ফ্যাসিলিটিস ... এইটা কোন প্রতিষ্ঠানেই কি আছে ?? যোগ্যতা অনুযায়ী স্যালারী ষ্ট্রাকচার, সুযোগ-সুবিধা। এখানে আর্মি অফিসারদের কি করণীয় ?? রেশন, বেতন, গাড়ী ...
      ষ্টেডিয়ামে দাড়ানোর আগে কি তারা জানে না যে যোগ্যতা অনুযায়ী তারা যে চাকুরীতে জয়েন করছে ... তার বিনিময়ে তাদের কি করতে হবে এবং তারা কি পাবে ??

      ডাল-ভাতের টাকার হিসাব সৈনিক চাই বে কেন ?? কি স্বার্থ তার ?? জবাবদিহিতা প্রয়োজন, তার জন্য ব্যবস্থা তো আছেই। কম্পলেইন করলেই হত ... বিদ্রোহ কেন ??

      ছুটি ... বিডিয়ারের সৈনিক ছুটি সারেন্ডার করে ... ক্যাম্পে না থাকলে ভাগ পাওয়া যায় না বলে।

      উর্ধতন কর্মকর্তা অপ্রাধ করলে শাস্তি তো দেবেনই ... অপরাধ না করে শাস্তি হলে ভিন্ন কথা। র‌্যাংক নিয়ে নেয় বলল ... কেন নিয়ে নেয় তা বলল না।

      বৈদেশিক মিশনে বিডিয়ারের সৈনিক কখনই ইউ এন মেনে নাবে না। যুদ্ধ করার মত ট্রেনিং তাদের নাই। কোন দেশের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স ইউ এন মিশনে গেছে ??

      তবে বিক্ষোভ যেহেতু হয়েছে ... কারণ নিশ্চই আছে। বেহুদা একপেশে আর্মি অফিসারদের উপর চাপিয়ে না দিয়ে ... দেখা যাক কি হয়।


      পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
      মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

      জবাব দিন
      • মাসুম (৯২-৯৮)

        একটা সময় ছিল যখন বিডিআরকে আর্মির জমাখানা হিসাবে ধরা হত। কিন্তু এখন সে অবস্থা নেই । ভাল ভাল অফিসারদের বিশেষ করে সিও হবার পর পরই বিডিআরে পাঠানো হচ্ছে পরীক্ষা করার জন্য। তাই এখনকার সিওরা আর আগের মতো উদাসীন নন। বরং অনেক ক্ষেত্রেই তারা এমন সব ব্যপারে হস্তক্ষেপ করছেন যা ইতিপূর্বে বিডিআর এর ব্যক্তিগত সম্পত্তির মতো ব্যবহার করত। এর ফলে অনেকেই সেনাবাহিনীর উপর রুষ্ট হয়ে উঠেছেন।

        জবাব দিন
      • সামীউর (৯৭-০৩)

        from the official website of BSF

        কোন দেশের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স ইউ এন মিশনে গেছে ??

        Friday, Feb 20, 2009

        B S F IN OTHER FIELDS

        BSF personnel are regularly deployed in United Nations peace keeping missions. They are also in great demand for being deployed to other organizations.

        A) UNITED NATION PEACE KEEPING MISSION

        i. UN Mission in Namibia during 1989

        ii. UN Mission in Cambodia during 1992

        iii. UN Mission in Mozambique during 1994

        iv. UN Mission in Angola during 1995

        v. UN Mission in Bosnia & Herzegovina during 1996, 1997, 1998, 1999.

        vi. UN Mission in Haiti during 1997

        জবাব দিন
  35. জিহাদ (৯৯-০৫)

    সামিয়ার সাথে মাত্র কথা হলো। আন্টি ভালো আছেন। কিন্তু আংকেলের সাথে কোন রকমের যোগাযোগ হয়নি এখনো। ও আছে ধানমন্ডিতে এক আপুর বাসায়। সবাইকে দোয়া করতে বলল....


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  36. মাজহার ভাইয়ের খবর পেয়ে একটু রিলিফ লাগতেছে, কিন্তু সামিয়ার বাবাকে নিয়ে এখনো টেনশন কাটেনি। কেউ খবর পাওয়া মাত্র জানাবেন আশাকরি। আপাতত স্যামের জন্য শুভ কামনা। আশা করি আঙ্কেল ভালো আছেন।

    লাবলু ভাইয়ের মতো বলি, ব্যাপারটা নিয়ে এখন কেউ একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়ে মন্তব্য কইরেন না। যেহেতু এতো বড় একটা সমস্যা হয়েছে, এর শিকড় নিশ্চয়ই অনেক গভীড়ে। সেটা নিয়ে পরে ডিটেইলস না হয় জানা যাবে, বা চেষ্টা করা যাবে। আমাদের বড় ভাই আছেন অনেক যারা মিডিয়াতে আছেন, আমাদের চেয়ে কাছ থেকে দেখছেন, আমাদের বড় ভাই আছেন যারা সেনাবাহিনীতে আছেন, যারা আমাদের চেয়ে ভালো জানেন পুরো ব্যাপারটাকে। তাদের কাছ থেকে আমরা পরে নিশ্চয়ই পুরো ঘটনার বিশ্লেষন পাবো, বা আরো গভীর ভাবে জানতে পারবো।

    আপাতত সবার জন্য শুভ কামনা।

    জবাব দিন
  37. লাবলু ভাই

    পরিস্থিতি এখন কোন পর্যায়ে আছে? সাধারন ক্ষমা ঘোষনা করার পর গুলাগুলি বন্ধ হউয়া ছাড়া অন্য অবস্থার উন্নতি হয়েছে কিনা বুঝতে পারছি না।
    বিডিআর তো দেখলাম এইমাত্র দাবি করছে সেনাবাহিনী ব্যারাকে ফিরে গেলেই একমাত্র তবেই তারা অস্ত্র জমা দিবে। সেনাবাহিনী কি ব্যারাকে ফিরে যাচ্ছে বা যাবে? মধ্যরাতে সঙ্ঘাত আবার হবার সম্ভাবনা আছে কি?

    আপনি অনেক ব্যস্ত, তারপরও আপনার কাছ থেকে জানলে একটু আস্বস্ত হই।

    জবাব দিন
  38. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    সবকিছুই স্বাভাবিক হবে, হতেই হবে। কারো দাবি আদায় হবে, কারোটা হবেনা। কারো শাস্তি হবে, কেউ বেঁচে ভাবে। কিন্তু আর্মি-বিডিআর সম্পর্কে যে গভীর ক্ষত উম্মোচিত হলো, সেটার কথাই ভাবছি।
    -এই সুযোগে আমার আর্মি-বিরোধীরা জিহাদী-ডাক দিয়ে না বসে।

    তবে প্রধান সিপাহশালার+বিডিআর প্রধানের জন্য আমার কোন সহানুভূতি নাই।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  39. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    বুধবার রাত পৌনে দশটার দিকে চার বিডিআর সদস্য বেরিয়ে এসে পিলখানার কাছের আম্বালা ইন হোটেলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী সাহারা খাতুনের সঙ্গে আলোচনায় বসেন। এ সময় আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর কবীর নানক, মীর্জা আজম ও ফজলে নূর তাপসও উপস্থিত ছিলেন।
    (বিডিনিউজ)

    জবাব দিন
  40. মো. তারিক মাহমুদ (২০০১-০৭)

    মাজহার (রুবেল) কুমিল্লার ৯২-৯৮ ব্যাচের, ৪৩ বিএমএ … ডিজি বিডিআর এর এডিসি … ১০৩০ মিনিটে কথা হইছে … এখন ফোন বন্ধ

    ভাই, মাঝহার ভাইয়ের কোন খবর জানেন কেউ। আমি উনার ব্যাপারে একটা নেগেটিভ খবর পাইছি। বেচারার জন্য খুবই চিন্তায় আছি... মাত্র কিছুদিন আগেই বিয়ে করল ... আল্লাহ, আমার শোনা খবরটা যেনো মিথ্যা হয়...

    জবাব দিন
  41. আদনান (১৯৯৭-২০০৩)

    ভয়ংকর একটা খবর শুনলাম; কতটুকু সত্যি জানিনাঃ

    ২৭ জন আর্মি অফিসার মারা গেছেন তার মধ্যে ১৭ জনই লেডি অফিসার। তাদের মারার আগে নাকি রেপ করা হয়েছে।

    এফসিসি'এর মাহবুব ভাই (র‌্যাব) দিলেন খবরটা।

    জবাব দিন
    • কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

      সেটাই, প্লিজ কোন গুজব নয়। 🙁
      খুব অস্থির লাগছে।
      সামিয়ার বাবার কোন খবর আছে কি? কি কষ্ট পাচ্ছে পরিবারগুলো 🙁
      কিভাবে সমাধান হবে এই ঘটনার!


      সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

      জবাব দিন
    • মাসুম (৯২-৯৮)

      বিডিআরে লেডী অফিসার নাই। তবে আমি খবর পেয়েছি অফিসারদের পরিবারের উপর অত্যাচার করা হয়েছে। অসমর্থিতভাবে জেনেছি ৩৭ জন মারা গেছে। মাঝহার সন্ধ্যা ৭ টায় বাসায় ফোন করেছিল তারপর আর কোন খবর নাই। বিডিআর কিছু অফিসারকে জীবিত রেখেছে Burgain করার জন্য। কিন্তু সেটা কারা বা কয়জন জানিনা।

      দাবী আদায়ের জন্য আন্দোলন করে Chaos সৃষ্টি করে দৃষ্টি আকর্ষণ করা এককথা কিন্তু কারো জীবন নাশের পর সেটা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায়না।

      জবাব দিন
    • সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

      আমার একটাই অনুরোধ, নিশ্চিত না হয়ে কেউ কোনো তথ্য দিও না। আমি সকাল থেকে এ পর্যন্ত কোনোবার ৮ জন, কখনো ২০ জন, আবার ১৬০ জন সেনা কর্মকর্তা নিহত- এমন নানা খবর পাচ্ছি। কিন্তু এ পর্যন্ত আমরা ভেতরে বাইরে মৃতদেহ পেয়েছি ৫ জনের। ভেতরের প্রকৃত খবর নানা রকম।


      "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

      জবাব দিন
  42. নাঈম (৯৪-০০)

    বেশী কিছু আশা কইরোনা ভাই,

    বেশীর ভাগই সকালেই মারা গেছেন। পরিবারদের অবস্থা ও তাই। আমি wish করি আমার খবরটা মিথ্যা হোক, কিন্তু আশাবাদি হওয়ার কিছু দেখি না। খুনি দের যারা দেখে, তাদের কেউ বাচিয়ে রাখে না।

    দোয়া করি সবাই।

    জবাব দিন
  43. আদনান (১৯৯৭-২০০৩)

    একটু আগে জানলাম এক RTV এর রিপোর্টার বলল, সকাল পর্যন্ত দেখা হবে, তার পর সারেন্ডার না করলে আর্মি আর এয়ারফোর্স সিরিয়াস এ্যাগ্রেসিভ একশন-এ যাবে।

    জবাব দিন
  44. তৌফিক (৯৬-০২)

    BDNews24 থেকেঃ

    ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২৫ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম) -- অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই বিদ্রোহী বিডিআর জওয়ানদের সঙ্গে সরকার একটা সমঝোতায় আসতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন অন্যতম আলোচক সাংসদ ফজলে নূর তাপস।

    এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন, আইজি নূর মোহাম্মদ ও আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বারোটা পঁচিশের দিকে পিলখানার ভেতরে ঢুকেছেন। শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত বুলেট প্র"ফ মার্সিডিজ গাড়ি নিয়ে তারা ভেতরে যান।

    বিডিআর জওয়ানদের সঙ্গে আলোচনা শেষে বুধবার রাত ১২ টার পর পর তাপস সাংবাদিকদের একথা বলেন।
    তবে তিনি কোনও নির্দিষ্ট সময় উল্লেখ করেননি।

    তাপস বলেন, "আমরা সবার সঙ্গে পর্যায়ক্রমে কথা বলেছি। একে একে সবার সাথেই কথা বলার চেষ্টা করেছি। আশা করি অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই একটা সমঝোতায় আসতে পারবো।"

    অস্ত্র সমর্পণের বিষয়ে তিনি বলেন, "ওরা ওদের মতো করে অস্ত্র সমর্পণ করবে। অস্ত্র সমর্পণের পর আমরা গিয়ে বিষয়টি নিরূপণ করে আসবো যে তা সঠিকভাবে হয়েছে কী না।"

    বিদ্রোহী বিডিআর জওয়ানরা সেনা বা পুলিশের বদলে নিজেদের কর্তৃপক্ষের কাছেই অস্ত্র সমর্পণ করতে চায় বলে তিনি জানান।

    তাদের সঙ্গে সরকারের কোনও চুক্তি হয়েছে বা হবে কী না জানতে চাইলে তাপস বলেন, "তাদের সাথে লিখিত চুক্তির দরকার নেই। হচ্ছেও না।"

    বিডিআর এর মহাপরিচালক এর সঙ্গে কোনও যোগাযোগ হয়েছে কী না জানতে চাইলে তিনি বলেন, "তার সাথে কোনও যোগাযোগ হয়নি।"

    তিনি বলেন, "দীর্ঘ আলোচনার পর প্রধানমন্ত্রী তাদের দাবিগুলো পর্যায়ক্রমে মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। এদের অনেকগুলো দাবিপূরণে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার প্রয়োজন।"

    তিনি জানান, সেখানে পরিবারের আটক সদস্যদের মুক্তির জন্য অ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হচ্ছে। এর মধ্যেই তাদের অনেকে মুক্তি পেয়েছেন।

    তিনি বলেন, "এই এলাকাতে কোনও সেনা মোতায়েন নেই। এটা জানতে পেরেই তারা অস্ত্র সমর্পণে রাজী হয়েছেন। অস্ত্র সমর্পণ হওয়ার সাথে সাথেই আমরা ভেতরে যাবো।"

    জবাব দিন
  45. সাজিদ (২০০২-২০০৮)

    Dhaka, Feb 25 (bdnews24.com)—At least two senior officers and three civilians were confirmed dead in an armed rebellion by Bangladesh Rifles personnel on Wednesday, police and hospital officials said.

    Col Mujibul Huq, who commanded the Dhaka Sector and headed the emergency government's Operation Daal-Bhat, was killed at the early stage of the mutiny.

    The body of Lt Col Enayet, commander of 36 Battalion, was found alongside Huq's. Both were dumped in a drain behind the BDR compound, Kamrangirchar police SI Ataur Rahman told bdnews24.com.

    জবাব দিন
  46. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    এই মাত্র সামিয়া ফোন করেছিল। বেশ কিছুক্ষণ আগে ওদের বাসায় জওয়ানরা ঢুকে আলমারি হাতড়ে অলংকার যা পেয়েছে নিয়ে গেছে। কিছুক্ষণ পরপর জওয়ানরা বাসার দরজা ধাক্কাধাক্কি করে। বাইরে থেকে কথা বলে চলে যায়। অরাজকতার চূড়ান্ত।

    সামিয়া বাসার বাইরে এক আত্মীয়ের বাসায় আছে। ওদের বাসায় মা, ভাই এবং কাজের বুয়া আছে এই মূহুর্তে। বাবার খবর সামিয়া বা ওর মা কেউই জানেন না। আমি ওকে বললাম সিসিবির সবাই তোমাদের পরিবারকে নিয়ে উদ্বিগ্ন। ও সবার কাছে ওর বাবা-মা-ভাইসহ সবার জন্য দোয়া চেয়েছে।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
    • সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

      রাত ২টার খবর : এবিসি রিপোর্টার বিডিআর গেইট থেকে এইমাত্র জানাল, সাহারা, আইজি এখনো পিলখানার ভেতরে। পৌণে ২টায় অস্ত্র সমর্পন করতে শুরু করেছে। ওরা বিটিভির ক্যামেরাম্যান খুঁজছে। সুযোগ থাকলে এবিসি শুনো। আধ ঘন্টা পরপর। এরপর আড়াইটায়। তবে ব্রেকিং খবর পেলে সঙ্গে সঙ্গে সেটা প্রচার করবো।


      "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

      জবাব দিন
      • তৌফিক (৯৬-০২)

        সবকিছু যেন ভালোয় ভালোয় শেষ হয়। আমার ব্লগে কিছু খবর পড়লাম, পড়ে মাথায় রক্ত উঠে গিয়েছিল। জোরালো কোন সূত্র না থাকায় পরে গুজব বলে মেনে নিয়েছি।

        যা ক্ষতি হওয়ার হয়েছে, এখন যেন এই উন্মাদনা ভালোয় ভালোয় শেষ হয়। রাত তিনটা চারটার দিকে ভালো খবরের আশায় বসে থাকলাম।

        অনেক অনেক ধন্যবাদ লাবলু ভাই।

        জবাব দিন
  47. so many so called intellectuals are talking about each and everything under the sun....... but i just do not understand...., why nobody is talking about any officers and their family inside????
    so far my information goes, there were minimum 48 officers present in bdrhq.
    and what about the resident family members??????
    somebody........., anybody, please response.
    the environment is becoming very unbecoming!

    জবাব দিন
  48. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    বিডিআর গেইটে যাচ্ছি। দেখি কি অবস্থা! বেশ কিছুক্ষণ ব্লগে থাকবো না। পরিস্থিতি ভালো দেখলে পিলখানার ভেতরে ঢুকার চেষ্টা করবো। স্যামের বাবার খোঁজ করবো। ভালো থেকো সবাই।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
    • তৌফিক (৯৬-০২)

      একটু অপেক্ষা কর, লাবলু ভাই আসলে জানা যাবে। সর্বশেষ সংবাদ হচ্ছে, টিভির ক্যামেরাম্যানদের সামনে বি ডি আর জোয়ানরা অস্ত্র সমর্পণ করবে, সাহারা খাতুন পিলখানার ভেতরে আছেন। জিম্মি অফিসারদের নিয়ে নির্ভরযোগ্য কোন সংবাদ নাই এখনো।

      জবাব দিন
  49. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    সব গুজব মিথ্যা হোক।

    সেই সাথে আমার মনে একটা খুবই ভয়াবহ দুশ্চিন্তা আসছে (এখন বলা বলবো না), সেটাও অমূলক হোক।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  50. তৌফিক (৯৬-০২)

    Dhaka, Feb 26 (bdnews24.com)— Curtain was about to fall on a long day's drama as BDR mutineers began giving up their guns and hostages early Thursday after a bold move by Bangladesh's first woman home minister to drive straight into the rebels' den.

    Sahara Khatun watched as the BDR mutineers began handing in their guns. The minister with no security also led hostages out of their homes in the residential blocks in the sprawling complex in downtown Dhaka.

    The news began tricking out more than two hours after the home minister led an unarmed team of four into a battle-scarred territory occupied by the heavily-armed BDR rebels.

    A top police official told bdnews24.com at around 2:30am that a section of the rebels had started surrendering their weapons. The official spoke on condition of anonymity.

    A member of the BTV crew called in by the BDR men said at 3:15am that he had seen guns being put down.

    "They surrendered their weapons in presence of the home minister," said Rafiqul Islam, a BTV cameraman, speaking to bdnews24.com correspondent Golam Mortuza by phone.

    "Sahara Khatun then went to the homes of BDR officers and got their families out," the BTV man said after coming out the compound that had plunged into complete chaos since the 9:30 Darbar called by the BDR chief, now believed killed by his own troops.

    There was no confirmation whether major general Shakil Ahmed was alive after reports all day of his death.

    bdnews24.com correspondent Sumon Mahbub, standing outside the main entrance to the headquarters, saw a "requisitioned" police bus enter the compound at 3:26am.

    The bus was greeted with gunfire—first with one single shot and then a burst of fire—ostensibly because it was being followed by three RAB vehicles.

    The shots diverted the three RAB microbuses with tinted windows, which were about to enter the compound, towards Rifles Square, the BDR-owned shopping centre right next to the main entrance.

    Mahbub said he believed the bus would be used to ferry the hostages out.

    Army troops had earlier pulled back from their positions around the BDR headquarters as the home minister, Sahara Khatun, drove into the besieged compound half an hour past midnight.

    Withdrawal of army units emerged as the key demand from the rebels after the prime minister, Sheikh Hasina, announced general amnesty during a two-hour meeting with a team of 14 BDR men.

    The 14, flanked by government negotiators state minister Jahangir Kabir Nanak MP and whip Mirza Azam MP, were driven straight to the prime minister's official residence at Hare Road from the blood-stained BDR compound.

    They arrived at 3.40pm and spent more than two hours with the prime minister. They were also joined, among others, by army chief Gen Moeen U Ahmed.

    The prime minister also told the 14 that she would meet their demands—no army in BDR command and better pay—in phases.

    On return to their headquarters, the 14, however, failed to get the message across to their fellow mutineers, who insisted on sending the army convoys back to their barracks.

    The home minister, at this stage, led a government team in nearly three hours of talks with the paramilitary mutineers at a hotel nearby.

    What transpired in the Ambala Inn talks could not be known, but the minister drove into the den of the armed rebels, believed to be in their hundreds, for further negotiations.

    The minister, accompanied by state minister for law Quamrul Islam and police chief Noor Mohammad, was driven in a privately-owned bullet-proof SUV of the prime minister, Sheikh Hasina. A fourth person, described by correspondents as an aide to Sahara Khatun, was also in the vehicle.

    As the minister entered the BDR premises, the army convoys pulled back by hundreds of metres, bdnews24.com correspondents on the spot said.

    Two ambulances were seen waiting near the main entrance when the SUV carrying the ministers went in.

    bdnews24.com/lh/gma/rah/0350h.

    BDNews24 Update

    জবাব দিন
  51. মাসুম (৯২-৯৮)

    টিভিতে অস্ত্র জমা দেয়ার নাটক দেখলাম। কমপক্ষে পুলিশের আই জির তো জানা উচিৎ কিভাবে অস্ত্র জমা নেয়া হয়। কোন রেজিস্টার বা হিসাব নিকাশের ব্যবস্থা নাই। কে জমা দিল কে দিল না বোঝার উপায় কি? নাকি সেটা জানার আদৌ প্রয়োজন নাই?

    জবাব দিন
    • কামরুলতপু (৯৬-০২)

      ভাইয়া আমার মনে হয় এটা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখার জন্য করা হচ্ছে না। কারন স্বাভাবিক যদি নাম লেখার ব্যবস্থা করা হয় কারা জমা দিচ্ছে তাহলে কেউ এগিয়ে এসে অস্ত্র জমা দিবে না। কেউই চাইবে না নিজের নাম নোটেড হোক ।

      জবাব দিন
      • মাসুম (৯২-৯৮)

        ভাইয়া তোমার কি ধারনা এই ঘটনায় কারা জড়িত/উপস্থিত সেটা বের করা খুব কঠিন কিছু। বরং যারা নাম লেখাবে তারা সত্যিকার অর্থে অস্ত্র জমা দিয়েছে বলে দাবী করতে পারবে। কিন্তু BDR চাচ্ছেনা কি পরিমান অস্ত্র জমা হচ্ছে তার সঠিক সংখ্যা প্রকাশিত হোক। কারণটা কি সময় হলেই দেখতে পাবা।

        জবাব দিন
        • কামরুলতপু (৯৬-০২)

          আপনার কথায় যুক্তি আছে। তবে যেটাই হোক বিডিআর এর দাবিতেই নিশ্চয়ই ঐভাবে অস্ত্র জমা নেওয়া হচ্ছে। আপাতত ওদের সম্মিলিত বিদ্রোহ থামানো হোক এরপর বিচ্ছিন্ন ভাবে অস্ত্র রাখলেও সম্মিলিত বিদ্রোহ থেকে বেটার পরিস্থিতি থাকবে।
          আমাদের কলেজে আমরা বিদ্রোহ করেছিলাম রেজা-ইকবাল এর সময়। সেই অভিজ্ঞতা থেকে জানি আপনার এই যারা নাম লেখাবে তারা পরে দাবী করতে পারবে কথাটা ঠিক না। যাদের নাম নোটেড হয় তারাই সাফারার হয়। সাধারণ ক্ষমার কথাটা দুদিন পরেই চেঞ্জ হয়ে বলা হবে যে যারা সরাসরি জড়িত ছিল না তাদের জন্য সাধারণ ক্ষমা দেওয়া হল।
          আপনার মন্তব্যে খুব ভয় পাইছি এর আগেও আপনি কি যেন বলতেছিলেন খুব একটা খারাপ আশংকা করছেন আপনি। বুঝতে না পেরে আরো ভয় পেয়ে যাচ্ছি।
          সবচেয়ে খারাপ হবে যদি সেনাবাহিনী বিচার বহির্ভূত আচরণ শুরু করে। বিডিআরের প্রতি কোন সহমর্মিতা আমার আপাতত নাই। কারণ যারা লুঠ করে বাসা বাড়ি তাদের সাথে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর কোন পার্থক্য খুঁজে পাচ্ছি না।

          জবাব দিন
  52. সানাউল্লাহ ভাই, আমাদেরকে আপডেট খবর জানানোর জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। আরেকটু কষ্ট করে পিলখানার ভিতরে অবস্থিত অফিসারদের পরিবার বর্গের বর্তমান অবস্থা এবং অবস্থান কোথায় জানাতে পারবেন কি?

    সকলের জন্য, কেউ জানতে পারলে জানাবেন প্লিজ

    জবাব দিন
  53. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)
    নাকি সেটা জানার আদৌ প্রয়োজন নাই?

    হুম, এটা বেশ ভয়ের ব্যাপার।

    আর আর্মির বর্তমান অবস্থা কি? সেটাও ত খুব একটা বলছে না খোলাসা কইরা। ওরা কি আসলেই ফিরে গেছে, নাকি নিরাপদ দূরত্বে থেকে অপেক্ষা করছে নিরস্ত্র বিডিআরদের উপর ঝাপিয়ে পড়ার মুহূর্তটার জন্য?


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  54. মান্নান (১৯৯৩-১৯৯৯)

    আমার ছোটভাই বান্দরবন ক্যান্ট থেকে জানিয়েছে যে তাদের ওখানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক, তবে নিহতের সংখ্যা বেশি হলে, বা অফিসারদের ফ্যামিলি কোনভাবে ডিসঅনার হলে সেনাসোৈনিকদের সামলে রাখা খুব মুসকিল হয়ে যাবে। আজ রাতের উপর অনেক কিছু নির্ভর করছে।

    নিহত অফিসারদের সংখ্যার ব্যাপারে কোন সঠিক পরিসংখ্যান নেই ??

    সামিয়ার বাবার ব্যাপারে খুব উদ্বিগ্ন আছি। কোন খবর আছে ?

    জবাব দিন
  55. সাজিদ (২০০২-২০০৮)

    eimatro bdr hq theke army officerder family memberder ber hote dekhlam, shobai mohila r choto bachcha, bhabtei ga shiure uthteseje oi bdr kutta gulir jonno (sory rag shamlai rakte partesina) eto guli choto shishu onath hoe gese r etojon mohila bidhoba hoe gese, ain protimontri bolse prai 40-50 jon oficer naki mara gese, shobai ki durniti korse? je ebhabe tader mere fela lagto????? tader familir kotha ekbaro chinta korlona??? oi bdr shuor guli (abar sory) prottekta k shobar shamne jobai kora uchit tile uchit shikha hobe, r lokjon kina bdr gulir proti shohonabhuti dekhai, chih.....

    জবাব দিন
  56. হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    এই মাত্র সানা ভাই এর সাথে কথা হল । উনি এখনো বিডিআর গেটে । সামিয়া আছে উনার সাথে, ও আর আন্টি ভাল আছেন । আঙ্কেল এর কোনো খবর অবশ্য পাওয়া যায় নি এখনো । আল্লাহ উনাকে ভাল রাখুন এই প্রার্থনা করি ।

    জবাব দিন
  57. আমিও কথা বললাম ফোনে লাবলু ভাই , সামিয়া দুজনের সাথে। আঙ্কেলের খোঁজ চলছে এখনো।

    সমস্ত মনপ্রাণ দিয়ে চাইছি উনি যেখানেই আছেন ভালো আছেন, খুব তাড়াতাড়ি উনাকে খুঁজে পাবেন তারা।

    হাউ মাউ করে কান্না আসছে। আঙ্কেল আপনি ফিরে আসুন। সামিয়া, আন্টি, সিসিবির আমরা সবাই আপনার প্রতীক্ষায়।

    জবাব দিন
  58. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    এই মাত্র টিভিতে লেঃ কর্ণেল মুকিমের একটা লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনাল...লেখাটা অসম্পূর্ণ ছিল...বক্তব্য অনুযায়ী ঘটনার সূত্রপাতের পেছনে বিডিআর মহাপরিচালকের অবিবেচক মনোভাব দায়ী...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
    • কামরুলতপু (৯৬-০২)

      নিচে ফ্যাক্সটির হুবহু তুলে ধরা হলো:
      লেফটেন্যান্ট কর্নেল মুকিম (বিএ ৩০১৫)
      "আমি লে.কর্নেল মুকিম। আজকে সকালে দরবার হলে যা ঘটেছে তার জন্য ডিজি সাহেব দায়ী। কারণ দরবার চলাকালে কোন সৈনিক অস্ত্র নিয়ে দরবার হলে ঢোকে না।িি ড সাহেব প্রথমে দরবারে সবার কুশলাদী জিজ্ঞেস করেন। তিনি অপারেশন ডাল ভাতের লাভ-লোকসানের প্রসঙ্গ তোলেন। তিনি বলেন, বেশি একটা লাভ হয়নি। যে লাভ হয়েছিলো সেখান থেকে কিছু পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। বাকি হিসাব-কিতাব ঠিকমতো রাখা আছে। এই কথা সত্য ছিলো না বিধায় সৈনিক ও অফিসাররা এতে সাড়া দেয়নি। দরবারের মাঝে একটি সৈনিক উঠে দাড়ায়। সে বলে আমায় (অস্পষ্ট) করে ডাল-ভাতে অনেক লাভ হয়েছে। বিডিআরকে কেন মিশনে পাঠানো হচ্ছে না? এ কথার পর ডিজি সাহেব উঠে দাঁড়ান এবং রাগান্বিত হয়ে বলেন, কতবড় সাহস আমার দরবারে কথা বলে। এতে সৈনিকরা ক্ষিপ্ত হলে তৎক্ষনাত ডিজি চেয়ার থেকে উঠে গার্ডের অস্ত্র নিয়ে গোলাগুলি করেন। এতে একজন সৈনিক মারা যায়। কিন্তু �এরপর দরবার ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এরপর বিডিআর অস্ত্র নিয়ে আন্দোলন শুরু করে তাদের নায্য দাবীর পক্ষে।

      ১.সৈনিকদের দাবীগুলি নায্য।
      ২. যা কিছু ঘটনা ঘটেছে তার জন্য ডিজি ব্যক্তিগতভাবে দায়ী
      ৩.তাদের নিজস্ব অফিসার এখন সময়ের দাবী। যেমন করে পুলিশ আনছারের নিজস্ব অফিসার আছে।
      ৪.মিশনে বিডিআর যাচ্ছে না, যদিও খাতা-কলমে বিডিআর যাচ্ছে বলে কথা হচ্ছে। মূলত সেনাবাহিনী যায়।
      ৫. মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উভয় বাহিনীর কাছে ভারী অস্ত্র আছে, গোলাগুলি হলে সাধারণ জনগণ বাঁচবে না।
      ৬. বিডিআরের পক্ষ থেকে বলছি আপনার, রাষ্ট্রপতি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ সকলকে এখানে আসার নিরাপত্তা বিডিআর দেবে।
      ৭. বিগত দুটি রাষ্ট্রপতি সেনাবাহিনী কর্তৃক নিহত হয়েছেন।

      (bdnews)

      জবাব দিন
      • তৌফিক (৯৬-০২)

        বিবৃতির মূল কপি দেখলাম বিডি নিউজ ২৪-এ। আমি একে খুব বিশ্বাসযোগ্য বলবো না। অস্ত্রের মুখে এই বিবৃতি নেয়ার আশংকা উড়িয়ে দেয়া যায় না। বিশেষ করে শেষ লাইনটা, "বিগত দুটি রাষ্ট্রপতি।" একজন লেঃ কর্নেল দুজন না বলে দুটি বলবেন কেন? স্পেকুলেশন হচ্ছে হয়তো।

        জবাব দিন
  59. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    আইন প্রতিমন্ত্রীর কথা অনুযায়ী মৃতের সংখ্যা কমপক্ষে ৫০...
    প্রকৃত সংখ্যা কখনো জানা যাবে কিনা কে জানে??


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
        • (বিডিনিউজ ২৪ ডটকম)-- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন রাত ৪টার দিকে বিডিআর সদর দপ্তর থেকে বেরিয়ে এসেছেন। তার পেছনে কয়েকটি গাড়িতে বিডিআর অফিসারদের প্রায় ১৫টি পরিবার বের হয়।

          সাহারা খাতুনের নিয়ে যাওয়া বুলেট প্র"ফ গাড়িতে ছিল দু'টি পরিবার। একটি গাড়িতে ছিল স্কুল ব্যাগ কাঁধে একটি শিশু।

          তার পেছনে ছিল ঢাকা মেট্রো-গ ১২৬০৫৩ নম্বরের একটি টয়োটা কারিনা, ঢাকা মেট্রো-২৩৬২৪৮ নম্বরের একটি টয়োটা ফিল্ডার এবং গাজীপুর-জ ০৪০৪২৩ নম্বরের একটি বাস।

          একটি গাড়ি থেকে লেফটেন্যান্ট কর্নেল সৈয়দ কামরুজ্জামানের ছেলে সৈয়দ ইমামুজ্জামান বলেন, "আমার বাবা এখনও দরবার হলে আটকা আছেন। আমার বাবাকে বাঁচান।" ইমামুজ্জামান বলেন বিডিআর সদস্যরা তাদের বাড়িতে ভাংচুর করেছেন।

          স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন বাইরে এসে সাংবাদিকদের বলেন, "তারা আমাকে ভেতরে দরবার হলের কাছে একটি মাঠে নিয়ে যায়। তারা তাদের বিভিন্ন অভাব অভিযোগ খুলে বলল। আমরা তাদের কথা দিয়েছি- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে আশ্বাস দিয়েছেন তা রক্ষা করা হবে।"

          ভেতরে বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছেন বলে ভেতরে যাওয়া মন্ত্রীদের উদ্ধৃত করে একাধিক টিভি চ্যানেল জানিয়েছে।

          বিটিভির সৌজন্যে এটিএন বাংলা চ্যানেলে অস্ত্র সমর্পণের পাশাপাশি সাহারা খাতুনের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অফিসারদের পরিবারের সদস্যদের বের করে আনতে দেখানো হয়। তাদের অনেককেই দেখা যায় মানসিকভাবে রীতিমত বিধ্বস্ত।

          সাহারা খাতুন আরও বলেন, বিডিআর সদস্যদের তিনি বলেছেন- 'আমি তোমাদের মায়ের মতো। আমাকে তোমরা বিশ্বাস করতে পার। এখানে কিছুতেই সেনাবাহিনী আসবে না। "

          বিদ্রোহী বিডিআর সদস্যরা অস্ত্রাগারে অস্ত্র জমা দেয় বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

          জবাব দিন
  60. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    অস্ত্র জমা দেওয়ার কথা মনে হয় সঠিক না। আমার মনে হয় খুবই অল্প সংখ্যক জওয়ান অস্ত্র জমা দিচ্ছে এবং তারা মনে হয় একেবারেই জড়িত হয়েছে বাধ্য হয়ে। আসল যারা তারা মনে হয় না অস্ত্র জমা দিচ্ছে।

    জবাব দিন
  61. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    মিডিয়ার উচিৎ সহনশীল এবং বুদ্ধিদীপ্ত পদক্ষেপ নেওয়া। সবসময় সব কিছু প্রচার করাই এক মাত্র কাজ নয়। মাঝে মাঝে জাতির দুর্দিনে পাশে দাঁড়ানো ও মিডিয়ার কাজ হতে পারে। এখানে যাই হোক না কেন এখন সেটা প্রচার করে দেশের সবার কাছে পৌঁছিয়ে দিয়ে তথ্য প্রসার হয়তবা হবে কিন্তু তার কারণে যদি সীমান্তে ঝামেলা লেগে যায় তাহলে কিছুতেই দেশের ভাল হবে না।

    জবাব দিন
  62. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    এরশাদ চাচ্চু ভিতরে গেছেন...এক্টু পর মতিয়া চৌধুরী একটি দল নিয়ে ভিতরে যাবেন...
    সকাল যেহেতু হয়ে গেছে...পরিস্থিতির উন্নতি আশা করা যায়...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  63. কনক রায়হান (৯৮-০৪)

    আমারো তাই মনে হয়।।সীমান্ত এখন অনেক বড় ঝুঁকিতে।।সেইসাথে ঝুঁকিতে আছে ওখানকার আর্মি অফিসাররা।
    মিডিয়ার দায়িত্ব অনেক।এমন কিছু প্রচার করা উচিত না যাতে বিডিআর দের মনে হয় এই বিদ্রোহ যৌক্তিক।
    সামিয়ার বাবার জন্যে দোয়া করছি।আল্লাহ উনাকে হেফাজত করুন

    জবাব দিন
  64. লাবলু ভাইয়ের সাথে এইমাত্র কথা হলো।
    উনি অফিসে ফিরে এসেছেন। খুব টায়ার্ড। সারাদিন আবারো কাজ করতে হবে আর উনার নিজের শরীরও খুব ভালো যাচ্ছে না ইদানীং, তাই একটু রেস্ট নিতে বলেছি।

    সামিয়াকে সম্ভবত ওর বোনের বাসায় রেখে এসেছেন। আঙ্কেলের কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। আঙ্কেল না শুধু কোন অফিসারের খোজ পাওয়া যায় নি আসলে। কেউ কিছু বলতে পারে না। কেউ কিছু জানে না।

    আমি ভেবেছিলাম, আন্টি বোধহয় ওদের সাথে আছেন, কিন্তু এইমাত্র লাবলু ভাই জানালেন, আন্টি ভিতরে আটকা, তবে উনার সাথে কথা হয়েছে, উনি একটু ভালো আছেন। কিন্তু উনাকে উদ্ধার করতে কেউ তখনো যায় নি। উনাকে বলা হয়েছে উদ্ধার গাড়ি যাওয়া মাত্র তাতে করে বেরিয়ে আসতে।

    আর বাইরে থেকে কাউকেই এখনো ঢুকতে দিচ্ছে না।

    পরিস্থিতি আসলে কিছুই স্বাভাবিক হয়নি। এখনো আশঙ্কাজনক। লাশের সঙ্খ্যা শেষ যা শুনলাম তা অনেক বেশি।

    অসহায় হয়ে অপেক্ষা করা ছাড়া আর কিছুই করার নেই।

    জবাব দিন
    • তৌফিক (৯৬-০২)

      আমি তো আশাবাদী হয়ে উঠেছিলাম। বিডিনিউজ২৪ কি তাহলে খবর চেপে রাখছে? সেনাবাহিনীর অসন্তোষ চাপা দিতেই কি সরকারের পরামর্শে মিডিয়া চেপে যাওয়া শুরু করলো নাকি?

      সামিয়ার ফ্যামিলির জন্য দোয়া করা ছাড়া আর কিইবা করতে পারি?

      জবাব দিন
      • এক ধাক্কায় ১০০'র বেশি অফিসার যদি মেরে ফেলা হয়ে থেকে তাহলে সেনাবাহিনী সেটা সহজে মেনে নেবে ভাবছো? আমি আর তুমি মেনে নিচ্ছি?

        বিডিআরও জানে, যতই সাধারন ক্ষমা হউক, ওদের রেহাই নেই। ওদেরকেও ফাঁসিতে ঝুলতে হবে আজ হোক কাল হোক। আর তা না হলে আমার ধারনা, সেনাবাহিনী একশনে যাবে।

        খুব তাড়াতাড়ি এটা শেষ হচ্ছে না।

        দেখা যাক সরকার সেনাবাহিনী আর বিডিআর কাকে কিভাবে সাম্লায় !!

        জবাব দিন
    • অস্ত্র জমা দেয়ার ব্যাপারে কামরুলের আশঙ্কা ঠিক বলে মনে হচ্ছে। সবাই অস্ত্র জমা দিয়েছে কিনা নিশ্চিত না।
      বাইরে থেকে ভিআইপি যারা ভিতরে যাচ্ছে তাদের পুরো এলাকা দেখতে দেয়া হচ্ছে না। শুধু কিছু এলাকা দেখিয়ে আবার ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

      জিম্মি অফিসারদের বাসায় বিদ্যুত, গ্যাস, ফোন সব লাইন বিচ্ছিন্ন আছে। ফলে কোথায় কোন পরিবার আটকা আছে বুঝা যাচ্ছে না।

      উদ্ধারকারী গাড়িতে কাদের বাইরে পাঠানো হচ্ছে, কাদের হচ্ছে না এটাও এখনো পরিষ্কার না। তবে সবাইকে যে এখনো ছাড়া হয়নি এটা নিশ্চিত।

      জবাব দিন
  65. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    কামরুল তোমার আপডেট ঠিক আছে। আরো কিছু পরিবার ছাড়া পেয়েছে। আবার একটা আলোচনা চলছে। মির্জা আজম, তাপস ইত্যাদি নিয়ে।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  66. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    পুরো বিষয়টা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণের বাইরে মনে হচ্ছে। আমার ত মনে হচ্ছে বিডিআর'রা আসলেই ম্যাসাকার করে রেখেছে। তাইলে আর্মি বসে থাকবে কেনো? ওরাও ত রক্ত-মাংসের মানুষ, নাকি?

    কিন্তু আরো ভয়ের ব্যাপার হলো, এই সুযোগে আর্মি-বিদ্বেষীরা না আবার আর্মির বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করে বসে। অন্য ব্লগগুলাতে অলরেডী আর্মি-বিদ্বেষী প্রচার শুরু হয়ে গেছে।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  67. রেদওয়ান (৯৫-০১)

    এই ঘটনাটি একজন আর্মি অফিসার বন্ধুর কাছ থেকে শোনা। ২৪ তারিখ বিডিআর সদর দফতরে অবস্থানরত (ওই মুহুর্তে ঘটনাস্থলে আত্মগোপোনকারী) সেনা কর্মকর্তা মোবাইলের মাধ্যমে বর্ণনা করেছেন আমার আর্মি অফিসার বন্ধুর কাছে। তাঁর বর্ণনা মিডিয়া এবং সরকার কর্তৃক উপস্থাপিত তথ্য থেকে সম্পূর্ণ আলাদা।

    ২৪ তারিখ সকাল নয়টার কিছুক্ষন আগে দেশের বিভিন্ন বিডিআর ক্যাম্প থেকে আগত সর্বমোট ১৬৫ জন আর্মি কর্মকর্তা দরবার হলে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে এসেমব্লিতে শুধুমাত্র একজন অস্ত্রধারী অবস্থায় (বিডিআর চীফ মে জ়ে শাকিল আহমেদের দেহরক্ষী) উপস্থিত ছিল। এখানে উল্লেখ্য যে, কোন এসেমব্লিতে অস্ত্র বহন করার কোন নিয়ম না থাকায় কোন আর্মি অফিসার সশস্ত্র ছিলেন না। ৯টার দিকে দরবার হলে এ আলোচনা চলাকালীন অবস্থায় হঠাৎ করে দেহরক্ষী তার অস্ত্র বিডিআর-প্রধানের দিকে তাক করে। ঠিক একই সময় অতর্কিতে আরো কিছু বিডিআর সদস্য সশত্র অবস্থায় এসেমব্লিতে প্রবেশ করে এবং অস্ত্রের মুখে উপস্থিত সকল অফিসারদের বন্দী করে ফেলে। এখান থেকে ঘটনার সূত্রপাত। অতঃপর অস্ত্রের গুদাম থেকে বিডিআর সদস্যরা অস্ত্র নিয়ে অপারেশনে নেমে পড়ে। ঘটনাস্থলেই অনেক আর্মি অফিসারকে তাৎক্ষণিকভাবে হত্যা করা হয়। এরপর তারা অফিসারদের স্ত্রী ও পরিবার

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।