একুশে ফেব্রুয়ারি- রাত বারটার পরে

হঠাৎ থেমে গেছে বাতাস
গুমোট হয়ে গেছে চারদিক,
হিজল তমাল সুন্দরি গরান নুয়ে পড়েছে,
রাতচরা পশুপাখির ডাক
অথবা ঝি ঝি পোকার একটানা শব্দ এখন নেই,
একটু আগের উজ্জ্বল চাঁদের আলো
এখন অনুজ্জ্বল হয়ে শুধু উপস্থিতি জানান দিচ্ছে,
ঝিরি ঝিরি বাতাসে কৃষকের ধানক্ষেতে –
কম্পিত সবুজ পাতগুলো এখন আর নড়ছে না,
সমুদ্রের ফনিল ঢেউয়ের উদ্দামতা এখন আর চোখে পড়ে না,
কিচ্ছুক্ষন আগেও আকাশে মেঘ দেখিনি –
অথচ ঐ যে উত্তরে কিছু মেঘও জমতে শুরু করেছে,
পাশের বস্তিতে সদ্য জন্মানো শিশুটির কান্নাও থেমে গেছে ।
কিসের আগমনে এতো অদ্ভুত নীরবতা !
ঘড়ির দিকে দৃষ্টি দিতেই দেখি
আজ ফেব্রুয়ারির একুশ তারিখ
এখন রাত বারটা পেরিয়ে মিনিটের কাঁটা কিছু সময় এগিয়েছে মাত্র ।
শ্রদ্ধায় অবনত বাংলার মাঠঘাট পথপ্রান্তর
পলাশ শিমুল গোলাপ গাঁদা চন্দ্রমল্লিকা ঝরে পড়ছে,
কেননা একটু আগে যে বাংলার গর্ব এসেছে
সালাম এসেছে
বরকত এসেছে
রফিক এসেছে
শফিউর এসেছে
আরও কতো কতো এসেছে
বাহান্ন এসেছে,
এসেছে আমার ভাইয়ের রক্তের রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারী
আমি কি তোমায় ভুলিতে পারি ।
আমি কি তোমায় ভুলিতে পারি ।

৩২৮ বার দেখা হয়েছে

২ টি মন্তব্য : “একুশে ফেব্রুয়ারি- রাত বারটার পরে”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।