জগাখিচুড়ি পোস্ট

(১)
ক্লাস টুয়েলভে থাকাকালীন জনৈক সহপাঠীর আয়না পড়ার ঘটনা মনে পড়ল। আয়না পড়া ব্যাপারটা বেশ সহজ। টাওয়েল পরে কেউ যখন বাথরুমে যেতে থাকবে, তখন একজন জানালা দিয়ে তাকে ডেকে তার সাথে সিরিয়াস পড়াশুনা রিলেটেড কথা বার্তা চালাবে, এই ফাকে পিছন দিক থেকে এসে ২য় জন টাওয়েলের নিচ দিয়ে আয়না পড়া দিবে। সহজ লজিক। কিন্তু সমস্যা হল ওই সহপাঠীর আয়না পড়াতে কিছুই দেখা যায় নাই… শালা আসলেই “কালার কালা”

(২)
কলেগে স্টাফদের ইংরেজির দৌড়ের সাথে আমরা সবাই কম বেশি পরিচিত। ক্লাস নাইনে থাকাকালীন ঘটনা। আমাদের হাউসের স্টাফ হলো ফারুক স্টাফ। গেমস টাইমে এক ক্যাডেটকে ডেকে কথা বলছে। জুনিয়র একটা ছেলে আসল স্টাফকে বলে হাউসের টয়লেটে যাবে বলতে। স্টাফ খুব সিরিয়াসলি বললেন,
“আই টক, হি টক, হোয়াই ডু ইয়্যু মিডল টক?”

(৩)
ক্লাস সেভেনে থাকতে display board সাজানোর সময় ফর্ম মাষ্টার জাহাঙ্গীর স্যার বিভিন্ন রঙের poster paper কিনতে বলল… আমাদের ফর্মলিডার আর এসিস্টেন্ট ফর্ম লিডার মিলে এক গাদা বেগুনি আর কালো poster Paper কিনে নিয়ে আসল।
রংয়ের বাহার দেখে সবাই জিজ্ঞেস করল: “এই গুলা কি কালার এর poster paper নিয়ে আসছিস?”
লিডার আর তার এসিসটেন্ট কয়, “দেখিস জিনিসটা যখন দাঁড়াবে, তখন কি জোস হয়…”

এক সপ্তাহ পরে প্রিন্সিপাল সোহরাব আলি স্যার আর রেজাউর স্যার(ভিপি) এসে display board এর সামনে কিছুক্ষন দাড়ালো।
প্রিন্সিপাল, জাহাঙ্গীর স্যারকে বল্লঃ জাহাঙ্গীর সাহেব…
জাহাঙ্গীর স্যারঃ জি স্যার…
সোহরাব আলিঃ আপনার ফর্মের display board সবচেয়ে খারাপ হয়েছে, নাকি বলেন রেজাউর সাহেব?
ভিপি স্যারঃ এটা কিছুই হয় নাই…
………… ……… ……… ……
………… ……… ……… …..

২,২৯০ বার দেখা হয়েছে

২৫ টি মন্তব্য : “জগাখিচুড়ি পোস্ট”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।