স্বপ্নের দিন ও রাত

প্রিয়তমা,
ভাল আছ তুমি? নিশ্চয়ই ভাল আছ।
শিকলহীন পথে তোমার পথচলা খারাপ হওয়ার কথা নয়।

মাঝেমাঝে নিজের উপর অভিমান হয়।
অভিমান টা মাঝে মাঝে রাগে রূপ নেয়,
শান্ত হয় উত্তপ্ত গরলের ছোয়ায়।
অভিমান হয়,
অভিমান হয় তোমায় আগলে রাখতে না পারার কারনে।
কিন্তু কিভাবে তোমায় আগলে রাখি বলো ?
আমার কাছে যা আগলে রাখা,
তোমার কাছে তা আটকে রাখা।
খুব ই কাছের দুটি শব্দ, আবার খুব দূরের।
দুই মেরুর মত।

আমি চেয়েছিলাম দুজন মিলে ছোট্ট একটা ডিঙ্গিতে ভেসে বেড়াবো উন্মুক্ত সমুদ্রে,
আমাদের উত্তাল উন্মাদনা, হাঁসি কান্না,
সখের জলকেলি সব ওই ডিঙ্গি ঘিরে।
তুমিও ওই সমুদ্রেই ভাসতে চেয়েছিলে।
কিন্তু তুমি চেয়েছিলে-
সমুদ্রের উত্তালতার সাথে নিজেকে ভাসিয়ে ইচ্ছেখুশি সাঁতার কাটতে।
একই সাগরে আমাদের দু’মুখি ইচ্ছেতে- তোমারটা ই জয়ী হল।

আমি তুমি দুটি কপোত কপোতি হয়ে চিলেকোঠায় রোদ পোহাতে চেয়েছিলাম,
মাঝে মাঝে একসাথে মেলতে চেয়েছিলাম স্বপ্নডানা।
তুমি ও চেয়েছিলে ডানা মেলে ভেসে যেতে, তুমি চেয়েছিলে গগণ ছুঁতে , সূর্যের কাছে যেতে।
একই আকাশে আমাদের দুই রঙের ঘুড়ি ।
দুজনের ঘুড়ির সুতোয় সুতোয় –
কাটাকাটি খেলা খেলেছি আমরা,
তুমি ই জিতেছ,
আকাশে তোমার ঘুড়ি উড়ছে দিব্যি,
সুতো বিহীন ঘুড়ি নিয়ে উন্মুখ হয়ে বসে আছি আজও আমি।

ঘুড়ি ওড়ানোর শখ আজও যায় নি আমার।।

——————
২৬ ডিসেম্বর ২০১৩

২,০৮৫ বার দেখা হয়েছে

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।