অডিও ব্লগঃ মালতিবালা বালিকা বিদ্যালয়

মালতিবালা বালিকা বিদ্যালয়
————— জয় গোস্বামী

বেনীমাধব বেনীমাধব তোমার বাড়ী যাব
বেনীমাধব তুমি কি আর আমার কথা ভাব?
বেনীমাধব মোহনবাঁশিঁ তমাল তরুমূলে
বাজিয়েছিলে আমি তখন মালতি স্কুলে।
ডেস্কে বসে অঙ্ক করি ছোট ক্লাশ ঘর
বাইরে দিদিমনির পাশে দিদিমনির বর।
আমি তখন নবম শ্রেণী আমি তখন শাড়ী
আলাপ হলো বেনীমাধব সুলেখাদের বাড়ী।
বেনীমাধব বেনীমাধব লেখাপড়ায় ভাল
শহর থেকে বেড়াতে এলে আমার রং কালো।
তোমায় দেখে একদৌড়ে পালিয়ে গেলাম ঘরে
বেনীমাধব আমার বাবা দোকানে কাজ করে।
কুঞ্জে অলি গুঞ্জে তবু ফুটেছে মঞ্জুরী
সন্ধে বেলা পড়তে বসে অংকে ভুল করি।
আমি তখন নবম শ্রেণী আমি তখন ষোল
ব্রীজের ধারে বেনীমাধব লুকিয়ে দেখা হলো।
বেনীমাধব বেনীমাধব এতদিন পরে
সত্যি বল সেসব কথা এখনও মনে পড়ে?
সে সব কথা বলেছ তুমি তোমার প্রেমিকাকে?
আমি শুধু একটি দিন তোমার পাশে তাকে
দেখেছিলাম আলোর নীচে অপূর্ব সে আলো
স্বীকার করি দুজনকেই মানিয়ে ছিল ভালো।
জুড়িয়ে দিল চোখ আমার পুড়িয়ে দিল চোখ
বাড়ীতে এসে বলেছিলাম ওদের ভাল হোক।
রাতে এখন ঘুমাতে যাই একতলা ঘরে
মেঝের উপর বিছানাপাতা জোসনা এসে পড়ে।
আমার পরে যে বোন ছিল চোরা পথের বাঁকে
মিলিয়ে গেছে জানিনা আজ কার সাথে থাকে।
আজ জুটেছে কাল কী হবে কালের ঘরে শনি
আমি এখন এপাড়ার সেলাই দিদিমনি।
তবুও আগুন বেনীমাধব আগুন জ্বলে কই;
কেমন হবে আমিও যদি নষ্ট মেয়ে হই?

২,৯৪৪ বার দেখা হয়েছে

২১ টি মন্তব্য : “অডিও ব্লগঃ মালতিবালা বালিকা বিদ্যালয়”

  1. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    চেনা কবিতা পাঠ করতে আমার বড় ভয় করে, ভাইয়া! বহুল পঠিত কবিতা তাই বরাবর এড়িয়ে চলি আমি! এটি আবার গান আকারেও গীত হয়েছে, তাই ভয়ের মাত্রা আকাশচুম্বী।

    সাদামাটা এই পাঠটি আপনার ভালো লেগেছে জেনে আমার আনন্দের শেষ নেই! 🙂 🙂

    জবাব দিন
  2. সামিউল(২০০৪-১০)

    আপা, কিছু বলার ভাষা নাই। চমৎকার লাগলো। শুনতে শুনতে মনটা কিছু একটা হারানোর ব্যথায় ভরে যাচ্ছিলো।

    মনে আছে, আমাকে একদিন শুনিয়েছিলেন এই কবিতাটা??
    সেদিনও একইরকম অনুভূতি হয়েছিল।
    তবে আজকে ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকের জন্য বেশি সুন্দর লাগলো।
    এজন্য "তারা"কে আমার পক্ষ থেকে আদর জানাবেন।


    ... কে হায় হৃদয় খুঁড়ে বেদনা জাগাতে ভালবাসে!

    জবাব দিন
  3. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    আমার কমেন্ট কি যায় নাই?
    যাহোক, আবার দিচ্ছি।
    গানটা অনেকবার শোনা হলেও তোমার আবৃত্তি থেকে নতুন করে অনেক কিছু পরিষ্কার হলো।
    এইজন্য ধন্যবাদের চেয়েও বেশিকিছু পাওনা রইল তোমার।

    আর পারফর্মেন্স?
    সেতো ফা-টা-ফা-টি-ই-ই-ই...... (সম্পাদিত)


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  4. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    বেনিমাধবকে নিয়ে জয় গোস্বামীর এই কবিতাটি বহুল পঠিত। কিছুদিন আগেই এক অনুষ্ঠানে বন্ধুর বৌ করলো, সে অবশ্য জাতীয় পুরষ্কার পাওয়া, তাই তুলনায় গেলাম না।
    আপনার কবিতার পুরো কম্পোজিশন টা বেশ ভালো হয়েছে।
    যদিও কবি হিসাবে জয় গোস্বামী কে আমার অতি প্রশংসিত মনে হয়।

    আপনার জন্য একটা কবিতা দিলাম।

    Charles Bukowski
    Style
    Style is the answer to everything.
    A fresh way to approach a dull or dangerous thing.
    To do a dull thing with style is preferable to doing a dangerous thing without style.
    To do a dangerous thing with style, is what I call art.
    Bullfighting can be an art.
    Boxing can be an art.
    Loving can be an art.
    Opening a can of sardines can be an art.
    Not many have style.
    Not many can keep style.
    I have seen dogs with more style than men.
    Although not many dogs have style.
    Cats have it with abundance.
    When Hemingway put his brains to the wall with a shotgun, that was style.
    For sometimes people give you style.
    Joan of Arc had style.
    John the Baptist.
    Jesus.
    Socrates.
    Caesar.
    García Lorca.
    I have met men in jail with style.
    I have met more men in jail with style than men out of jail.
    Style is a difference, a way of doing, a way of being done.
    Six herons standing quietly in a pool of water,
    or you,
    walking out of the bathroom without seeing me.


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন
  5. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    🙂 🙂 🙂 🙂

    মঞ্চে পুরস্কার প্রাপ্ত আবৃত্তিকারের কন্ঠে 'মালতিবালা বালিকা বিদ্যালয়' শুনবার পর আমার পাঠ কতখানি 'ডাল' লেগেছে অনুধাবন করতে পারছি, রাজীব!

    স্টাইল কবিতাটি প্রথম শুনি আমার এক শিক্ষকের মুখে। বেঞ্চের ওপর পা তুলে এক অর্বাচীন ছেলের সশব্দে প্রিঙ্গেলস খাওয়ার দৃশ্য দেখে তিনি এর অংশবিশেষ পড়েছিলেন আজো মনে আছে আমার। আজ অনেকদিন পর তোমার কল্যাণে পড়লাম আবার এই কবিতা। ইউটিউবে দেখি কবি নিজেই পাঠ করেছেন এটি! শুনেছো? বার কয়েক পাঠ করবার পর মনে হলো খুব একটা খারাপ লাগছেনা শুনতে। সিসিবিতে সম্প্রতি ইংরেজিতে ব্লগ পোস্ট বিষয়ক আলোচনার পর ভাবছি ইংরেজি কবিতা এখানে রিসাইট করা ঠিক হবে কিনা। গেল সপ্তাহে আমার বন্ধু পাপিলির সাথে গবলিন মার্কেট পাঠ করছিলাম, জানো। সেই তখন থেকেই গবলিন মার্কেটের ভূত চেপে আছে মাথায়। গবলিন মার্কেট বিশাল কবিতা আমি জানি, সেটি এখানে পাঠ করা সমীচীন হবেনা। আমি ভাবছি রবি ঠাকুরের লেখা পাঠ করা যেতে পারে বাংলা আর ইংরেজি দুই ভাষাতেই। দেখি এডু স্যার কি বলেন এই ব্যাপারে!

    জবাব দিন
  6. সাইদুল (৭৬-৮২)

    পুরো কবিতাটা চোখে দেখতে পাচ্ছিলাম। চোখ বুজে শুনে দেখো, দৃশ্য গুলো ভাসবে
    তারা আর অরিন্দমকেও ধন্যবাদ
    চৌরাসিয়ার জন্যে কিছু নেই। তার কাজই এই


    যে কথা কখনও বাজেনা হৃদয়ে গান হয়ে কোন, সে কথা ব্যর্থ , ম্লান

    জবাব দিন
  7. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    সবথেকে ভালো লেগেছে তারার সুর সংযোজনা।
    তোমার পাঠ কবিতার সুর ছুটে পেরেছে -- ছুঁয়েছে শ্রোতার হৃদয়।
    আর অরিন্দমের চমৎকার ছবি। সব মিলিয়ে সুন্দর পরিবেশনা।
    তবু আরেকটু গড়িয়ে পড়লে যেন বেশ শোনাত -- থেমে থেমে চলছিলে যেন কোথাও। এটা বলা এ জন্যে যে তোমার কাছে যা প্রত্যাশা এখন , তাকে বাড়িয়েছো তুমিই। 🙂 🙂

    দুয়েকটা ভুল - পাঠে এবং লেখায়।
    তোমায় দেখে এক দৌড়ে পালিয়ে গেছি ঘরে
    কুঞ্জে অলি গুঞ্জে তবু ফুটেছে মঞ্জরী
    আমি কেবল একটি দিন তোমার পাশে তাকে
    মেঝের উপর বিছানাপাতা জ্যোৎস্না এসে পড়ে।
    মিলিয়ে গেছে জানিনা আজ কার সঙ্গে থাকে।
    আমি এখন এই পাড়ায় সেলাই দিদিমনি।
    মেঝের উপর -- পড়ার সময় 'উপরে' পড়েছ। (সম্পাদিত)

    জবাব দিন
  8. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    আধখানা কবিতাই দেখি ভুলভাল বানানে লেখা রয়েছে এখানে, মাষ্টারমশাই! লেখা কপি পেস্ট করবার সময়ে একবারো মাথায় আসেনি বুক শেলফ থেকে বইখানি বের করে যাচাই করে দেখি। এখন দেখি এক মোহনবাঁশীতে দুই চন্দ্রবিন্দু দেয়া এখানে।

    তারা আর অরিন্দমকে তোমার মতামত পৌঁছে দিয়েছি ম্যাসেঞ্জারে। দু'জনি ফিরতি ধন্যবাদ জানিয়েছেন তোমাকে।

    আমি জানি আমার পাঠে ঘাটতি আছে অনেক, নূপুর! কলেজ ছেড়ে এসেছি হাজার বছর আগে কিন্তু এখনো গলার সেই খবরদারী ভাবটা যায়নি। মধু মাখন কত কী খেয়েদেয়ে সুরটা একটু কোমল করতে চাইলাম জানো 'কিন্তু সেই বোস্টুমি আর এলো না' এর মত আমার কন্ঠ কোমল মসৃণ আর হলোনা। এর জন্য আমার ক্রসবেল্টের ফাঁসী চাইতেই পারি।

    অনেক ধন্যবাদ তোমার মতামতের জন্য, নূপুর! আগামী ব্লগে আরো যত্নবান হবো কন্ঠের কারুকার্যে!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।