সখী ভালবাসা কারে কয়

ভালবাসা কি জানতে চেয়ে যে প্রশ্নবোধক চিহ্ন পাঠালে তার উত্তরে বলি,
ভালবাসা হলো হঠাৎ বৃষ্টির দুপুরে ধোঁওয়া ওঠা খিচুরি আর বেগুন ভাজার পাশে এক চামচ ঘি
গ্লোরিয়া জিনসে কফির কাপে চকিতে চুম্বন
অথবা তার আধ খাওয়া বারিটোয় আলতো কামড়,
রাস্তার ঐ পাড়ে জানালার শিকে একটি ভীরু মুখ
অথবা তার অবিন্যস্ত বাদামী চুলে একটি রূপার কাটা।
ভালবাসা মানে হলো প্রিয়ার ঘুম ঘুম ঠোঁটে জন্মের প্রতিশোধ
অথবা তের নদীর ওপাড়ে কনিয়াকবিহীন একজোড়া মুগ্ধ চোখ,
রাইস কুকারের গরম ভাতে ঝাল ঝাল ডিম ভুনা আর প্লামের আচার
ভালবাসা হলো দিনশেষে মেটোপ্রলল এগিয়ে দিয়ে, একটি বেবী এসপিরিনের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়া
অথবা ব্রান্ডির গ্লাসে চুমুক দিতে মনে হয়,
আহা! যদি ছুঁয়ে দিতে পারতাম কাজল কালো চোখের হরিণীটিকে
ভালবাসা মানে হলো তার নাকের ডগায় চুমু খেয়ে ছুটির দিনের ফুলকো লুচি আর মোহনভোগ,
ডেকের ছায়ায় অরেঞ্জ পিকো চা
অথবা তার হাতের মুঠোয় আরও একটি মাখন কোমল হাত
ভালবাসা হলো বাবুই পাখীর স্বপ্ন দেখা লুপার ঝাপসা চোখ,
অথবা মিথিলার কাঁধে হাত রেখে শুভর অচেনা পথ
নিলয়ের গানের সুরে গুনগুন রাত অথবা স্টারবাক্সে কফির কাপে তুমুল ঝড়
ভালবাসা মানে হলো বাড়ী শুদ্ধ সকলের চোখ এড়িয়ে অনভ্যস্ত লাল শাড়ীতে অনন্ত অভিসার,
অথবা দূর দ্বীপবাসিনীর কথামালায় এক ঘুমহীন মেঘের দুপুর।
কর্মক্লান্ত দিনের শেষে স্কাইপে মায়ের হাসি মুখ,
রাজেন্দ্রপুরের শ্যামলিমায় তার বিমুগ্ধ চোখ
ভালবাসা মানে হলো কফির কাপ এগিয়ে দিতে তার মধ্যমা ছুঁয়ে দেয়া,
অথবা কোটি মানুষের ভিড়ে এক অতসীর মুখ!

১,৯৩৮ বার দেখা হয়েছে

২৮ টি মন্তব্য : “সখী ভালবাসা কারে কয়”

  1. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    বুঝলাম!!!
    ভালবাসার মানে আসলেই অনেক অনেক অ-নে-ক কঠিন......

    আজকাল কেন যেন মনেহয় এটা আর এত কঠিন হয়তো না। যেভাবে সকাল বিকাল সবাই প্রেমে পড়ে, ভালবাসাবাসিতে জড়ায়!!!
    অথবা, কি জানি, আমারই বোঝার ভুল, হয়তোবা (সম্পাদিত)


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
      • রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

        কোন অর্থে বলবো>>>>
        সত্যি বলতে কি ভালোবাসা বলতে একমাত্র দেশের প্রতি আছে। এবং আইরনি হচ্ছে দেশের বাইরে থাকি। কিন্তু হোমসীক বা সেই অর্থে দেশের প্রতি বুঁদ হয়ে থাকি না। সত্যিকার অর্থে ভালোবাসি। অন্তত নিজে তাই মনে করি।
        আর ভালোবাসা যদি নর নারী প্রেম বা মানুষের প্রতি মানুষের ভালোবাসা হিসাবে ধরি তাহলে স্ত্রী আর সন্তানদের প্রতি ভালোবাসা আছে।
        এছাড়া অন্য নারীদের প্রতি সেই অর্থে প্রেম নেই।
        খুব খারাপ শোনাতে পারে কিন্তু জানতে চাইলেন বলে বলি।
        কাম অনুভব করি, প্রেম নয়।
        বোঝাতে প্রেরেছি কি আপা। নাকি খুব খারাপ কিছু বলে ফেললাম। তাহলে মাপ চাইছি। :frontroll:


        এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

        জবাব দিন
  2. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    আমিও একটু ভালবাসাকে সংজ্ঞায়িত করার চেষ্টা করি।
    আমার কাছে সাধারনভাবে ভালবাসা জিনিষটাকে একধরনের দখলদারি প্রবৃত্তি বলেই মনেহয় আজকাল। এর এই দখলদারিত্বের উৎস হতে পারে: ১) জন্মসুত্রে অর্জিত কোন অধিকার বা দাবী উৎসরিত (পিতা-মাতা-ভাই-বোনের বা দেশের প্রতি ভালবাসা), ২) মুগ্ধতা উৎসরিত (প্রিয় বস্তু, প্রিয় জন বা প্রিয় দল, ইত্যাদির প্রতি ভালবাসা) ৩) এড্রেনালিন রাস উৎসরিত (যাদের জন্য ফ্যাটাল এট্রাকশান বোধ হয়)।
    আজকাল আরও মনেহয় যে ভালবাসা কোন স্থায়ী কিছু নয়। নানা কারনে উৎসে ভাটা পড়লে ভালবাসায়ও টান পড়ে। সেইসাথে কমে আসে দখলদারিত্বের প্রবৃত্তিটাও।
    শুনতে খারাপ লাগছে হয়তো, কিন্তু এটাই আমার এই মুহুর্তের অনুভব।


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  3. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    আমি মানুষটা একটু দুষ্টু কি না -- তাই বেশি বেশি করে কামড়, চুম্বন এ শব্দগুলোই চোখের চোখের সামনে এত্ত বড় হয়ে দেখা দিতে লাগলো। কফির কাপে-টাপে না। হি হি

    জবাব দিন
  4. অরূপ (৮১-৮৭)

    একটু আগেই ভাবছিলাম আমি ফেসবুকের আচ্ছন্ন বাসিন্দা ... এখানে সিসিবিতে না এলে কত লেখা কত কবিতা মিস করতাম ... রাজিবকে ধন্যবাদ ...
    খাবার দাবারকে তুমি এত চমৎকার ভাবে লেখায় মেশাও অদ্ভুত ভালো লাগে সবিনা :thumbup: :thumbup: ... শিখছি ... (সম্পাদিত)


    নিজে কানা পথ চেনে না
    পরকে ডাকে বার বার

    জবাব দিন
    • সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

      🙂 🙂 🙂 🙂

      দেশে থাকতে আমি মাঝারী মাপের রোগা পটকা ছিলাম, দাদা! খাবার টেবিলে বসে কত যে ঝামেলা করেছি মায়ের সাথে। মা বলতেন আমার পাখির আহার! আমি খেতে শিখেছি দেশের বাইরে এসে। খেতে শেখার পর মনে হলো রান্না শেখা খুব জরুরী এবার। সেই শুরু আমার। শুরুতে সিদ্দিকা কবিরের বইটিই ছিল আমার একমাত্র ভরসা। আগে তো আর ইউ টিউব ছিলনা, দাদা! আমার মনে হয় খেতে বা খাওয়াতে যে ভালবাসে রান্না করা তার জন্য ভীষণ আনন্দের ব্যাপার।

      জবাব দিন
    • সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

      🙂 🙂 🙂 🙂 🙂

      দেশে থাকতে আমি মাঝারী মাপের রোগা পটকা ছিলাম, দাদা! খাবার টেবিলে বসে কত যে ঝামেলা করেছি মায়ের সাথে। মা বলতেন আমার পাখির আহার! আমি খেতে শিখেছি দেশের বাইরে এসে। খেতে শেখার পর মনে হলো রান্না শেখা খুব জরুরী এবার। সেই শুরু আমার। শুরুতে সিদ্দিকা কবিরের বইটিই ছিল আমার একমাত্র ভরসা। আগে তো আর ইউ টিউব ছিলনা, দাদা! আমার মনে হয় খেতে বা খাওয়াতে যে ভালবাসে রান্না করা তার জন্য ভীষণ আনন্দের ব্যাপার।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।