ভাগ্যিস

ভাগ্যিস আমাদের দুজনের দু’টি আলাদা অস্তিত্ব ছিলো
হয়তো সেজন্যই বিপন্নতার টানাপোড়নে
একে অন্যের জন্যে উদ্বিগ্ন হবার সুযোগ ছিল।

ভাগ্যিস আমাদের ফ্লাটে ছিল আলাদা দু’টো শোবার ঘর
দু’টো আলাদা বিছানা―
আমাদের যখন ভাব হতো না অথবা
একান্তই নিজস্ব কিছু মুহূর্ত কাটাবার
প্রয়োজন ছিল অবধারিত
তার পরিসর ছিল হাতের নাগালেই।

ভাগ্যিস আমাদের আলাদা দু’টো জানালা ছিল
সেই জানালার শার্সিতে ছিল আলাদা আকাশ
আলাদা রঙের রোদ্দুর কিম্বা জ্যোৎস্না ছিল
ছিল আলাদা অন্ধকারও কিছু―
আমরা কখনো কখনো একে অন্যকে
নিজেদের ঘরে কিম্বা জানালায়;
অথবা কখনো আরো আপন ভেবে
আকাশে, রোদ্দুরে, জ্যোৎস্নায়;
এমনকি অন্ধকারেও নিমন্ত্রণ করতে পেরেছি।

ভাগ্যিস আমাদের দুজনের একটাই পৃথিবী ছিল
নয়তোবা মহাজাগতিক প্রসারণে
আমাদের আলাদা হয়ে যাওয়া ছাড়া
অন্য কোন গত্যন্তর ছিলো না।

৯০০ বার দেখা হয়েছে

১৪ টি মন্তব্য : “ভাগ্যিস”

  1. লুৎফুল (৭৮-৮৪)

    আশ্চর্য সুন্দর আলাদা আকাশ, রোদ্দুর, জ্যোতস্না, এমনকি জানালা, বিছানা, ঘর:
    এখনো আলাদা সত্বা, আলাদা শরীর, মন, ভাবনার গোয়েবলস, তবুও হইনি পর।

    অনবদ্য ভাবনার সমীরণ
    আঁকে ছবিতে রক্তক্ষরণ।

    জবাব দিন
  2. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    :clap: :clap: :clap: :clap:

    লোরকার জন্মদিন ছিল এ মাসেই, ভাইয়া। তাঁর স্মরণে লেখা একখানা প্রবন্ধ পড়ছিলাম ইন্টারনেটে। দেখুন, সেই কোনকালে লোরকা বলেছেন, The artist, and particularly the poet, is always an anarchist in the best sense of the word. He must heed only the call that arises within him from three strong voices: the voice of death, with all its foreboding, the voice of love, and the voice of art. জ্ঞান অথবা বোধের অভাবে অধিক উপমা অথবা যুক্তাক্ষরযুক্ত কবিতার কিছুই বুঝতে পারিনা আমি, তাই কবিতায় আমি নিরব পাঠক বৈ কিছু নয়! আপনার কবিতা পড়ে অভিধান ছাড়াই সব বুঝতে পারলাম; একটি দৃশ্যকাব্য তৈরি হল মনের আয়নায়।
    অসাধারণ! :boss:

    জবাব দিন
    • মোস্তফা (১৯৮০-১৯৮৬)

      এই হলো পানা-পুকুরে সন্তরণের সুবিধে। অবাধে তুমি সাঁতরাতে পারবে গ্রাম্য বালিকার মতো। নরম জলের গন্ধ দেখবে কেমন আপন করে কাছে টেনে নিচ্ছে তোমাকে। নির্জন মাছের চোখে তরঙ্গের খেলা দেখে দেখে বিস্মিত হবে তুমি। অফুরন্ত ঘুমে চোখ দু'টি ভরে নিয়ে সন্তরণ শেষে সন্ধ্যের হাঁসের মত উঠে আসবে তুমি কিশোরীর কোলের আদরে। এই বেশ ভালো লাগে কি না?


      দেখেছি সবুজ পাতা অঘ্রানের অন্ধকারে হতেছে হলুদ

      জবাব দিন
    • খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

      লোরকার উদ্ধৃতিটুকু বডডো রেখাপাত করে গেলো মনের গভীরে। মনের কথাটাই বলে গেছেন তিনি খুব সহজ করে।
      "three strong voices"এর বলিষ্ঠ কন্ঠ তো আমি এখন প্রতিনিয়তই শুনি।

      জবাব দিন
  3. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    আমাদের জাগতিক জীবনে এরকম ভাগ্যিস কত কিছুই থাকে বলে আমরা বিভেদেও একত্রিত থাকতে পারি, একইসাথে বহুজগতে বিচরণ করতে পারি, মিলনে বিভক্ত হতে পারি, বিভক্তিতে মিলিত।
    চমৎকার কবিতা। চিন্তার পক্ষীশাবককে পাখা মেলতে শেখায়।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।