বিশ্বকাপ : প্রিভিউ: গ্রুপ এ আর গ্রুপ বি এর শেষ দিন আজ

গ্রুপ এঃ

এখানে মজার কোন ফল গ্রুপের চেহারা হঠাৎ বদলে দিতে পারে। উরুগুয়ে আর মেক্সিকো দু’দলই দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠবে এটা নিশ্চিত, কিন্তু সেটা এই জন্য না যে তারা ড্র করার জন্যই খেলবে, বরং এখনো পর্যন্ত যা দেখলাম, দুদলের শক্তির সমতাই একটা ড্র নিয়ে আসবে। তবে গ্রুপ রানারআপের সামনে যেহেতু আর্জেন্টিনা পড়বে দ্বিতীয় রাউন্ডে, দু’দলই চেষ্টা করবে এই গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য। উরুগুয়ের জন্য ড্র যথেষ্ট হলেও, মেক্সিকোকে সেখানে জিততে হবেই।

উরুগুয়ের শক্তি হল দিয়েগো ফরলান আর ডিফেন্স। ফরলান যেভাবে শুধু বক্স স্ট্রাইকার না হয়ে পুরো মাঠে খেললো গত ম্যাচে, ভয় পাওয়াই উচিত মেক্সিকোর। আর ডিফেন্সে এদের টিমওয়ার্ক অসাধারান, ইতালিরও উচিত এদের দেখে কিছু শেখা। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীর রাউন্ডে গেলে এদের যোগ্যতা আছে সেই ম্যাচটাও জেতা। মেক্সিকোর ফিনিশিং এখনো পর্যন্ত ভালো কিছু না মনে হলেও দল হিসেবে বেশ ভালো। এদের শক্তি হল এরা খুব দ্রুত আক্রমনে উঠতে পারে, আর পিছে আছে রাফায়েল মার্কেজ। ডিফেন্ডার হিসেবে মার্কেজ তো অসাধারন, আর যেটা করে সেটা হল নিচ থেকে নিখুঁত লং বল থ্রু করা। ডস স্যান্টোস আর ভেলা তো আছেই, মার্কেজের লং বল ভালোই কাজে লাগাতে পারবে এরা (সমস্যা একটাই, কার্লোস ভেলা এখনো ঘুমিয়ে আছে)| আমার প্রেডিকশন হল ১-১ ড্র।

ফ্রান্সের কথা যত কম বলা হয় ততই ভালো, টিমটা একেবারে বিধস্ত হয়ে গেছে সর্বশেষ কিছু ঘটনায়। শেষ ১৬ এর জন্য ফ্রান্সকে অবশ্যই জিততে হবে এবং সেটাও বড় ব্যাবধানে, আর তারপর তাকিয়ে থাকতে হবে উরুগুয়ে-মেক্সিকো ম্যাচের দিকে। আমার মনে হয় না ফ্রান্স এই চ্যালেঞ্জটা নিতে মানসিকভাবে প্রস্তুত আছে, প্লেয়ার আর মিডিয়াও ধরে নিয়েছে তাদের আর কোন আশা নেই। দক্ষিন আফ্রিকারও একই অবস্থা, অর্থহীন ম্যাচ খেলার জন্য মোটিভেশন পাওয়া খুব কঠিন যেকোন দলের জন্য। আমার প্রেডিকশন হল ফ্রান্স ১-০ অথবা ২-১ গোলে জিতবে, ফ্রান্সের প্রথম একাদশে কিছু চেঞ্জ আসতে পারে; তাই নতুন প্লেয়াররা হয়ত শেষ সুযোগ হিসেবে ভালো কিছু করে ফেলতে পারে।

ডমেনেখ যে এই বিশ্বকাপের পর আর থাকছে না এটা নিশ্চিত। বলার মত কিছু না করেও আর মিডিয়া / প্লেয়ারদের সাথে খারাপ সম্পর্ক নিয়েও অনেক দিন থাকলো, বলা যায় ফ্রান্সের ফুটবলকে নিজ হাতে শেষ করে গেলো। ফ্রান্স হল এই বিশ্বকাপের শেম অফ দ্যা টুর্নামেন্ট ( ইংল্যান্ডকে জোক অফ দ্যা টুর্নামেন্ট আর ইতালীকে শিট হেড অফ দ্যা টুর্নামেন্ট বলতে পারি একসাথে)।

গ্রুপ বিঃ

গ্রীস দিয়ে শুরু করতে চাই। বিশ্বকাপের আগে মনে করেছিলাম এরাই গ্রুপের শেষ দল হবে, কিন্তু এরা এখনো ফাইটেই আছে। নাইজেরিয়ার সাথে এদের লাস্ট ম্যাচটা ছিলো অসাধারন। গ্রীস ডিফেন্সিভ খেলে সবাই জানে, কিন্তু লাস্ট ম্যাচে গোল খাওয়ার পর এরা যেরকম অ্যাটাকিং খেলা দেখালো, অসাধারন টিম গেম। খেলার সময় আমি আসলেই অবাক হয়ে ভাবছিলাম, এরা যদি এতো সুন্দর অ্যাটাকিং খেলতে পারে, তাহলে সবসময় ডিফেন্সিভ কেন খেলে!

যাই হোক, গ্রীস খেলবে আর্জেন্টিনার সাথে আজ। আর্জেন্টিনা কিছু প্লেয়ারকে বসিয়ে রাখতে পারে, তারপরও গ্রীসকে হারাতে কোন সমস্যা হবে বলে মনে হয় না। কোরিয়ার মত হয়ত এত গোল দিতে পারবে না গ্রীসের শক্ত ডিফেন্সের কারনে; ১-০ অথবা ২-০ গোলের জয় আর্জেন্টিনা সহজেই পেতে পারবে, দ্বিতীয় একাদশ নামালেও। আসলে যাদের বেঞ্চের প্লেয়ার হল বুরদিসো, ওটামেন্ডি, বালোত্তি, পাস্তোরে, আগুয়েরো আর মিলিতো, গ্রীসের চ্যালেঞ্জ বড় কোন বিষয় হবে না। ধরে রাখতে পারি গ্রীস আজকে অ্যাটাক করতেই উঠবে বেশী, গোল ব্যাবধানে দক্ষিন কোরিয়া পিছনে ফেলার জন্যই, কিন্তু গ্রীসের স্ট্রাইকারদের যা অবস্থা, মানে জেতার আশা নাই আজকে।

আর্জেনটাইন ডিফেন্সের একটা বড় পরীক্ষা হবে আজকে, এই বিশ্বকাপে কোন ইউরোপিয়ান টিমকে ফেস করতে হবে প্রথম। আফ্রিকান কিংবা এশিয়ান টিমের চেয়ে ইউরোপীয়ান টিমগুলোতে আক্রমনে অনেক ক্রিয়েটিভিটি আছে, তাই আর্জেন্টিনার ডিফেন্স হয়ত ভাংতে পারবে গ্রীস, কিন্তু গোল দেয়াটাই বড় সমস্যা হবে।

গ্রীসের বিপদকে কাজে লাগানো উচিত সাউথ কোরিয়া আর নাইজেরিয়া দুদলেরই। শেষ ম্যাচ আর অঙ্কের মারপ্যাচের জন্য নাইজেরিয়া অবশ্যই এটাকিং খেলবে, যেনো তিন দলের পয়েন্ট ৩ নিয়ে আসতে পারে। আগের ম্যাচে ১০ জন নিয়ে গ্রীসের সাথে যেরকম ফাইট দিছে এরা, আজকে বাজি লেগেই খেলতে নামবে নিশ্চিত। সাউথ কোরিয়ারও তো সেরকম আশা আছে, গ্রীসের পরাজয় নিশ্চিত হলে নাইজেরিয়ার সাথে একটা ড্র করতে পারলেই পরের রাউন্ড, কিন্তু ঝুকি না নেয়ার চেয়ে জেতার চেষ্টা করাই ভালো। দু’দলেরই শক্তিই হল দ্রুত আক্রমনে উঠা, তাই দুর্দান্ত একটা ম্যাচ দেখা যাবে বলেই মনে হয়। আরেকটা কথা, এরিয়াল বলে নাইজেরিয়া বেটার তাদের শারীরিক সামর্থের কারনে, এটা একটা বিশাল ফ্যাক্টর না হয়ে দাঁড়ায়।

আমার একটা দুর্বল প্রেডিকশন ফেলে দেই এখানে, কেন জানি মনে হচ্ছে নাইজেরিয়া জিতবে এই ম্যাচটা আর তারপর গোল ব্যাবধানের হিসেবে পরের রাউন্ডে উঠে যাবে। গ্রীস আর সাউথ কোরিয়ার গোল ব্যাবধান হল -১ আর নাইজেরিয়ার -২, তাই গ্রীস আর কোরিয়া দুদলই হারলে সুপার ঈগলসদের গোল ব্যাবধান এমনিতেই ভালো হবে।

দেখা যাক কি হয় আজকে। গ্রুপ এ এর ম্যাচ শুরু হবে রাত ৮টায়, আর গ্রুপ বি এর ম্যাচ শুরু হবে রাত সাড়ে ১২টায় (বাংলাদেশ সময়)।

মন্তব্য স্বাগতম।

৮৯৭ বার দেখা হয়েছে

২১ টি মন্তব্য : “বিশ্বকাপ : প্রিভিউ: গ্রুপ এ আর গ্রুপ বি এর শেষ দিন আজ”

  1. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    আমার প্রেডিকশন
    গ্রুপ এঃ
    ফ্রান্স ১- সাউথ আফ্রিকা ০
    উরুগুয়ে ০ - মেক্সিকো ০

    গ্রুপ বিঃ
    সাউথ কোরিয়া ০ - নাইজেরিয়া ১
    আর্জেন্টিনা ২ - গ্রীস ০

    দেখা যাক কি হয়।

    জবাব দিন
  2. মেহেদী হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    আমার প্রেডিকশন
    গ্রুপ এঃ
    ফ্রান্স ১- সাউথ আফ্রিকা ১
    উরুগুয়ে ১ – মেক্সিকো ০

    গ্রুপ বিঃ
    সাউথ কোরিয়া ০ – নাইজেরিয়া ১
    আর্জেন্টিনা ২ – গ্রীস ১

    জবাব দিন
  3. ইফতেখার (৯৫-০১)

    খবরে দেখলাম ফ্রান্স দলে (আজকের খেলায়) ৬ টি পরিবর্তন ... অধিনায়ক প্যাক্ট্রিক এভরাই শুরু থেকে খেলবেন না।

    এই দল এইবার ২য় রাউন্ডেই যাবে না মনে হয়, যদি যায়ও ... সেটাই শেষ।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।