টুকরো বিনোদন

ক্যাডেট কলেজে অনেক ঘটনাই হটাত হটাত ঘটে যায় যা পরে মনে করে অনেক হাসি পায়। তেমন কিছু টুকরো ঘটনা এবং কিছু বোরিং জোক্স নিয়ে হাজির হলাম। এর মধ্যে কিছু কিছু ঘটনা নিজের অভিজ্ঞতা আর কিছু অন্যের কাছে শোনা।

 

১/ ইসলাম শিক্ষা খাতায় সব সময়ই সবার মুল লক্ষ্য থাকে কিভাবে পৃষ্ঠা সংখ্যা বাড়ানো যায়। এর বাইরে মুল লক্ষ্য হল নীল কালিতে আলাদা কোটেশনে হাদিস/ কোরানের আয়াত লেখা যার অধিকাংশই ছিল নিজের মন গড়া। তো যাই হোক ক্লাস ৮ এর ফাইনাল টার্ম এর পরিক্ষার খাতা দিচ্ছে। Academic Result  এর উপরে নির্ভর করে আছে হাউসের ভাগ্য তাই কেউ ২/১ টি নাম্বার ও বিসর্জন দিতে নারাজ। কতিপয় ক্লাসমেট দেখল যে একটি প্রশ্নে সবাইকেই ১০ এর মধ্যে ৭ বা ৮ দেয়া হয়েছে কিন্তু তাকে দেয়া হয়েছে ৫। কাজেই সে চিন্তা করিল যে দেখি আরো ২ মার্ক বাড়ানো যায় কিনা যেহেতু বাকি সবার সর্বনিম্ন নাম্বার হল ৭।

যথারীতি সে স্যার এর সামনে হাজির এবং তার আরজ জানালো যে তার অন্তত আরো ২ মার্ক প্রাপ্য। স্যার তখন বললেন, “তাই নাকি? আচ্ছা দেখি তো কি লিখেছ?”এই বলে পড়া শুরু করলেন ওই প্রশ্নের উত্তর।

প্রথম পাতাতেই পেয়ে গেলেন নীল কালিতে লেখা এক বিখ্যাত কোটেশন।যাহা ছিল নিম্নরুপঃ
“ বিখ্যাত ইসলামী চিন্তাবিদ জনাব ম্যাথু হেইডেন বলছেন, আল্লাহ্‌ এক এবং অদ্বিতীয়। হযরত মুহাম্মদ(সঃ) তার রাসুল। একই সাথে তিনি ৫ ওয়াক্ত নামাজের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।“

এইটুকু পড়েই শুরু হয়ে গেল সেই লেভেলের মাইর এবং ফলস্বরূপ পুরো খাতা পড়লেন এবং আরো এমন অনেক কোটেশন পেয়েছিলেন। এবং দুঃখজনক হলেও সত্যি উক্ত ক্লাস মেট পরে ফেল করেছিল। বেচারা।

২/ এবারে আসি এক বোরিং জোক্সে। স্থানঃ ডাইনিং হল। টেবিলে আমার এক ক্লাস মেট এর কাছে টেবিল লিডার বলল,

” এই ******, ভাতের চামচ টা দাও তো?”

সে অনেকক্ষণ ভাইয়ের মুখের দিকে অবাক চোখে তাকিয়ে থেকে কিছুক্ষন পর ভাইকে বলল,

” ভাই আমি তো এখানে কোন ভাত এর চামচ দেখতে পাচ্ছি না, সব তো দেখি স্টিলের চামচ।“

কেউ আমারে মাইরালা।

৩/ এবারের খানা একটু ভালগার। কাজেই একটু নিজ দায়িত্তে পরের অংশ পড়ার অনুরোধ করছি। কেউ যদি মনে করেন যে ঠিক হবে না আর সামনে পড়া এখানেই থেমে যান।এই ঘটনা শোনা কাহিনী।

কতিপয় ক্যাডেট হাত সম্পর্কিত কোন একটা কর্ম করতে গিয়ে ধরা পড়লেন এক স্যার এর কাছে।স্যার বল্লেন,”লেখ বেটা, এখন স্টেটমেন্ট লেখ।“
উক্ত ক্যাডেট লেখা শুরু করলেন।

বরাবর,

অধ্যক্ষ,

বরিশাল ক্যাডেট কলেজ, বরিশাল।

 

এইটুকু লেখার পর তার মনে হল, আচ্ছা বিষয় কি দেব?

স্যার কে জিজ্ঞেস করলেন,”স্যার স্টেটমেন্ট এ বিষয় কি লিখবো?”

স্যার এর উত্তর ছিল, “লেখ বেটা Hand Pollution “

১,০৬৭ বার দেখা হয়েছে

১১ টি মন্তব্য : “টুকরো বিনোদন”

  1. রায়হান (১৯৯৮-২০০৪)

    ভাই Resource কম তো
    এক দিনে সব লিখে ফেললে পরে কি লিখুম??
    😛
    তাই কিছু জমাইয়া রাখছি
    =D


    একটি বাংলাদেশ তুমি জাগ্রত জনতার,সারা বিশ্বের বিস্ময় তুমি আমার অহংকার

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।